শিল্পপতি নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের শোক
jugantor
শিল্পপতি নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের শোক

  কবির আল মাহমুদ, স্পেন থেকে  

১৪ জুলাই ২০২০, ২০:২৮:৫৭  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্পগ্রুপ যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন স্পেনে গণমাধ্যমের প্রতিনিধিত্বশীল সংগঠন স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের নেতারা।

পৃথক বিবৃতি ও শোকবার্তায় স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাহাদুল সুহেদ ও সাধারণ সম্পাদক আফাজ জনি গভীর দুঃখ ও শোক প্রকাশ করেছেন।

শোকবার্তায় তারা বলেন, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম ছিলেন একজন সফল মানুষ। তিনি যমুনা গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করে এশিয়ার সবচেয়ে বড় শপিংমল যমুনা ফিউচার পার্ক, নির্মাণাধীন মেরিয়টস হোটেলসহ বস্ত্র, ওভেন গার্মেন্টস, রাসায়নিক, চামড়া, মোটরসাইকেল, বেভারেজ টয়লেট্রিজ, আবাসন নির্মাণ এবং ইলেকট্রনিকস সামগ্রীসহ বিভিন্ন খাতে ব্যবসা সম্প্রসারিত করে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ব্যাপক অবদান রেখেছেন।

একই সঙ্গে দৈনিক যুগান্তর ও যমুনা টেলিভিশনের মতো পাঠক-দর্শক নন্দিত গণমাধ্যম পরিচালনা করেছেন। নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে, তা সহসা পূরণ হওয়ার নয়। তার মৃত্যুতে জাতি একজন সফল শিল্প উদ্যোক্তাকে হারাল।

এ ছাড়া পৃথক পৃথক শোকবার্তায় শোক প্রকাশ করেছেন সংগঠনের সিনিয়র সহসভাপতি বনি হায়দার মান্না, সাংগঠনিক সম্পাদক লোকমান হোসেন, কোষাধ্যক্ষ ফয়জুল হক রানা, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শিপলু নিয়াজী, সাহিত্য সম্পাদক জামিলা করিম, মহিলা সম্পাদক তারিনা জামান খান কাকন, প্রচার সম্পাদক লায়েবুর রহমান, কার্যকরী সদস্য মিরন নাজমুল, তুতিউর রহমান, কবির আল মাহমুদ, সাইফুল আমিন, মোশতাক আলী, ছালাহ উদ্দিন, সালেহ আহমদ সোহাগ, জান্নাতুল ফেরদৌস নিগার।

বিবৃতিতে তারা বলেন, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের মৃত্যু শুধু তার পরিবার নয়, পুরো জাতির জন্য বড় ক্ষতি। দেশ ও দশের জন্য তার অবদান মানুষ কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ রাখবে।

শোকবার্তায় সবাই মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন ও শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

শিল্পপতি নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের শোক

 কবির আল মাহমুদ, স্পেন থেকে 
১৪ জুলাই ২০২০, ০৮:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দেশের অন্যতম বৃহৎ শিল্পগ্রুপ যমুনা গ্রুপের চেয়ারম্যান ও বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন স্পেনে গণমাধ্যমের প্রতিনিধিত্বশীল সংগঠন স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের নেতারা।

পৃথক বিবৃতি ও শোকবার্তায় স্পেন বাংলা প্রেসক্লাবের সভাপতি সাহাদুল সুহেদ ও সাধারণ সম্পাদক আফাজ জনি গভীর দুঃখ ও শোক প্রকাশ করেছেন।

শোকবার্তায় তারা বলেন, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম ছিলেন একজন সফল মানুষ। তিনি যমুনা গ্রুপ প্রতিষ্ঠা করে এশিয়ার সবচেয়ে বড় শপিংমল যমুনা ফিউচার পার্ক, নির্মাণাধীন মেরিয়টস হোটেলসহ বস্ত্র, ওভেন গার্মেন্টস, রাসায়নিক, চামড়া, মোটরসাইকেল, বেভারেজ টয়লেট্রিজ, আবাসন নির্মাণ এবং ইলেকট্রনিকস সামগ্রীসহ বিভিন্ন খাতে ব্যবসা সম্প্রসারিত করে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ব্যাপক অবদান রেখেছেন।

একই সঙ্গে দৈনিক যুগান্তর ও যমুনা টেলিভিশনের মতো পাঠক-দর্শক নন্দিত গণমাধ্যম পরিচালনা করেছেন। নুরুল ইসলামের মৃত্যুতে যে শূন্যতা সৃষ্টি হয়েছে, তা সহসা পূরণ হওয়ার নয়। তার মৃত্যুতে জাতি একজন সফল শিল্প উদ্যোক্তাকে হারাল।

এ ছাড়া পৃথক পৃথক শোকবার্তায় শোক প্রকাশ করেছেন সংগঠনের সিনিয়র সহসভাপতি বনি হায়দার মান্না, সাংগঠনিক সম্পাদক লোকমান হোসেন, কোষাধ্যক্ষ ফয়জুল হক রানা, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক শিপলু নিয়াজী, সাহিত্য সম্পাদক জামিলা করিম, মহিলা সম্পাদক তারিনা জামান খান কাকন, প্রচার সম্পাদক লায়েবুর রহমান, কার্যকরী সদস্য মিরন নাজমুল, তুতিউর রহমান, কবির আল মাহমুদ, সাইফুল আমিন, মোশতাক আলী, ছালাহ উদ্দিন, সালেহ আহমদ সোহাগ, জান্নাতুল ফেরদৌস নিগার।

বিবৃতিতে তারা বলেন, মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলামের মৃত্যু শুধু তার পরিবার নয়, পুরো জাতির জন্য বড় ক্ষতি। দেশ ও দশের জন্য তার অবদান মানুষ কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ রাখবে।

শোকবার্তায় সবাই মরহুমের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন ও শোকাহত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]