মাল্টিকালচারাল অ্যাকাডেমির পর্তুগিজ ভাষা শিক্ষা সনদ বিতরণ

  মো. রাসেল আহম্মেদ, পর্তুগাল থেকে ০৯ জুলাই ২০১৯, ১৩:৫৫ | অনলাইন সংস্করণ

সনদ

লিসবনে বাংলাদেশিদের উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত পর্তুগাল মাল্টিকালচারাল অ্যাকাডেমির দ্বিতীয় ও তৃতীয় ব্যাচের পর্তুগিজ ভাষা শিক্ষা সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে স্থানীয় সময় সোমবার বিকেলে বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকায় একাডেমির নিজস্ব ক্যম্পাসে এক মনোমুগ্ধকর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় দ্বিতীয় ও তৃতীয় ব্যাচের সাবেক শিক্ষার্থীদের তত্বাবধানে।

একাডেমির সাধারণ সম্পাদক মো. রাসেল আহম্মেদের সঞ্চালনায় এবং মো. সম্রাটের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ দূতাবাস লিসবন পর্তুগালের প্রথম সচিব হাসান আবদুল্লাহ তহিদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন কমিউনিটির প্রবীণ ব্যক্তিত্ব ও লিসবন সান্তা মারিয়া মায়রের কাউন্সিলর রানা তসলিম উদ্দিন, লেহাজ উদ্দিন, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব জহিরুল আলম জসিম, আবুল বাশার বাদশাহ এবং আবুল কালাম আজাদ। বৃহত্তর নোয়াখালী অ্যাসোসিয়েশন অব পর্তুগালের সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর আলম, ব্যবসায়ী শাহীন সায়ীদ।

আরো উপস্থিত ছিলেন পর্তুগালের ইমিগ্রেশন হাই কমিশনে কর্মরত একমাত্র বাংলাদেশি মঈন উদ্দিন আহমেদ, তরুণ উদ্যোক্তা জিয়াউল ইসলাম নিপু এবং অ্যাকাডেমির পর্তুগিজ শিক্ষিকা সুফিয়া, রোসা ও পাওলা। সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সাবেক শিক্ষার্থী মো. রানা সরকার, তানভীর জনি ও মহসিন।

বক্তারা একাডেমির সার্বিক কার্যক্রমকে স্বাগত জানান এবং পর্তুগিজ ভাষা শিক্ষার গুরুত্ব তুলে ধরেন। সারাবিশ্বের প্রায় দুইশত মিলিয়ন মানুষ পর্তুগিজ ভাষায় কথা বলে তাই এ ভাষার গুরুত্ব অপরিসীম। তাছাড়া স্থানীয় পর্যায়ে ভাল কাজ ও সুযোগ সুবিধা পেতে হলে এ ভাষা জানা জরুরি। শুধুমাত্র নাগরিকত্ব গ্রহনের জন্য এ ভাষা না শিখে এটিকে ক্যারিয়ার গঠনে কাজে লাগাতে পরামর্শ দেন বক্তারা।

বাংলাদেশিদের উদ্যোগে ও তত্ত্বাবধানে এবং সরাসরি কমিউনিটির মানুষের হাত থেকে পর্তুগিজ ভাষা শিক্ষার সনদ গ্রহন করতে পেরে বাংলাদেশি হিসেবে শিক্ষার্থীরা গর্ববোধ করেন এবং সামনের দিনে আরো অধিক পরিমানে এমন উদ্যোগ নেয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

বিশেষ অতিথি তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন সল্প সময়ের ব্যবধানে বাংলাদেশে পর্তুগিজ ভাষা শিক্ষার কার্যক্রম শুরু হবে। ফলে পর্তুগালে শিক্ষার্থী ভিসায় বা কাজের ভিসায় আসতে যারা ইচ্ছুক, সরাসরি বাংলাদেশ থেকে এ ভাষা আয়ত্ত করে এখানে আসতে পারবে।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×