ফিলিস্তিনে ইসরাইলি হামলার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ
jugantor
ফিলিস্তিনে ইসরাইলি হামলার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ

  কৌশলী ইমা, যুক্তরাষ্ট্র থেকে  

১৭ মে ২০২১, ২১:১০:১৫  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরাইলি বাহিনীর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের বোস্টনে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৫ মে) স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় বোস্টনের কপলি স্কয়ার ও ইসরাইল দূতাবাসের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ হয়।

বোস্টনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ হার্ভার্ড ফিলিস্তিন সলিডারিটি কমিটি, ফিলিস্তিন অ্যাডভোকেসি প্রজেক্ট, আলজেরিয়ান আমেরিকান স্টুডেন্টস অব নিউ ইংল্যান্ড, ন্যাশনাল ফিলিস্তিন ইয়ুথ ইউনিয়ন, ডেমোক্রাটিক স্যোসালিষ্ট অব আমেরিকা, ফিলিস্তিন কমিউনিটি অব বোস্টন ও ফিলিস্তিন হাউস অব নিউ ইংল্যান্ডসহ বিভিন্ন সংগঠন বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নেয়।

বোস্টনের শ্রমিক সংগঠন ডেমোক্রাটিক স্যোসালিস্ট অব আমেরিকার কো-চেয়ারম্যান প্রবাসী বাংলাদেশি মুনিম খান জানান, ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরাইলি বাহিনীর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে শনিবার বোস্টনে অনুষ্ঠিত উক্ত বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশে বেশ কিছু প্রবাসী বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের অভিবাসীরা অংশগ্রহণ করে। তারা ইসরাইলের বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।

পূর্ব জেরুজালেমের পশ্চিম তীরের প্রাচীন একটি ছোট্টবসতি শহর শেখ জারাহ। সম্প্রতি সেখানে বসবাসরত আট ফিলিস্তিনি পরিবারকে উৎখাত করে ইহুদি বসতি গড়ার চেষ্টা করে ইসরাইলি বাহিনী। এই অবৈধ দখলদারিত্ব রুখতে গিয়ে চলতি সপ্তাহে শেখ জারাহ হতে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ফিলিস্তিনি অধিবাসীরা। ওই বসতি থেকে পরে পুরো ফিলিস্তিন জুড়ে এই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই ফিলিস্তিনের এই প্রতিরোধ আন্দোলনকে ইসরাইলের বিরুদ্ধে নতুন অভ্যুত্থান বলে অভিহিত করেছেন।

বিক্ষোভ সমাবেশে ফিলিস্তিনের ওপর ইসরাইলের হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বক্তারা বলেন, এ হামলা মানবতার বিরুদ্ধে। গোটা বিশ্ব যখন করোনা মহামারিতে ক্লান্ত তখন অবৈধ দখলদার ইসরাইল পবিত্র রমজানের মধ্যে আবারও দানবীয় রূপে আবির্ভূত হয়েছে। পবিত্র রমজানে মুসলিমরা যখন ইবাদাত-বন্দেগিতে মশগুল তখনই অশুভ ইহুদিবাদী শক্তি জঘণ্য নারকীয় হামলা চালায়।

বক্তারা বলেন, ইফতার ও নামাজ পড়া অবস্থায় আল-আকসা মসজিদ চত্বরে ঢুকে ইসরাইলি পুলিশের বেধড়ক লাঠিপেটা, কাঁদানে গ্যাস এবং নির্বিচারে রাবার বুলেট ছুড়ে তিন শতাধিক ফিলিস্তিনিকে আহত করে। পুরো রমজান মাসজুড়ে পুলিশের বাড়াবাড়ি ছিল চরমে। নিরবচ্ছিন্ন দখলদারির মধ্যেই নতুন করে আদালতের মাধ্যমে কয়েকটি ফিলিস্তিনি পরিবারকে উৎখাতের তৎপরতা শুরু করে ইসরাইল।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

ফিলিস্তিনে ইসরাইলি হামলার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রে বিক্ষোভ

