অ্যাটর্নি জেনারেলের মৃত্যুতে কানাডা প্রবাসী বাঙালিদের শোক
jugantor
অ্যাটর্নি জেনারেলের মৃত্যুতে কানাডা প্রবাসী বাঙালিদের শোক

  রাজীব আহসান, কানাডা থেকে  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:২৭:৪৭  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশের প্রধান আইন কর্মকর্তা (অ্যাটর্নি জেনারেল) মাহবুবে আলমের মৃত্যুর খবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে কানাডা প্রবাসী বাঙালিদের মাঝেও শোকের ছায়া নেমে আসে।

তাৎক্ষণিকভাবে এক ভার্চুয়াল আলোচনার মাধ্যমে মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন ক্যালগেরির প্রবাসী বাঙালিরা।

আলবার্টার প্রথম অনলাইন পোর্টাল প্রবাস বাংলা ভয়েসের প্রধান সম্পাদক আহসান রাজীব বুলবুলের সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ-কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সভাপতি মো. রশিদ রিপন, সহসভাপতি প্রকৌশলী মো. কাদির, প্রকৌশলী ও ব্যবসায়ী আবদুল্লাহ রফিক, এবিএম কলেজের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আবদুল বাতেন, আলবার্টা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর সেলিম, সিলেট অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কিরণ বণিক শংকর এবং উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মাহমুদ হাসান দিপু।

আলোচনার শুরুতেই মরহুমের আত্মার শান্তি কামনা করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। আলোচনায় বক্তারা শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করে বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ছিলেন আইনজীবী হিসেবে সর্বজন শ্রদ্ধেয়। অত্যন্ত সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে তিনি তার দায়িত্ব পালন করে গেছেন।

তিনি অত্যন্ত গুণী, নির্লোভ ও নির্মোহ ব্যক্তি ছিলেন। দেশে আইনের শাসন এবং ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় তার অবদান অনস্বীকার্য। নিজ কর্মগুণে তিনি দেশের মানুষের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। তার মৃত্যুতে আইন অঙ্গনে এক বিশাল শূন্যতা সৃষ্টি হলো।

বাংলাদেশ-কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সভাপতি মো. রশিদ রিপন বলেন, মাহবুবে আলম প্রথিতযশা আইনজীবী হিসেবে অনেক গুরুত্বপূর্ণ মামলা দক্ষতার সঙ্গে পালন করেছেন। মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

বাংলাদেশ-কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সহসভাপতি মোহাম্মদ কাদির বলেন, মাহবুবে আলম অত্যন্ত সৎ, নম্র ও ভদ্র প্রকৃতির ছিলেন। আইনজীবী হিসেবে তার ছিল এক বর্ণাঢ্য জীবন। জাতি এক সুযোগ্য সন্তানকে হারাল। এই শূন্যতা পূরণ হওয়ার নয়। শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও ক্যালগেরির এবিএম কলেজের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আবদুল বাতেন বলেন, বৈশ্বিক মহামারীর এই সময়ে তার মৃত্যু এক অপূরণীয় ক্ষতি। আইনজীবী হিসেবে তিনি ছিলেন অত্যন্ত দক্ষ, সৎ ও নির্ভীক। তার আত্মার শান্তি কামনা করছি।

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ রফিক বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যু জাতির জন্য অপূরণীয় ক্ষতি l দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে তার অবদান জাতি মনে রাখবেl বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারকার্য সম্পূর্ণ করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছেন।

আলবার্টা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর সেলিম বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে দীর্ঘতম সময়ের সফল অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের জীবনাবসানে সমগ্র জাতির সঙ্গে আমরাও গভীরভাবে শোকাহত।

সিলেট অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত বলেন, তার দীর্ঘ কর্মময় জীবনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ মামলা পরিচালনা করে তিনি বাংলাদেশ তথা সমগ্র বিশ্ববাসীর কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কিরণ বণিক শংকর বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে দীর্ঘতম মেয়াদের অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে আমরা খুবই শোকাহত।

উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান দীপু বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘ সময়ের অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম তার কর্তব্য পালনে ছিলেন অত্যন্ত দৃঢ়চিত্ত ও দ্বিধাহীন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

