ইতালিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের একুশ উদযাপন

প্রকাশ : ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৫:০৩ | অনলাইন সংস্করণ

  জমির হোসেন, ইতালি থেকে

বিনম্র শ্রদ্ধা ও যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপন করেছে রোম বাংলাদেশ দূতাবাস। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনায় একুশের প্রথম প্রহরে রোমের বাংলাদেশি অধ্যুষিত ব্যবসায়ী এলাকা ভিত্তরিও পার্কে অস্থায়ী শহীদ মিনারে রোম বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত আব্দুস সোবাহান সিকদারের পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে শহীদের শ্রদ্ধা জানানো শুরু হয়।

এরপরই বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং সর্বস্তরের প্রবাসী বাংলাদেশিরা ভাষা শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। তীব্র শীত উপেক্ষা করে অনুষ্ঠানে ৩০টি বেশি সংগঠনের সহস্রাধিক প্রবাসী বাংলাদেশি স্বত:স্ফুর্তভাবে শহীদের স্মরনে অংশগ্রহণ করেন। দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও স্থানীয় শিল্পীদের পরিবেশনায় একুশের সেই কালজয়ী গান আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি/আমি কি ভুলিতে পারি, গাওয়ার মধ্যে দিয়ে ২০ ফেব্রুয়ারি রাত ১০ টায় অনুষ্ঠান শুরু করা হয়।

এছাড়াও স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র থেকে প্রচারিত মর্মস্পর্শী দেশাত্ববোধক গানও পরিবেশন করা হয়। তারপর দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ একুশে ফেব্রুয়ারি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বানীসমূহ পাঠ করেন।

এসময় রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে বাঙালি জাতি বাংলা ভাষার মর্যাদা রক্ষায় অনবদ্য অবদানের জন্য জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করেন। তিনি ভাষা আন্দোলনে সকল শহীদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জ্ঞাপন এবং তাদের আত্মার শান্তি কামনা করেন।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু ১৯৭২ সালে বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন এবং ২৫ সেপ্টেম্বর ১৯৭৪ জাতিসংঘের ২৯তম সাধারণ অধিবেশনে বাংলায় বক্তৃতা দিয়ে প্রথমবারের মতো বাংলাভাষাকে বিশ্বদরবারে পরিচয় করিয়ে দেন। রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশকে একটি সোনার বাংলা হিসেবে গড়ে তোলা। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্ন বাস্তায়নের পথে দেশ অনেকদূর এগিয়ে গেছে বলে তিনি উল্লেখ করেন। 

পরে রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের বাইরে বিদেশের মাটিতে বাংলাদেশের ইতিহাস-সংস্কৃতি পালন ও চর্চা করার জন্য উপস্থিত সকলকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। একুশ উদযাপন অনুষ্ঠানে ইতালি আওয়ামী লীগ, বাংলাদেশ সমিতি, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, রোম মহানগর আওয়ামী লীগ, মহিলা আওয়ামী লীগ, সেচ্ছাসেবক লীগ, বৃহত্তর ফরিদপুর সমিতি, বরিশাল বিভাগ সমিতি, বৃহত্তর জালালাবাদ কল্যাণ সংঘ, বৃহত্তর কুমিল্লা সমিতি, বৃহত্তর চট্রগ্রাম সমিতি, অল ইউরোপ বাংলাদেশ প্রেসক্লাব, ইতালি বাংলা প্রেস ক্লাবসহ রোমের প্রায় শতাধিক সংগঠন অস্থায়ী শহীদ বেদীতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।