অবৈধদের বিরুদ্ধে আরও কঠোর হচ্ছে মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

  মালয়েশিয়া প্রতিনিধি ১০ জুন ২০১৯, ২১:৫৫ | অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তানশ্রি মুহিউদ্দিন ইয়াসিন
মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তানশ্রি মুহিউদ্দিন ইয়াসিন

মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে আরও কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

রোববার ইমিগ্রেশন বিভাগ স্থানীয় মালেয়শিয়ানদের উদ্দেশ্যে অবৈধদের ঠিকানা ও তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করার জন্য একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এতে বিভিন্ন আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলোর পাশাপাশি স্থানীয় জনগণকেও সচেতন হওয়ার জন্য তাগিদ দেয়া হয়েছে।

দেশটির সরকারি সংবাদ সংস্থা বার্নামা ও দি সান পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা গেছে।

এ বিবৃতিতে দেশটিতে থাকা অবৈধ ইমিগ্রান্টদের মাঝে শঙ্কা বিরাজ করছে।

মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সে দেশে থাকা অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে একটি সার্বিক শক্তি প্রয়োগের মাধ্যম তৈরি করেছে যা পূবের্র চেয়ে আরও বেশি শক্তিশালী এবং আগের পরিচালনা পদ্ধতির উন্নতি করার মাধ্যমে এগিয়ে যাচ্ছে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তানশ্রি মুহিউদ্দিন ইয়াসিন বলেন, এই পরিকল্পনাটি দেশের অবৈধ ইমিগ্রান্ট মোকাবেলা বা তাদের খুঁজে বের করার লক্ষ্যে এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও সংস্থাগুলোর কৌশলগত সহযোগিতা অন্তর্ভুক্ত করা হবে। এতে রাজ্য সরকার, স্থানীয় কর্তৃপক্ষ, গ্রাম কমিউনিটি ম্যানেজমেন্ট কাউন্সিল এবং গ্রাম উন্নয়ন ও নিরাপত্তা কমিটির ভূমিকাও অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

তিনি ৯ জুন এক বিবৃতিতে বলেন, এই পরিকল্পনার উদ্দেশ্য হচ্ছে অবৈধ অভিবাসীদের জন্য একটি অসহযোগিতামুলক বলয় বা পরিস্থিতি তৈরি করা যাতে এগুলো প্রয়োগকারী সংস্থা এবং নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষকে আরও বেশি শক্তিশালী ও কৌশলগত সহযোগিতা এবং স্থানীয় জনগণের সচেতনতা বাড়িয়ে তাদের স্বাভাবিক জীবনযাপন চালিয়ে যেতে পারে।

মন্ত্রী আরও বলেন, এই পরিকল্পনাটি ৫ বছরের জন্য ৫টি কৌশলে অগ্রসর হবে।

মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তানশ্রি মুহিউদ্দিন ইয়াসিন বলেন, মালয়েশিয়াতে অবৈধ অভিবাসী সমস্যা একটি জাতীয় সমস্যা যা এখনো সম্পূর্ণভাবে মোকাবেলা করা সম্ভব হয়নি। এটা স্থানীয়দের মধ্যে ব্যাপক উদ্বেগ সৃষ্টি করেছে যা শুধু জাতীয় ও সীমান্ত নিরাপত্তাকেই বিঘ্নিত করে না বরং দেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির উপর ব্যপক প্রভাব ফেলছে।

রেকর্ড অনুযায়ী, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত ইমিগ্রেশন বিভাগ ৭ হাজার ৯৪০টি অভিযান পরিচালনার মাধ্যমে ১ লাখ অবৈধ অভিবাসীকে আটক করে যাচাই-বাছাই করে ২৩ হাজার ২৯৫ জনকে আটক করা হয়। এর মধ্যে সর্বোচ্চ ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক ৮ হাজার ১১ জন (৩৪%), বাংলাদেশি নাগরিক ৫ হাজার ২৭ জন (২৩%) এবং মিয়ানমার, ফিলিপিন, থাইল্যান্ড, ভারত, এবং অন্যান্যদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

একই সঙ্গে গ্রেফতার করা হয়েছে ৬০৫ জন নিয়োগ দাতাকে। তাদের ইমিগ্রেশন অ্যাক্ট অনুযায়ী অবৈধ অভিবাসী রাখার দায়ে বিভিন্ন মেয়াদে দণ্ড দেয়া হয়েছে। এ ছাড়া একই সময়ের মধ্যে ২৬ হাজার ১১৬ জনকে দেশে ফেরত পাঠাতে সক্ষম হয়েছে মালয়েশিয়ার ইমিগ্রেশন বিভাগ।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×