অ্যাটর্নি জেনারেলের মৃত্যুতে কানাডা প্রবাসী বাঙালিদের শোক

 রাজীব আহসান, কানাডা থেকে 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:২৭ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশের প্রধান আইন কর্মকর্তা (অ্যাটর্নি জেনারেল) মাহবুবে আলমের মৃত্যুর খবর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ার সঙ্গে সঙ্গে কানাডা প্রবাসী বাঙালিদের মাঝেও শোকের ছায়া নেমে আসে।

তাৎক্ষণিকভাবে এক ভার্চুয়াল আলোচনার মাধ্যমে মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন ক্যালগেরির প্রবাসী বাঙালিরা।

আলবার্টার প্রথম অনলাইন পোর্টাল প্রবাস বাংলা ভয়েসের প্রধান সম্পাদক আহসান রাজীব বুলবুলের সঞ্চালনায় ভার্চুয়াল আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ-কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সভাপতি মো. রশিদ রিপন, সহসভাপতি প্রকৌশলী মো. কাদির, প্রকৌশলী ও ব্যবসায়ী আবদুল্লাহ রফিক, এবিএম কলেজের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আবদুল বাতেন, আলবার্টা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর সেলিম, সিলেট অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কিরণ বণিক শংকর এবং উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মাহমুদ হাসান দিপু।

আলোচনার শুরুতেই মরহুমের আত্মার শান্তি কামনা করে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। আলোচনায় বক্তারা শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করে বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ছিলেন আইনজীবী হিসেবে সর্বজন শ্রদ্ধেয়। অত্যন্ত সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে তিনি তার দায়িত্ব পালন করে গেছেন।

তিনি অত্যন্ত গুণী, নির্লোভ ও নির্মোহ ব্যক্তি ছিলেন। দেশে আইনের শাসন এবং ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় তার অবদান অনস্বীকার্য। নিজ কর্মগুণে তিনি দেশের মানুষের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। তার মৃত্যুতে আইন অঙ্গনে এক বিশাল শূন্যতা সৃষ্টি হলো।

বাংলাদেশ-কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সভাপতি মো. রশিদ রিপন বলেন, মাহবুবে আলম প্রথিতযশা আইনজীবী হিসেবে অনেক গুরুত্বপূর্ণ মামলা দক্ষতার সঙ্গে পালন করেছেন। মরহুমের শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

বাংলাদেশ-কানাডা অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির সহসভাপতি মোহাম্মদ কাদির বলেন, মাহবুবে আলম অত্যন্ত সৎ, নম্র ও ভদ্র প্রকৃতির ছিলেন। আইনজীবী হিসেবে তার ছিল এক বর্ণাঢ্য জীবন। জাতি এক সুযোগ্য সন্তানকে হারাল। এই শূন্যতা পূরণ হওয়ার নয়। শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও ক্যালগেরির এবিএম কলেজের প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ আবদুল বাতেন বলেন, বৈশ্বিক মহামারীর এই সময়ে তার মৃত্যু এক অপূরণীয় ক্ষতি। আইনজীবী হিসেবে তিনি ছিলেন অত্যন্ত দক্ষ, সৎ ও নির্ভীক। তার আত্মার শান্তি কামনা করছি।

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ রফিক বলেন, অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যু জাতির জন্য অপূরণীয় ক্ষতি l দেশে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে তার অবদান জাতি মনে রাখবেl বিশেষ করে বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারকার্য সম্পূর্ণ করে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করেছেন।

আলবার্টা আওয়ামী লীগের সভাপতি জাফর সেলিম বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে দীর্ঘতম সময়ের সফল অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের জীবনাবসানে সমগ্র জাতির সঙ্গে আমরাও গভীরভাবে শোকাহত।

সিলেট অ্যাসোসিয়েশন অব ক্যালগেরির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি রূপক দত্ত বলেন, তার দীর্ঘ কর্মময় জীবনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ মামলা পরিচালনা করে তিনি বাংলাদেশ তথা সমগ্র বিশ্ববাসীর কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী কিরণ বণিক শংকর বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে দীর্ঘতম মেয়াদের অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে আমরা খুবই শোকাহত।

উন্নয়ন গবেষক ও সমাজতাত্ত্বিক বিশ্লেষক মো. মাহমুদ হাসান দীপু বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘ সময়ের অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম তার কর্তব্য পালনে ছিলেন অত্যন্ত দৃঢ়চিত্ত ও দ্বিধাহীন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন [email protected] এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]