কানাডার ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ডস পেলেন সাদিয়া রহমান স্বাতী
jugantor
কানাডার ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ডস পেলেন সাদিয়া রহমান স্বাতী

  অনলাইন ডেস্ক  

০৭ আগস্ট ২০২০, ২২:২৮:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

কানাডার সাসকাচুয়ান প্রভিন্সের স্থায়ী বাসিন্দা সাদিয়া রহমান স্বাতী সম্প্রতি ইমিগ্রেশন অ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট টিমের পক্ষ থেকে Canada’s Volunteer Awards 2019 (CVAs) পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছেন।

প্রতিবছর কানাডার পাঁচটি অঞ্চল থেকে একজন করে চারটি ক্যাটাগরিতে রিজিওনাল অ্যাওয়ার্ডের জন্যে মনোনীত হন। রিজিওনাল অ্যাওয়ার্ডের ক্যাটাগরিগুলো হল- কমিউনিটি লিডার, ইমার্জিং লিডার, বিজনেস লিডার এবং সোশ্যাল ইনোভেটর। সাদিয়া রহমান কানাডার প্রেইরি প্রভিন্স রিজিয়ন (অ্যালবার্টা, সাসকাচুয়ান এবং ম্যানিটোবা) থেকে 'কমিউনিটি লিডার' ক্যাটাগরিতে সম্মানজনক এই পুরষ্কারটি পেয়েছেন।

'ইমিগ্রেশন অ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট' প্ল্যাটফর্মের জন্মলগ্ন থেকে সাথে থাকা সাদিয়া তার ভলান্টিয়ার কাজগুলোর মাধ্যমে শুধু যে কানাডার ইমিগ্রেশনের ব্যাপারেই মানুষকে তথ্যগত সাহায্য করেছেন তা-ই নয়, বরং নিউ ইমিগ্র্যান্টদের সেটেলমেন্ট নিয়েও তার দিকনির্দেশনা নতুনদের জন্যে পথ প্রদর্শক হিসেবে কাজ করেছে।

ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার আলোকে সাদিয়া নিজে এবং অন্যান্য স্বেচ্ছাসেবীদের সহযোগিতায় বাংলা ভাষাভাষী মানুষের জন্যে শ্রম, মেধা এবং সময় দিয়ে চলেছেন দিনের পর দিন। তার মতোই যারা তাদের প্রফেশনাল লাইফে দক্ষ এবং কানাডাতে ইমিগ্রেশনের চেষ্টা করছেন বা সফল হয়েছেন, তাদেরকেও উদ্বুদ্ধ করেছেন যেন তারা নিজেদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার আলোকে অন্যদেরকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন।

কানাডার Minister of Families, Children, and Social Development The Honourable Ahmed Hussen এই পুরষ্কারের জন্যে মনোনীত চূড়ান্ত প্রার্থীদের নাম সম্প্রতি ঘোষণা করেছেন।

COVID-19 পরিস্থিতির কারণে এ বছর কানাডার ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড সিরিমনিটি স্থগিত করা হয়েছে। আগামী বছর স্প্রিং টাইমে সাদিয়া রহমান কানাডার রাজধানী অটোয়াতে যাবেন 'ইমিগ্রেশন অ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট' টিমের পক্ষ থেকে এই অ্যাওয়ার্ডটি গ্রহণ করতে।

সাদিয়া বর্তমানে কানাডার সাসকাচুয়ান প্রভিন্সের রেজিনা সিটিতে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন এবং রয়্যাল ব্যাংক অব কানাডাতে ব্যাংকিং অ্যাডভাইজর হিসেবে কর্মরত আছেন।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

কানাডার ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ডস পেলেন সাদিয়া রহমান স্বাতী

 অনলাইন ডেস্ক 
০৭ আগস্ট ২০২০, ১০:২৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

কানাডার সাসকাচুয়ান প্রভিন্সের স্থায়ী বাসিন্দা সাদিয়া রহমান স্বাতী সম্প্রতি ইমিগ্রেশন অ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট টিমের পক্ষ থেকে Canada’s Volunteer Awards 2019 (CVAs) পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছেন।

প্রতিবছর কানাডার পাঁচটি অঞ্চল থেকে একজন করে চারটি ক্যাটাগরিতে রিজিওনাল অ্যাওয়ার্ডের জন্যে মনোনীত হন। রিজিওনাল অ্যাওয়ার্ডের ক্যাটাগরিগুলো হল- কমিউনিটি লিডার, ইমার্জিং লিডার, বিজনেস লিডার এবং সোশ্যাল ইনোভেটর। সাদিয়া রহমান কানাডার প্রেইরি প্রভিন্স রিজিয়ন (অ্যালবার্টা, সাসকাচুয়ান এবং ম্যানিটোবা) থেকে 'কমিউনিটি লিডার' ক্যাটাগরিতে সম্মানজনক এই পুরষ্কারটি পেয়েছেন।

'ইমিগ্রেশন অ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট' প্ল্যাটফর্মের জন্মলগ্ন থেকে সাথে থাকা সাদিয়া তার ভলান্টিয়ার কাজগুলোর মাধ্যমে শুধু যে কানাডার ইমিগ্রেশনের ব্যাপারেই মানুষকে তথ্যগত সাহায্য করেছেন তা-ই নয়, বরং নিউ ইমিগ্র্যান্টদের সেটেলমেন্ট নিয়েও তার দিকনির্দেশনা নতুনদের জন্যে পথ প্রদর্শক হিসেবে কাজ করেছে।

ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার আলোকে সাদিয়া নিজে এবং অন্যান্য স্বেচ্ছাসেবীদের সহযোগিতায় বাংলা ভাষাভাষী মানুষের জন্যে শ্রম, মেধা এবং সময় দিয়ে চলেছেন দিনের পর দিন। তার মতোই যারা তাদের প্রফেশনাল লাইফে দক্ষ এবং কানাডাতে ইমিগ্রেশনের চেষ্টা করছেন বা সফল হয়েছেন, তাদেরকেও উদ্বুদ্ধ করেছেন যেন তারা নিজেদের ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতার আলোকে অন্যদেরকে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন।

কানাডার Minister of Families, Children, and Social Development The Honourable Ahmed Hussen এই পুরষ্কারের জন্যে মনোনীত চূড়ান্ত প্রার্থীদের নাম সম্প্রতি ঘোষণা করেছেন।

COVID-19 পরিস্থিতির কারণে এ বছর কানাডার ন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড সিরিমনিটি স্থগিত করা হয়েছে। আগামী বছর স্প্রিং টাইমে সাদিয়া রহমান কানাডার রাজধানী অটোয়াতে যাবেন 'ইমিগ্রেশন অ্যাণ্ড সেটেলমেন্ট' টিমের পক্ষ থেকে এই অ্যাওয়ার্ডটি গ্রহণ করতে।

সাদিয়া বর্তমানে কানাডার সাসকাচুয়ান প্রভিন্সের রেজিনা সিটিতে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন এবং রয়্যাল ব্যাংক অব কানাডাতে ব্যাংকিং অ্যাডভাইজর হিসেবে কর্মরত আছেন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]