আবুধাবি দূতাবাসে নজরুল জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে আলোচনা সভা
jugantor
আবুধাবি দূতাবাসে নজরুল জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে আলোচনা সভা

  ওবায়দুল হক মানিক, আমিরাত থেকে  

১২ জুন ২০২১, ২২:১৮:৪৯  |  অনলাইন সংস্করণ

সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবির দূতাবাসের উদ্যোগে নজরুল জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে ‘অসাম্প্রদায়িক ও বৈষম্যহীন বাংলাদেশ' শীর্ষক আলোচনাসভা বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় অনুষ্ঠিত হয়।

রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আবু জাফরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন দূতাবাস সচিব লুৎফর নাহার নাজিম। দূতাবাস লেবার উইং কর্মকর্তা রেজাউল আলমের কোরআন তেলাওয়াত ও অধ্যক্ষ মীর আনিসুল হাসানের স্বাগত বক্তব্যের পর এতে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় কবির জীবন আদর্শের চিন্তাচেতনা নিয়ে বক্তব্য রাখেন- আলহাজ ইফতেকার হোসেন বাবুল, ড. হাবীব উল হক খন্দকার, প্রকৌশলী মোয়াজ্জেম হোসেন, ড. আহসান খন্দকার, প্রকৌশলী আশিষ বড়ুয়া, ইমরাদ হোসেন ইমু, মাহবুব খন্দকার, মোহাম্মদ আইয়ুব। এতে উপস্থিত ছিলেন মিডিয়ার সাংবাদিকসহ অনেকে।

জাতির পিতার অসাম্প্রদায়িক ও বৈষম্যহীন দেশ গড়ার দর্শনের পেছনে জাতীয় কবির জীবনী ও সাহিত্য কর্মের বিশেষ ভূমিকার ওপর আলোকপাত করেন। বিদ্রোহী কবিতা কাজী নজরুল ইসলাম যে বীরের বর্ণনা দিয়েছিলেন তার মধ্যে বঙ্গবন্ধু ছিলেন বাস্তব রূপ। নজরুল ইসলাম ছিলেন সাহিত্যের কবি আর বঙ্গবন্ধু হলেন রাজনীতির কবি। ত্রিকালদর্শী নজরুল ভাষায় ব্যঞ্জনায় যেমন কালজয়ী কাব্য রচনা করেছেন তেমনি বঙ্গবন্ধু তার রাজনৈতিক প্রতিভা দিয়ে যে কাব্য রচনা করেছেন তার নাম বাংলাদেশ।

রাষ্ট্রদূত বলেন, আমাদের জাতীয় কবি নজরুল ইসলাম তার সাহিত্য ও কর্মের সাম্য, সম্প্রীতি, নারীর সমঅধিকার, মানবাধিকার, মানবতাবোধ ও বাঙালি জাতীয়তাবাদের জয়গান গেয়েছেন। জাতির পিতা তার দায়িত্ব পালন করে গেছেন।
আলোচনা শেষে জাতির পিতা, জাতীয় কবি ও তাদের পরিবারবর্গের রুহের মাগফিরাত কামনা, প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা, দেশ-জাতির সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

আবুধাবি দূতাবাসে নজরুল জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে আলোচনা সভা

 ওবায়দুল হক মানিক, আমিরাত থেকে 
১২ জুন ২০২১, ১০:১৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবির দূতাবাসের উদ্যোগে নজরুল জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে ‘অসাম্প্রদায়িক ও বৈষম্যহীন বাংলাদেশ' শীর্ষক আলোচনাসভা বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টায় অনুষ্ঠিত হয়। 

রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আবু জাফরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন দূতাবাস সচিব লুৎফর নাহার নাজিম। দূতাবাস লেবার উইং কর্মকর্তা রেজাউল আলমের কোরআন তেলাওয়াত ও অধ্যক্ষ মীর আনিসুল হাসানের স্বাগত বক্তব্যের পর এতে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় কবির জীবন আদর্শের চিন্তাচেতনা নিয়ে বক্তব্য রাখেন- আলহাজ ইফতেকার হোসেন বাবুল, ড. হাবীব উল হক খন্দকার, প্রকৌশলী মোয়াজ্জেম হোসেন, ড. আহসান খন্দকার, প্রকৌশলী আশিষ বড়ুয়া, ইমরাদ হোসেন ইমু, মাহবুব খন্দকার, মোহাম্মদ আইয়ুব। এতে উপস্থিত ছিলেন মিডিয়ার সাংবাদিকসহ অনেকে। 

জাতির পিতার অসাম্প্রদায়িক ও বৈষম্যহীন দেশ গড়ার দর্শনের পেছনে জাতীয় কবির জীবনী ও সাহিত্য কর্মের বিশেষ ভূমিকার ওপর আলোকপাত করেন। বিদ্রোহী কবিতা কাজী নজরুল ইসলাম যে বীরের বর্ণনা দিয়েছিলেন তার মধ্যে বঙ্গবন্ধু ছিলেন বাস্তব রূপ। নজরুল ইসলাম ছিলেন সাহিত্যের কবি আর বঙ্গবন্ধু হলেন রাজনীতির কবি। ত্রিকালদর্শী নজরুল ভাষায় ব্যঞ্জনায় যেমন কালজয়ী কাব্য রচনা করেছেন তেমনি বঙ্গবন্ধু তার রাজনৈতিক প্রতিভা দিয়ে যে কাব্য রচনা করেছেন তার নাম বাংলাদেশ। 

রাষ্ট্রদূত বলেন, আমাদের জাতীয় কবি নজরুল ইসলাম তার সাহিত্য ও কর্মের সাম্য, সম্প্রীতি, নারীর সমঅধিকার, মানবাধিকার, মানবতাবোধ ও বাঙালি জাতীয়তাবাদের জয়গান গেয়েছেন। জাতির পিতা তার দায়িত্ব পালন করে গেছেন। 
আলোচনা শেষে জাতির পিতা, জাতীয় কবি ও তাদের পরিবারবর্গের রুহের মাগফিরাত কামনা,  প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা, দেশ-জাতির সমৃদ্ধি ও অগ্রগতি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন