১৯ সেপ্টেম্বর: হাসতে নেই মানা
jugantor
১৯ সেপ্টেম্বর: হাসতে নেই মানা

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:২৮:০৫  |  অনলাইন সংস্করণ

* জোকস-১

স্ত্রী: ধোঁকাবাজ, শয়তান, ইতর!
স্বামী: কী হয়েছে জান, প্রিয়া আমার? তোমার জ্ঞাতিগোষ্ঠির নাম ধরে ডাকছো কেন সকাল সকাল?
স্ত্রী: এগুলো তোরই নাম! তুই একটা ধোঁকাবাজ!
স্বামী: কী ধোঁকা দিলাম তোমাকে আবার!
স্ত্রী: বিয়ের আগে কেন বলিসনি যে, তোর রানী নামে একটা বউও আছে!
স্বামী: আমি তো তোমাকে বারবার বলেছি, ‘তোমাকে রানীর মতো রাখবো’। কি, বলিনি?

* জোকস-২

বিয়ের কিছুদিন পর বউ তার বরকে বলছে-
বউ : জানো আমি কতো বড় মহত্ ?
বর : কেন কী হয়েছে
বউ : কারণ বিয়ের আগে আমি তোমাকে না দেখেই বিয়ে করেছিলাম।
বর : তাহলে তো আমি তোমার থেকেও বড় মহৎ
বউ : কীভাবে ?
বর : কারণ আমি তোমাকে দেখার পরেও বিয়ে করেছি।

* জোকস-৩

ইদানিং ছেলেটা খুব বিরক্ত করছে মেয়েটিকে। স্কুলে যাবার পথে, বাড়ি থেকে বের হলেই পিছু নিতো মেয়েটির। একদিন ছেলেটি হুট করে মেয়েটির বাড়িতে হাজির। তাকে দেখেই মেয়েটি বিরক্ত হয়ে বললো, ‘আমার বাড়িটা কি রেল স্টেশন? যখন তখন ঢুকে পড়বেন আপনি?’
ছেলেটা পরিস্থিতি ঠান্ডা করতে বলল, ‘টিকেট কেটে আসতে হবে?’
মেয়েটির ঝটপট উত্তর, ‘যান কাউন্টারে বাবা বসে আছেন।’

* জোকস-৪

ছেলে : বাবা, আমি দূরের জিনিস ভালো দেখতে পাই না। ডাক্তার দেখিয়ে একটা চশমা নেওয়া দরকার।
বাবা : উপরে তাকা। কী দেখা যায়, বল?
ছেলে : সূর্য।
বাবা : ব্যাটা, আর কত দূর দেখতে চাস?

১৯ সেপ্টেম্বর: হাসতে নেই মানা

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১০:২৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

* জোকস-১

স্ত্রী: ধোঁকাবাজ, শয়তান, ইতর!
স্বামী: কী হয়েছে জান, প্রিয়া আমার? তোমার জ্ঞাতিগোষ্ঠির নাম ধরে ডাকছো কেন সকাল সকাল?
স্ত্রী: এগুলো তোরই নাম! তুই একটা ধোঁকাবাজ!
স্বামী: কী ধোঁকা দিলাম তোমাকে আবার!
স্ত্রী: বিয়ের আগে কেন বলিসনি যে, তোর রানী নামে একটা বউও আছে!
স্বামী: আমি তো তোমাকে বারবার বলেছি, ‘তোমাকে রানীর মতো রাখবো’। কি, বলিনি?

* জোকস-২

বিয়ের কিছুদিন পর বউ তার বরকে বলছে-
বউ : জানো আমি কতো বড় মহত্ ?
বর : কেন কী হয়েছে
বউ : কারণ বিয়ের আগে আমি তোমাকে না দেখেই বিয়ে করেছিলাম।
বর : তাহলে তো আমি তোমার থেকেও বড় মহৎ
বউ : কীভাবে ?
বর : কারণ আমি তোমাকে দেখার পরেও বিয়ে করেছি।

* জোকস-৩

ইদানিং ছেলেটা খুব বিরক্ত করছে মেয়েটিকে। স্কুলে যাবার পথে, বাড়ি থেকে বের হলেই পিছু নিতো মেয়েটির। একদিন ছেলেটি হুট করে মেয়েটির বাড়িতে হাজির। তাকে দেখেই মেয়েটি বিরক্ত হয়ে বললো, ‘আমার বাড়িটা কি রেল স্টেশন? যখন তখন ঢুকে পড়বেন আপনি?’
ছেলেটা পরিস্থিতি ঠান্ডা করতে বলল, ‘টিকেট কেটে আসতে হবে?’
মেয়েটির ঝটপট উত্তর, ‘যান কাউন্টারে বাবা বসে আছেন।’

* জোকস-৪

ছেলে : বাবা, আমি দূরের জিনিস ভালো দেখতে পাই না। ডাক্তার দেখিয়ে একটা চশমা নেওয়া দরকার।
বাবা : উপরে তাকা। কী দেখা যায়, বল?
ছেলে : সূর্য।
বাবা : ব্যাটা, আর কত দূর দেখতে চাস?