কানাডা ম্যানিটোবার প্রভিন্সিয়াল নির্বাচনে লড়ছেন বাংলাদেশি নারী

  মোহাম্মদ সাকিবুর রহমান খান, কানাডা থেকে ১৭ জুলাই ২০১৯, ১৫:১৪ | অনলাইন সংস্করণ

নারী

কানাডার ম্যানিটোবা প্রভিন্সের প্রভিন্সিয়াল গভর্নমেন্টের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে ১০ সেপ্টেম্বর। এ নির্বাচনে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে নির্বাচন করছেন দুর্দানা ইসলাম। তিনি প্রভিন্সের বর্তমান বিরোধী দলে থাকা নিউ ডেমোক্রেটিক পার্টির প্রার্থী। কানাডায় দুই কক্ষ বিশিষ্ট সরকার ব্যাবস্থা চালু আছে।

একটি ফেডারেল গভর্নমেন্ট এবং অন্যটি প্রভিন্সিয়াল গভর্নমেন্ট। ১০ টি প্রভিন্সের মাঝে ম্যানিটোবা একটি। ৬৪৭৭৯৭ বর্গ কিলোমিটারের ম্যানিটোবাতে ৫৭ টি প্রভিন্সিয়াল সংসদীয় আসন রয়েছে। এ আসনগুলির মাঝে দুর্দানা ইসলাম ‘সেইন রিভার’ আসন থেকে নিউ ডেমোক্রেটিক পার্টির পক্ষে নমিনেশন পেয়েছেন।

এ আসনে মোট জনসংখ্যা প্রায় ২০ হাজার। কানাডার প্রাপ্ত বয়স্ক নাগরিকদের সরাসরি ভোট এম এল এ নির্বাচন হয়। এ আসনটি প্রভিন্সের রাজধানী উইনিপেগ শহরে হওয়ার কারণে এটির গুরুত্ব বেশি। ১৮৭০ সালে ম্যানিটোবা প্রভিন্সিয়াল সরকার চালু হওয়ার পর এই প্রথম কোন বাংলাদেশি নির্বাচনে লড়ছেন।

দুর্দানা ইসলাম নমিনেশন পাবার সঙ্গে সঙ্গে এখানকার বাংলাদেশিদের মাঝে আনন্দের বন্যা নেমে আসে। যারা তার এলাকার ভোটার তারা আশা প্রকাশ করছেন তিনি ১০ সেপ্টেম্বরের নির্বাচনে জয়লাভ করবেন। তিনি ইতিমধ্যে তার নির্বাচনী প্রচার শুরু করেছেন। তিনি জানিয়েছেন ম্যানিটোবা প্রভিন্সের বর্তমান সরকার স্বাস্থ্য খাতে অনেক বাজেট কমিয়েছে। তিনি আশা করেন তার দল ক্ষমতায় এলে স্বাস্থ্য খাতে আরও বাজেট বরাদ্দ করবেন এবং শিক্ষাখাতে ব্যাপক উন্নয়ন আনবেন। তার পাশাপাশি তিনি পরিবেশ নিয়ে কাজ করবেন বিশেষ করে গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের ব্যাপারটি তিনি এবং তার দল বিশেষ গুরুত্ব দেবেন।

দুর্দানা বাংলাদেশের চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন ১৯৭৮ সালে। তিনি কানাডার ইউনিভার্সিটি অব ম্যানিটোবা থেকে পিএইচডি ডিগ্রী লাভ করেন। বর্তমানে তিনি উইনিপেগ ইউনিভার্সিটিতে শিক্ষকতা পেশার পাশাপাশি পরিবেশ নিয়ে কাজ করছেন। তিনি দুই সন্তানের জননী।

তার পিতা বাংলাদেশের একুশে পদকপ্রাপ্ত আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন বংশিবাদক ওস্তাদ আজিজুল ইসলাম। তার মা ডাক্তার আন্জুমানারা বেগম একজন শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ। তারা স্থায়ী ভাবে চট্টগ্রামে বসবাস করছেন।

বাংলাদেশে বড় হওয়া দুর্দানা ইসলাম জানিয়েছেন, তিনি নির্বাচিত হলে ম্যানিটোবা প্রভিন্সের সঙ্গে বাংলাদেশের ব্যাবসায়ী সঙ্গে একটি সংযোগ ঘটিয়ে দিবেন। তিনি জানান ম্যানিটোবার গম এবং ক্যানুলা তেল বাংলাদেশে রফতানি করা সম্ভব অন্য দিকে কানাডাতে বাংলাদেশের পোষাক শিল্পের একটি বড় বাজার রয়েছে। তিনি আরও জানান আমি পার্লামেন্টে যেতে পারলে বাংলাদেশের পোষাক শিল্পের বাজার আরও প্রসারে সহযোগী ভূমিকা পালন করবেন। এর ফলে কানাডা এবং বাংলাদেশের অর্থনীতি আরও সমৃদ্ধ হবে।

উল্লেখ্য, এর আগে শুধুমাত্র কানাডার অন্টারিও প্রভিন্স থেকে ডলি বেগম গত বছর প্রথম বাংলাদেশি বংশোদভূত নাগরিক হিসেবে এমএলএ নির্বাচিত হয়েছেন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×