 কৌশলী ইমা, যুক্তরাষ্ট্র থেকে 
১৭ মে ২০২১, ০৯:১০ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরাইলি বাহিনীর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস অঙ্গরাজ্যের বোস্টনে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (১৫ মে) স্থানীয় সময় দুপুর ২টায় বোস্টনের কপলি স্কয়ার ও ইসরাইল দূতাবাসের সামনে এ বিক্ষোভ সমাবেশ হয়।

বোস্টনের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীসহ হার্ভার্ড ফিলিস্তিন সলিডারিটি কমিটি, ফিলিস্তিন অ্যাডভোকেসি প্রজেক্ট, আলজেরিয়ান আমেরিকান স্টুডেন্টস অব নিউ ইংল্যান্ড, ন্যাশনাল ফিলিস্তিন ইয়ুথ ইউনিয়ন, ডেমোক্রাটিক স্যোসালিষ্ট অব আমেরিকা, ফিলিস্তিন কমিউনিটি অব বোস্টন ও ফিলিস্তিন হাউস অব নিউ ইংল্যান্ডসহ বিভিন্ন সংগঠন বিক্ষোভ সমাবেশে অংশ নেয়।

বোস্টনের শ্রমিক সংগঠন ডেমোক্রাটিক স্যোসালিস্ট অব আমেরিকার কো-চেয়ারম্যান প্রবাসী বাংলাদেশি মুনিম খান জানান, ফিলিস্তিনের গাজায় ইসরাইলি বাহিনীর বর্বরোচিত হামলার প্রতিবাদে শনিবার বোস্টনে অনুষ্ঠিত উক্ত বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশে বেশ কিছু প্রবাসী বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের অভিবাসীরা অংশগ্রহণ করে। তারা ইসরাইলের বর্বরোচিত হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায়।

পূর্ব জেরুজালেমের পশ্চিম তীরের প্রাচীন একটি ছোট্টবসতি শহর শেখ জারাহ। সম্প্রতি সেখানে বসবাসরত আট ফিলিস্তিনি পরিবারকে উৎখাত করে ইহুদি বসতি গড়ার চেষ্টা করে ইসরাইলি বাহিনী। এই অবৈধ দখলদারিত্ব রুখতে গিয়ে চলতি সপ্তাহে শেখ জারাহ হতে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন ফিলিস্তিনি অধিবাসীরা। ওই বসতি থেকে পরে পুরো ফিলিস্তিন জুড়ে এই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ে। অনেকেই ফিলিস্তিনের এই প্রতিরোধ আন্দোলনকে ইসরাইলের বিরুদ্ধে নতুন অভ্যুত্থান বলে অভিহিত করেছেন।

বিক্ষোভ সমাবেশে ফিলিস্তিনের ওপর ইসরাইলের হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বক্তারা বলেন, এ হামলা মানবতার বিরুদ্ধে। গোটা বিশ্ব যখন করোনা মহামারিতে ক্লান্ত তখন অবৈধ দখলদার ইসরাইল পবিত্র রমজানের মধ্যে আবারও দানবীয় রূপে আবির্ভূত হয়েছে। পবিত্র রমজানে মুসলিমরা যখন ইবাদাত-বন্দেগিতে মশগুল তখনই অশুভ ইহুদিবাদী শক্তি জঘণ্য নারকীয় হামলা চালায়।

বক্তারা বলেন, ইফতার ও নামাজ পড়া অবস্থায় আল-আকসা মসজিদ চত্বরে ঢুকে ইসরাইলি পুলিশের বেধড়ক লাঠিপেটা, কাঁদানে গ্যাস এবং নির্বিচারে রাবার বুলেট ছুড়ে তিন শতাধিক ফিলিস্তিনিকে আহত করে। পুরো রমজান মাসজুড়ে পুলিশের বাড়াবাড়ি ছিল চরমে। নিরবচ্ছিন্ন দখলদারির মধ্যেই নতুন করে আদালতের মাধ্যমে কয়েকটি ফিলিস্তিনি পরিবারকে উৎখাতের তৎপরতা শুরু করে ইসরাইল।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর