১৩ জুলাই: হাসতে নেই মানা
jugantor
১৩ জুলাই: হাসতে নেই মানা

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৩ জুলাই ২০২০, ১০:২৮:১০  |  অনলাইন সংস্করণ

* জোকস -১

একদিন এক ভিক্ষুক গেছে ভিক্ষা করতে-
ভিক্ষুক: আপা, ত্রিশটা টাকা দেন।
গৃহকর্ত্রী: টাকা কি গাছে ধরে?
ভিক্ষুক: কেন আপা, সমস্যা কী?
গৃহকর্ত্রী: আমার স্বামী এখন বাড়িতে নেই।
ভিক্ষুক: আপা, কালকে ফেসবুকে আমাদের ভিক্ষুক সমিতির পেজ থেইকা স্ট্যাটাস দিয়া জানাইছিলাম, ‘আইজ আমরা মিরপুরে ভিক্ষা করবো। আপনার স্বামী টাকা রাইখা যায় নাই কেন?’
গৃহকর্ত্রী: উনি মনে হয় স্ট্যাটাস খেয়াল করেননি।
ভিক্ষুক: ঠিক আছে, মোবাইল নম্বর রাইখা যাইতেছি, ভিক্ষাটা ফ্লেক্সি করে দিয়েন!

* জোকস -২


শিক্ষক: প্রাচীনকালে রোমান সৈন্যরা একধরনের বিশেষ পোশাক পরত।
ছাত্র: সেটা কী বাবা?
শিক্ষক: এখন মেয়েদের কাছে ওই বিশেষ পোশাকটাই ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়।
ছাত্র: পোশাকটার নাম কী?
শিক্ষক: সেটার নাম স্কার্ট।

* জোকস -৩


শিক্ষক: পল্টু, নিউটন সম্পর্কে কিছু জানো?
পল্টু: জানি স্যার!
শিক্ষক: বলো, কী জানো?
পল্টু: বিজ্ঞানীর নাম নিউটন। কাজ রহস্য উদঘাটন। বাড়ি ওয়াশিংটন। বাপের নাম কটন। ভাইয়ের নাম ছোটন। ছেলের নাম প্রোটন। প্রিয় হোটেল শেরাটন। প্রিয় খাবার মাটন। প্রিয় বন্ধুর নাম রতন। প্রিয় খেলার নাম ম্যারাথন। স্যার, আর কিছু?
শিক্ষক: আমার জন্য পানি আনো এক টন।

১৩ জুলাই: হাসতে নেই মানা

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৩ জুলাই ২০২০, ১০:২৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

* জোকস -১

একদিন এক ভিক্ষুক গেছে ভিক্ষা করতে-
ভিক্ষুক: আপা, ত্রিশটা টাকা দেন।
গৃহকর্ত্রী: টাকা কি গাছে ধরে?
ভিক্ষুক: কেন আপা, সমস্যা কী?
গৃহকর্ত্রী: আমার স্বামী এখন বাড়িতে নেই।
ভিক্ষুক: আপা, কালকে ফেসবুকে আমাদের ভিক্ষুক সমিতির পেজ থেইকা স্ট্যাটাস দিয়া জানাইছিলাম, ‘আইজ আমরা মিরপুরে ভিক্ষা করবো। আপনার স্বামী টাকা রাইখা যায় নাই কেন?’
গৃহকর্ত্রী: উনি মনে হয় স্ট্যাটাস খেয়াল করেননি।
ভিক্ষুক: ঠিক আছে, মোবাইল নম্বর রাইখা যাইতেছি, ভিক্ষাটা ফ্লেক্সি করে দিয়েন!

 

* জোকস -২


শিক্ষক: প্রাচীনকালে রোমান সৈন্যরা একধরনের বিশেষ পোশাক পরত।
ছাত্র: সেটা কী বাবা?
শিক্ষক: এখন মেয়েদের কাছে ওই বিশেষ পোশাকটাই ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়।
ছাত্র: পোশাকটার নাম কী?
শিক্ষক: সেটার নাম স্কার্ট।

* জোকস -৩


শিক্ষক: পল্টু, নিউটন সম্পর্কে কিছু জানো?
পল্টু: জানি স্যার!
শিক্ষক: বলো, কী জানো?
পল্টু: বিজ্ঞানীর নাম নিউটন। কাজ রহস্য উদঘাটন। বাড়ি ওয়াশিংটন। বাপের নাম কটন। ভাইয়ের নাম ছোটন। ছেলের নাম প্রোটন। প্রিয় হোটেল শেরাটন। প্রিয় খাবার মাটন। প্রিয় বন্ধুর নাম রতন। প্রিয় খেলার নাম ম্যারাথন। স্যার, আর কিছু?
শিক্ষক: আমার জন্য পানি আনো এক টন।