নিউইয়র্কে হেইট ক্রাইমের শিকার প্রবাসী বাংলাদেশি

প্রকাশ : ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:৩৩ | অনলাইন সংস্করণ

  সালাহউদ্দিন আহমেদ, নিউইয়র্ক থেকে

অমুসলিম হয়েও ধর্মবিদ্বেষীদের হাত থেকে রক্ষা পেলেনে না প্রবাসী বাংলাদেশি বরুন চক্রবর্তী। দুস্কৃতিকারীদের হামলায় আহত হয়ে তাকে যেতে হয়েছে হাসপাতালে। হিন্দু ধর্মাবলম্বী ৫২ বছর বয়সী বরুন চক্রবর্তী ব্রকলীন-ম্যানহাটান ডি ট্রেন সাবওয়েতে হেইট ক্রাইমের শিকার হন বলে অভিযোগ করেছেন তিনি ও তার পরিবারে সদস্যরা।

১১ ফেব্রুয়ারি সোমবার এক স্পানিশ যুবকের দ্বারা আক্রান্ত হন তিনি। তার নাম-মুখ ও মাথায় আঘাত করা হলেও বর্তমানে বরুন চক্রবর্তী বিপদমুক্ত।

আহত বরুণ চক্রবর্তীর ভাই বিশ্বজিৎ চক্রবর্তী জানান সোমবার সন্ধ্যা সোয়া ৫টার দিকে কাজ থেকে বাসায় ফেরার পথে ডি ট্রেনে বরুণ চক্রবর্তীর পাশের সীটে বসা এক স্প্যানিশ যুবক প্রথমে তাকে মুসলিম কিনা জানতে চায়, এসময় বরুন চক্রবর্তী না সূচক জবাব দিয়ে কমলা খেতে থাকলে স্প্যানিশ যুবকটি তার কমলায় থুথু ফেলে এবং কনুই ও পা দিয়ে আঘাত করতে থাকে।

বরুণ এমন আচরণ করার কারণ জানতে চাইলে যুবকটি আরো ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে এবং তার নাকে-মুখে ও মাথায় এলোপাথারি ঘুষি মারতে থাকে। এক পর্যায়ে আসন ছেড়ে বরুণ ট্রেনের কম্পাটমেন্টের একপ্রান্ত থেকে দৌড়ে অপর প্রান্তে গিয়ে অন্য যাত্রীদের সাহায্য কামনা করতে থাকনে, সেখানেও তার উপর আক্রমণ হয়।

এক পর্যায়ে এক মহিলা যাত্রী প্রথমে তাকে রক্ষর জন্য এগিয়ে আসার পর অন্য যাত্রীরাও এগিয়ে আসে এবং ইমাজের্ন্সী সুইচ টিপে ট্রেন চলাচল বন্ধ করা হয়। ইতিমধ্যেই বরুণের নাক-মুখ দিয়ে রক্ত বেরুতে থাকলে সে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে পুলিশ এসে ডি ট্রেনের গ্র্যান্ড অ্যাভিনিউ থেকে বরুণকে উদ্ধার করে ম্যানহাটানের মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে নিয়ে যায়। অপরদিকে এমটিএ’র কর্মচারী ও পুলিশের সহযোগিতায় সিটি পুলিশ হামলাকালী যুবককে গ্রেফতার করতেও সক্ষম হয়।

তার বিরুদ্ধে হেইট ক্রাইমের অভিযোগে মামলা হয়েছে বলে জানান বরুন চক্রবর্তীর ভাই বিশ্বজিৎ। হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে ১২ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার ভোর রাত ৩টার দিকে বরুণ চক্রবর্তী তার ম্যানহাটানের বাসায় ফিরে আসেন।