ভালো ছবি বানালে একশো রকম ট্র্যাপ করা হয়: শাকিব খান

প্রকাশ : ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৪:৩৭ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

বুধবার রাজধানীর একটি পাঁচতারা হোটেলে বক্তব্য রাখছেন সুপারস্টার শাকিব খান। ছবি: সংগৃহীত

আজ একটি শুভ দিন। এই শুভক্ষণে আপনাদের সামনে আমার ব্যক্তিগত একটি ঘোষণা দিতে চাই। সেটা কিন্তু আবার আমার বিয়ের ঘোষনা নয়। বহুদিন ধরে একটি বিষয় আমিও চাইছিলাম। আপনারা আমার 'শিকারি', 'নবাব', 'চালবাজ' ছবিগুলোতে আমার পরিবর্তন দেখেছেন। 

আমার ফ্যানরাও উদগ্রীব হয়ে থাকেন আমাকে নতুন নতুন রুপে দেখতে। তারা ইন্টারন্যাশনাল সুপারস্টারদের লুকের মতো তাদের হিরোকেও দেখতে চান। তারা চান শাকিব খান সেই লেবেলের লুক নিয়ে তাদের মাঝে হাজির হোক। 

আমার ফ্যান ফলোয়ারদের কাছে আমি কথা দিচ্ছি, তারা যেমনটি দেখতে চান আগামীতে ঠিক তেমনভাবেই নতুন এক শাকিব খান হয়ে উপস্থিত হবো ইনশাল্লাহ। শিগগিরই আমি নতুন এক শাকিবকে হাজির করবো; যাকে দেখে আমার ভক্তরা সত্যিই গর্বিত হবেন।

বুধবার রাজধানীর একটি পাঁচতারা হোটেলে শামিম আহমেদ রনি পরিচালিত নতুন ছবি ‘শাহেন শাহ’র মহরতে নিজের বক্তব্যে ভক্তদের নিজেকে পরিবর্তনের এভাবেই প্রতিশ্রুতিই দিলেন ঢাকাই ছবির বর্তমান সুপারস্টার শাকিব খান। 

এ সময় তিনি আরও বলেন, শুধু বডি-ফিটনেসের দিক থেকে নয়, আমার অতীতের সকল প্রকার মন্দ বিষয়গুলোকে কেটে আমি এক আইকনিক শাকিব খানকে উপস্থাপন করতে চাই এবং করবো ইনশাল্লাহ। আগামী শুক্রবার জুমার নামাজ পড়ার পর থেকেই এক নতুন শাকিবের পথ চলা শুরু হবে। আপনার সবাই শুধু আমার জন্য দোয়া করবেন।

বাংলাদেশের হলগুলো পর্যাপ্ত সুযোগ সুবিধা সম্ভলিত নয়। হলে এসি তো দূরের কথা ফ্যানও থাকে না। এমন পরিবেশেও দর্শকরা ঘেমে কষ্ট করে হলে বসে ছবি দেখেন। এ জন্য ভক্তদের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন ‘শিকারি’খ্যাত এ নায়ক। তাদের জন্যই নিজের মাঝে এমন পরিবর্তন আনার পরিকল্পনা নিয়েছেন বলে জানান শাকিব খান। 

বক্তব্যে এ ঢালিউড সুপারস্টার বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের দৈনতার বিষয় উল্লেখ করে বলেন, ভালো ছবি বানালে একশো রকম ট্র্যাপ করা হয়, একশো আইনের মারপ্যাঁচে ফেলা হয় ভালো ছবিটাকে আটকানোর জন্য। এভাবে ভালো ছবিগুলোকে পদে পদে আটকানো হচ্ছে। 

দর্শকদের কাছে ভালো ছবিটা পৌঁছে দিতে একজন প্রযোজককে যে কতো কষ্ট করতে হচ্ছে সেটা যিনি ছবিতে বিনিয়োগ করছেন তিনিই ভালো জানেন। সুতরাং, এই যে দুরাবস্থা, মারপ্যাঁচ ও আইনি জটিলতার মধ্যেও যারা ছবি বানাচ্ছেন তাদেরকে সেলুট জানাই।

এছাড়াও চলচ্চিত্রের এই পরিস্থিতিতেও সর্বদা দেশের চলচ্চিত্রের পাশে ছিলেন, আছেন, থাকবেন উল্লেখ করে শাকিব খান বলেন, ‌আমি বাংলাদেশের ছেলে, বাংলাদেশের হিরো। এই ইন্ডাষ্ট্রি ভালোর জন্য আমাকেই লড়ে যেতে হবে। আর কেউ ইন্ডাষ্ট্রির ভালোর জন্য লড়ুক আর না লড়ুক আমি লড়াই করে যাচ্ছি এবং করে যাবো।

‘শাহেনশাহ’র মহরতে শাকিব খান ছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন নুসরাত ফারিয়া, রোদেলা জান্নাত, তারিক আনাম খান, উজ্জ্বল প্রমুখ। আগামী ১১ সেপ্টেম্বর থেকে কক্সবাজার এই ছবির শুটিং শুরু হবে বলে জানিয়েছেন পরিচালক শামীম আহমেদ রনি।