আজ বিশ্ব যক্ষা দিবস

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৪ মার্চ ২০১৮, ১৪:৩৬ | অনলাইন সংস্করণ

আজ বিশ্ব যক্ষা দিবস

আজ ২৪ মার্চ পালিত হচ্ছে বিশ্ব যক্ষা দিবস।যক্ষা দিবসে এবারের প্রতিপাদ্য - ‘নেতৃত্ব চাই যক্ষা নির্মূলে, ইতিহাস গড়ি সবাই মিলে’।

যক্ষা রোগের ক্ষতিকর দিক বিশেষ করে স্বাস্থ্য, সামাজিক ও অর্থনৈতিক পরিণতি সম্পর্কে সচেতনতা বাড়াতে এ দিবসটি পালিত হয়ে থাকে।

১৮৮২ সালের এ দিনে ড. রবার্ট কোচ যক্ষার জীবাণু আবিষ্কার ও এ রোগ নির্ণয় ও নিরাময়ের পথ উন্মোচন করেন। তাকে স্মরণ করেই এই দিনটিতে যক্ষা দিবস পালিত হয়ে আসছে।

সারা বিশ্বের দশটি মৃত্যুজনিত কারণের মধ্যে যক্ষা অন্যতম। আর বিশ্বের এক চতুর্থাংশ মানুষের দেহে এই রোগ সুপ্ত অবস্থায় আছে, যা সাধারণত সংক্রমণ ঘটায় না।

তবে, এদের মধ্যে পাঁচ থেকে পনেরো ভাগ মানুষের জীবনে যক্ষার সংক্রমণ হতে পারে। এই রোগ নিয়মিত চিকিৎসায় সম্পূর্ণ নির্মূল করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা।

জাতীয় যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচির (এনটিপি) তথ্য অনুযায়ী, ২০১৭ সালে এনটিপির মাধ্যমে দেশে ২ লাখ ৪৪ হাজার ২০১ জন যক্ষা রোগী শনাক্ত করা হয়েছে।

পাশাপাশি সরকারিভাবে তাদের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। এদের মধ্যে ১৫ বছরের কম বয়সী শিশু যক্ষা রোগী শনাক্ত হয়েছে ১০ হাজার ১৮৯ জন।

দেশে এখন এক্সটেনসিভলি ড্রাগ রেজিস্ট্যান্ট রোগীর সংখ্যা মাত্র ১২ জন। যক্ষা বিষয়ক এক সেমিনারে বিশেষজ্ঞরা বললেন, এই রোগের চিকিৎসায় বাংলাদেশ অনেক দেশের তুলনায় ভালো করছে।

দেশে এগারো’শো একত্রিশটি ল্যাবরেটরি, চল্লিশটি ইকিউ ল্যাবরেটরি এবং একশো তিরানব্বইটি জিন এক্সপার্টের মাধ্যমে যক্ষা নিয়ন্ত্রণ চলছে। আর চিকিৎসা আছে জেলা ও উপজেলার সব চিকিৎসালয়ে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×