যুক্তরাষ্ট্রে সংক্রমণ ঠেকাতে ইফতার পার্টি থেকে বিরত থাকার পরামর্শ
jugantor
যুক্তরাষ্ট্রে সংক্রমণ ঠেকাতে ইফতার পার্টি থেকে বিরত থাকার পরামর্শ

  কৌশলী ইমা, নিউইয়র্ক থেকে  

১৫ এপ্রিল ২০২১, ২২:৫৮:১৭  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রে মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) থেকে শুরু হয়েছে পবিত্র মাহে রমজান। করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যেই পালন হচ্ছে পবিত্র রমজান। এ উপলক্ষে গত সোমবার রাতে প্রথম তারাবির নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। পরদিন সন্ধ্যায় প্রথম ইফতারে অংশ নেন যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকার প্রবাসী মুসলমানরা। তবে ইফতার পার্টি না ডেকে, খাবারের প্যাকেটের ব্যবস্থা করলে সংক্রমণের আশঙ্কা ততটা নেই বলে জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

মাসটিতে প্রাণঘাতী এ ভাইরাস থেকে নিজেকে রক্ষা করতে নতুন কিছু স্বাস্থ্যবিধিও মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। আর সেসব স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজেদের সাবধানতা অবলম্বনে এবার ঘরোয়া পরিবেশে বাসা-বাড়িতেই ইফতার করছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা।
এদিকে করোনা মোকাবিলায় এরই মধ্যে সৌদি আরবসহ বেশ কয়েকটি দেশ নির্দেশনা জারি করেছে। ডব্লিউএইচও বলছে, এ মাসে ধর্মীয় বা সামাজিক কোনো ধরনের জমায়েত করা ঠিক হবে না। তার বদলে সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে ভার্চুয়াল জমায়েত করুন। কথা চলুক ফোনে, দেখা হোক ভিডিও কলে। ধর্মীয় জমায়েত হোক টেলিভিশনের সামনে নিজ নিজ বাড়িতে, অথবা রেডিওতে ধর্মীয় বক্তব্য শুনে শেষ হোক এবারের রমজান।
ডব্লিউএইচও বলেছে, রমজানে কারও বাড়িতে ইফতারে যাবেন না। কাউকে নিজের বাড়িতে আসতে দাওয়াতও দেবেন না। ইফতার পার্টি না ডেকে, খাবারের প্যাকেটের ব্যবস্থা করুন। এতে সংক্রমণের আশঙ্কা ততটা নেই। জাকাত বা দান করার সময় শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখুন। বাড়িতে নামাজ পড়ুন।
চাঁদ দেখা, রোজা শুরু ও ঈদ উদযাপন নিয়ে প্রতি বছর যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় বাংলাদেশিসহ ভিন্ন দেশীয় মুসলমানদের মাঝে দ্বিমত দেখা দিলেও এবারে একসঙ্গেই রোজা শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো হেরফেরের খবর পাওয়া যায়নি।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

যুক্তরাষ্ট্রে সংক্রমণ ঠেকাতে ইফতার পার্টি থেকে বিরত থাকার পরামর্শ

 কৌশলী ইমা, নিউইয়র্ক থেকে 
১৫ এপ্রিল ২০২১, ১০:৫৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রে মঙ্গলবার (১৩ এপ্রিল) থেকে শুরু হয়েছে পবিত্র মাহে রমজান। করোনাভাইরাস আতঙ্কের মধ্যেই পালন হচ্ছে পবিত্র রমজান। এ উপলক্ষে গত সোমবার রাতে প্রথম তারাবির নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। পরদিন সন্ধ্যায় প্রথম ইফতারে অংশ নেন যুক্তরাষ্ট্রের বাংলাদেশি অধ্যুষিত এলাকার প্রবাসী মুসলমানরা। তবে ইফতার পার্টি না ডেকে, খাবারের প্যাকেটের ব্যবস্থা করলে সংক্রমণের আশঙ্কা ততটা নেই বলে জানিয়েছেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

মাসটিতে প্রাণঘাতী এ ভাইরাস থেকে নিজেকে রক্ষা করতে নতুন কিছু স্বাস্থ্যবিধিও মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। আর সেসব স্বাস্থ্যবিধি মেনে নিজেদের সাবধানতা অবলম্বনে এবার ঘরোয়া পরিবেশে বাসা-বাড়িতেই ইফতার করছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা।
এদিকে করোনা মোকাবিলায় এরই মধ্যে সৌদি আরবসহ বেশ কয়েকটি দেশ নির্দেশনা জারি করেছে। ডব্লিউএইচও বলছে, এ মাসে ধর্মীয় বা সামাজিক কোনো ধরনের জমায়েত করা ঠিক হবে না। তার বদলে সোশ্যাল মিডিয়ার সাহায্যে ভার্চুয়াল জমায়েত করুন। কথা চলুক ফোনে, দেখা হোক ভিডিও কলে। ধর্মীয় জমায়েত হোক টেলিভিশনের সামনে নিজ নিজ বাড়িতে, অথবা রেডিওতে ধর্মীয় বক্তব্য শুনে শেষ হোক এবারের রমজান।
ডব্লিউএইচও বলেছে, রমজানে কারও বাড়িতে ইফতারে যাবেন না। কাউকে নিজের বাড়িতে আসতে দাওয়াতও দেবেন না। ইফতার পার্টি না ডেকে, খাবারের প্যাকেটের ব্যবস্থা করুন। এতে সংক্রমণের আশঙ্কা ততটা নেই। জাকাত বা দান করার সময় শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখুন। বাড়িতে নামাজ পড়ুন।
চাঁদ দেখা, রোজা শুরু ও ঈদ উদযাপন নিয়ে প্রতি বছর যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডায় বাংলাদেশিসহ ভিন্ন দেশীয় মুসলমানদের মাঝে দ্বিমত দেখা দিলেও এবারে একসঙ্গেই রোজা শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো হেরফেরের খবর পাওয়া যায়নি। 
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন