কোরিয়ায় বৃহৎ পরিসরে বাংলাদেশ উৎসবের কর্মসূচি নেয়ার সিদ্ধান্ত

প্রকাশ : ২১ জানুয়ারি ২০১৯, ১৩:৫৯ | অনলাইন সংস্করণ

  ফারুক হিমেল, দক্ষিণ কোরিয়া থেকে

দক্ষিণ কোরিয়ায় ইপিএসকর্মীদের অংশগ্রহণে ২০ জানুয়ারী  রবিবার বাংলাদেশ দূতাবাসের আয়োজনে মতবিনিময়সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সিউলস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের হল রুমে ইপিএসে আগত দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের সমস্যা ও সমাধান নিয়ে এ মতবিনিময় হয়।

রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলামের সূচনা বক্তব্যের মধ্য দিয়ে এ অনুষ্ঠান শুরু হয়। 

এরপর ইপিএস কর্মীদের  বিভিন্ন সমস্যা সংক্রান্ত বিষয়ের ওপর পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপনা করেন দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) মুকিমা  বেগম।

একই সঙ্গে উদ্যোক্তা বিষয়ক একটি তথ্যবহুল প্রেজেন্টেশন  উপস্থাপনা করেন কাউন্সিলর  মোহাম্মদ  মাসুদ রানা চৌধুরী। 

এ মতবিনিময় অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ইপিএস সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং কর্মীরা অংশ নেন। 

ইপিএস মতবিনিময়সভায় উঠে আসে কোরিয়ায় ইপিএস কর্মীদের বড় ধরনের দুর্ঘটনা শিকারে দূতাবাস থেকে সর্বোচ্চ সহযোগিতা করার কথা, কোরিয়ায় বীমা করতে উৎসাহ প্রদান, বৈধ  উপায়ে রেমিটেন্স  প্রেরণকারীদেরকে  বারবার সম্মাননা প্রদান, প্রবাসীকল্যাণ ব্যাংক থেকে সহজ শর্তে লোন, উন্মুক্ত  বিশ্ববিদ্যালয়ের  কোর্স  কার্যক্রম আরো বৃদ্ধি সহ নানা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়।

তাছাড়া,  লাশ প্রেরণে সংগঠন সমূহের সম্বনিত উদ্যোগে ওয়েল ফেয়ার ফান্ড তৈরি, কর্মক্ষেত্রে বীমার বাইরেও অন্যান্য  বহিরাগত ব্যক্তিগত বীমার গুরুত্ব, বিমানবন্দরে প্রবাসীদের  হয়রানি বন্ধ করা সহ নানা বিষয়ে আলোকপাত হয়।

কোরিয়ায় বাংলাদেশ দূতাবাসের পক্ষে বৈধভাবে অর্থ প্রেরণ, কর্মীদের মেয়াদ শেষে দেশে ফিরে যাওয়া, উদ্যোক্তা তৈরি, প্রশিক্ষণে সহায়তা প্রদান, যৌন হয়রানি রোধ ও সচেতনতার ওপর গুরুত্ব দেয়া হয়। এ ধরনের সুন্দর অনুষ্ঠান আয়োজনের জন্য রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলামসহ অ্যাম্বাসির সবাইকে ধন্যবাদ জানান রেমিটেন্স যোদ্ধারা।

পরবর্তীতে রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম কোরিয়ার নেতৃস্থানীয় ১৮ টি  বাংলাদেশি সংগঠনের সঙ্গে মতবিনিময়ে অংশ নেন।

১৮ টি সংগঠনের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকরা মতবিনিময়সভায় তাদের নানা প্রস্তাবনা রাষ্ট্রদূত অভিহিত করেন। 

চলতি বছর রাষ্ট্রদূত কোরিয়াতে বৃহৎপরিসরে দুইদিনব্যাপী বাংলাদেশ  উৎসব পালনের প্রস্তাব দিলে, সকল সামাজিক সংগঠন একমত প্রকাশ করেন এবং রাষ্ট্রদূতকে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। 

সভাসূত্রে জানা যায়, আজকের দুটি মতবিনিময়সভা অত্যন্ত প্রাণবন্ত, ফলপ্রসু হয়েছে। সকল কমিউনিটি  নেতৃবৃন্দ রাষ্ট্রদূতের  এ উদ্যোগ সমূহের ভূয়সী প্রশংসা করেন।