৮ সেপ্টেম্বর: হাসতে নেই মানা

প্রকাশ : ০৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:১৬ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক   

# জোকস-‌৩
পেশায় মুদি দোকানদার ফারুক মিয়া দোকান খোলার আগে থানায় হাজির-
ডিউটি অফিসার : সকাল সকাল থানায় কেন আসছেন ভাই?
ফারুক মিয়া : আমার বউয়ের বিরুদ্ধে সেফারেশন কেস দেব। গত ৫ বছর ধরে বউয়ের সঙ্গে আমার কোনো কথা হয় না।
ডিউটি অফিসার : বাচ্চা-কাচ্চা কয়টা?
ফারুক মিয়া : ২টা ছেলে! বড় ছেলে ৪ আর ছোটটা ২ বছর!
ডিউটি অফিসার : কী বলেন! একটু আগেই বললেন, ৫ বছর ধরে কথা হয় না! তাইলে কিভাবে কি ভাই?
ফারুক মিয়া : কী যে বলেন স্যার! বাচ্চা হওয়ার জন্য কি কথা বলতে হয় নাকি!

# জোকস-‌২
এক লোক সকাল সকাল ফেসবুক খুলে বসেছিল। তার এক নারী ফেসবুক ফ্রেন্ড লুচি আর মাংসের রেজালা সঙ্গে চায়ের আপলোড করে লিখলো, ‘এসো, সবাই ব্রেকফাস্ট করি।’
লোকটি কমেন্ট করলো: ‘খুব ভালো টেস্ট ছিল, দারুণ লাগলো।’
লোকটির স্ত্রী এই কমেন্ট দেখে স্বামীকে আর টিফিন দিলো না।

ঘণ্টা খানেক পার হয়ে যাবার পরে নাস্তা না পেয়ে লোকটি স্ত্রীকে ডাকল-
স্বামী : কই গো, শুনছো? নাস্তা দিলে না যে!
স্ত্রী : আবার নাস্তা, ফেসবুকে না একবার খেলে?
এ কথা শুনে স্বামী চুপ।

ঠিক পরদিন স্ত্রী স্বামীকে জিজ্ঞেস করল: কইগো, তুমি কি লাঞ্চ ঘরে করবে নাকি ফেসবুকে?

# জোকস-‌৩
স্বামী : আচ্ছা, বিয়ের আগে তোমাকে কেউ চুমু খেয়েছিল?
স্ত্রী : একবার পিকনিকে গিয়েছিলাম। সেখানে আমাকে একা পেয়ে একটা ছেলে ছোরা বের করে বলেছিল, যদি চুমু না খাও, তাহলে খুন করে ফেলবো।
স্বামী : তারপর তুমি চুমু খেতে দিলে?
স্ত্রী : দেখতেই পাচ্ছো, আমি এখনও বেঁচে আছি।