করোনা: পর্তুগালে ২০২১ সালের প্রথম স্বস্তিদায়ক দিন
jugantor
করোনা: পর্তুগালে ২০২১ সালের প্রথম স্বস্তিদায়ক দিন

  ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী, পর্তুগাল  থেকে  

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ২২:৫৬:৪১  |  অনলাইন সংস্করণ

নতুন বছর ২০২১ সাল করোনা মহামারি পর্তুগালের জন্য খুব ভয়ঙ্কর একটা পরিস্থিতি তৈরি করেছিল।

ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহ থেকেই সংক্রমণ আশঙ্কাজনক হারে বাড়তে থাকে এবং জানুয়ারির মাঝামাঝিতে একদিনে সংক্রমণের সংখ্যা ১০ হাজারের ওপরে উঠতে থাকে। মাসের শেষ সপ্তাহের প্রথম দিকে একদিনে সংক্রমণ ১৬ হাজার অতিক্রম করে; যা প্রথম ধাপের আঘাতে এক মাসের সংক্রমণের সমতুল্য। মৃত্যুর সংখ্যা প্রতিদিন দুই শতাধিক অতিক্রম করতে থাকে।

করোনা মহামারির কারণে পর্তুগিজ সরকার কঠোর জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে। নিতান্তই জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কারো ঘর থেকে বের হওয়ার উপক্রম নেই। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কঠোর অবস্থানে আছেন, প্রয়োজনে ঘোরাফেরা করতে গিয়ে অনেকেই জরিমানার সম্মুখীন হয়েছেন। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে স্পেনের সঙ্গে নৌ এবং স্থল সীমান্ত যোগাযোগ। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া এখানে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিক এবং স্থানীয় নাগরিকদের বাইরে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। বন্ধ রয়েছে যুক্তরাজ্য এবং ব্রাজিলের মধ্যে বিমান যোগাযোগ। এক্ষেত্রে অবশ্য বাংলাদেশে যেতে এবং ফিরতে পারছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

তবে সেই ভয়াবহ পরিস্থিতি পর্তুগাল সরকারের তড়িৎ গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের কারণে লাঘব করা সম্ভব হয়েছে কেননা প্রথমবারের মত ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ সালের সর্বনিম্ন করোনা সংক্রমণ রেকর্ড করা হয়েছে ৫৪৯ জন এবং মৃত্যু ৬১ জন; যা গত ২০২০ সালের অক্টোবর পর সর্বনিম্ন সংক্রমণের সংখ্যা। পর্তুগালে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে সর্বমোট আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৭ লাখ ৯৮ হাজার ৭৪ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১৬ হাজার ২৩ জন। তবে ৭ লাখ ১ হাজার ৪০৯ জন রোগমুক্ত হয়েছেন; বর্তমানে ৮০ হাজার ৬৪২ জন আক্রান্ত অবস্থায় আছেন।

পর্তুগালের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, হাসপাতালে রোগীদের চাপ ধীরে ধীরে কমছে তবে কিছুটা সময় লাগবে। অস্থায়ী যেসব হাসপাতাল ছিল তা খালি করা হয়েছে। বর্তমানে আইসিইউতে রোগী আছেন ৬২৭ জন, যা গতকালের থেকে ১১ জন কম।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

করোনা: পর্তুগালে ২০২১ সালের প্রথম স্বস্তিদায়ক দিন

 ফরিদ আহমেদ পাটোয়ারী, পর্তুগাল  থেকে 
২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:৫৬ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

নতুন বছর ২০২১ সাল করোনা মহামারি পর্তুগালের জন্য খুব ভয়ঙ্কর একটা পরিস্থিতি তৈরি করেছিল।

ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহ থেকেই সংক্রমণ আশঙ্কাজনক হারে বাড়তে থাকে এবং জানুয়ারির মাঝামাঝিতে একদিনে সংক্রমণের সংখ্যা ১০ হাজারের ওপরে উঠতে থাকে। মাসের শেষ সপ্তাহের প্রথম দিকে একদিনে সংক্রমণ ১৬ হাজার  অতিক্রম করে; যা প্রথম ধাপের আঘাতে এক মাসের সংক্রমণের সমতুল্য। মৃত্যুর সংখ্যা প্রতিদিন দুই শতাধিক অতিক্রম করতে থাকে।

করোনা মহামারির কারণে পর্তুগিজ সরকার কঠোর জরুরি অবস্থা ঘোষণা করে। নিতান্তই জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কারো ঘর থেকে বের হওয়ার উপক্রম নেই।  আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কঠোর অবস্থানে আছেন, প্রয়োজনে ঘোরাফেরা করতে গিয়ে অনেকেই জরিমানার সম্মুখীন হয়েছেন। বন্ধ করে দেয়া হয়েছে স্পেনের সঙ্গে নৌ এবং স্থল সীমান্ত যোগাযোগ। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া এখানে বসবাসকারী বিদেশি নাগরিক এবং স্থানীয় নাগরিকদের বাইরে কাউকে প্রবেশ করতে দেয়া হচ্ছে না। বন্ধ রয়েছে যুক্তরাজ্য এবং ব্রাজিলের মধ্যে বিমান যোগাযোগ। এক্ষেত্রে অবশ্য বাংলাদেশে যেতে এবং ফিরতে পারছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

তবে সেই ভয়াবহ পরিস্থিতি পর্তুগাল সরকারের তড়িৎ গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্তের কারণে লাঘব করা সম্ভব হয়েছে কেননা প্রথমবারের মত ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ সালের সর্বনিম্ন করোনা সংক্রমণ রেকর্ড করা হয়েছে ৫৪৯ জন এবং মৃত্যু ৬১ জন; যা গত ২০২০ সালের  অক্টোবর পর সর্বনিম্ন সংক্রমণের সংখ্যা। পর্তুগালে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে সর্বমোট আক্রান্ত হয়েছেন প্রায় ৭ লাখ ৯৮ হাজার ৭৪ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১৬ হাজার ২৩ জন। তবে ৭ লাখ ১ হাজার ৪০৯ জন রোগমুক্ত হয়েছেন; বর্তমানে ৮০ হাজার ৬৪২ জন আক্রান্ত অবস্থায় আছেন।

পর্তুগালের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, হাসপাতালে রোগীদের চাপ ধীরে ধীরে কমছে তবে কিছুটা সময় লাগবে। অস্থায়ী যেসব হাসপাতাল ছিল তা খালি করা হয়েছে। বর্তমানে আইসিইউতে রোগী আছেন ৬২৭ জন, যা গতকালের থেকে ১১ জন কম।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]