মালয়েশিয়ায় করোনায় বাংলাদেশির মৃত্যু
jugantor
মালয়েশিয়ায় করোনায় বাংলাদেশির মৃত্যু

  আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে  

১৮ জুন ২০২১, ০১:১৮:৪৫  |  অনলাইন সংস্করণ

দীর্ঘ এক মাস করোনাভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করে মোহাম্মদ হাসান নামে মালয়েশিয়া প্রবাসী এক বাংলাদেশি মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) স্থানীয় সময় সকাল ৯টার দিকে তিনি মারা যান। মোহাম্মদ হাসানের পাসপোর্ট নম্বর BN-0341479। পাসপোর্ট থেকে জানা গেছে তার জন্ম তারিখ ১৯৭৫ সালের ১০ ডিসেম্বর। বাংলাদেশে তার বাড়ি নারায়ণগঞ্জ জেলায়।

গত ১৫ মে থেকে শারীরিক অসুস্থতা বোধ করেন মোহাম্মদ হাসান। ২৫ মে থেকে শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখা দেয়। কোম্পানিকে বিষয়টি জানালে তার করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়। পরীক্ষায় ফল পজিটিভ আসে। সঙ্গে সঙ্গে তাকে কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হয়। চার-পাঁচ দিন পর তার শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দেয়। পরে তাকে সুনগাই বুলহ হাসপাতালে কোভিড-১৯ ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।

নিবিড় পর্যবেক্ষণ-চিকিৎসাতেও তার শ্বাসকষ্টের সমস্যার উন্নতি হচ্ছিল না। শেষ পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।

পরিবার ও মালয়েশিয়ার মালিকপক্ষ হাসানের মরদেহ দেশে পাঠানোর আবেদন জানালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মরদেহ দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, করোনা সংক্রমণ যাতে না ছড়ায় সেই কারণে তার মরদেহ দেওয়া হবে না। তবে ইসলামী নিয়ম অনুসারে মালয়েশিয়ায় হাসানের মরদেহ দাফন করা হবে।

এদিকে দেশটিতে একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, ৫ হাজার ৭৩৮ জন। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৭৬৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় প্রাণ হারিয়েছেন ৬০ জন। দেশটিতে মোট প্রাণ হারিয়েছেন ৪ হাজার ২০২ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন, ৬ লাখ ৮ হাজার ৪৬৫ জন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

মালয়েশিয়ায় করোনায় বাংলাদেশির মৃত্যু

 আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে 
১৮ জুন ২০২১, ০১:১৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দীর্ঘ এক মাস করোনাভাইরাসের সঙ্গে যুদ্ধ করে মোহাম্মদ হাসান নামে মালয়েশিয়া প্রবাসী এক বাংলাদেশি মারা গেছেন।

বৃহস্পতিবার (১৭ জুন) স্থানীয় সময় সকাল ৯টার দিকে তিনি মারা যান। মোহাম্মদ হাসানের পাসপোর্ট নম্বর BN-0341479। পাসপোর্ট থেকে জানা গেছে তার জন্ম তারিখ ১৯৭৫ সালের ১০ ডিসেম্বর। বাংলাদেশে তার বাড়ি নারায়ণগঞ্জ জেলায়।

গত ১৫ মে থেকে শারীরিক অসুস্থতা বোধ করেন মোহাম্মদ হাসান। ২৫ মে থেকে শারীরিক অবস্থার অবনতি দেখা দেয়। কোম্পানিকে বিষয়টি জানালে তার করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা করা হয়। পরীক্ষায় ফল পজিটিভ আসে। সঙ্গে সঙ্গে তাকে কোয়ারেন্টিনে নেওয়া হয়। চার-পাঁচ দিন পর তার শ্বাসকষ্টের সমস্যা দেখা দেয়। পরে তাকে সুনগাই বুলহ হাসপাতালে কোভিড-১৯ ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়।

নিবিড় পর্যবেক্ষণ-চিকিৎসাতেও তার শ্বাসকষ্টের সমস্যার উন্নতি হচ্ছিল না। শেষ পর্যন্ত চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।

পরিবার ও মালয়েশিয়ার মালিকপক্ষ হাসানের মরদেহ দেশে পাঠানোর আবেদন জানালে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মরদেহ দিতে অপারগতা প্রকাশ করে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, করোনা সংক্রমণ যাতে না ছড়ায় সেই কারণে তার মরদেহ দেওয়া হবে না। তবে ইসলামী নিয়ম অনুসারে মালয়েশিয়ায় হাসানের মরদেহ দাফন করা হবে।

এদিকে দেশটিতে একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন, ৫ হাজার ৭৩৮ জন। এ পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৬ লাখ ৭৮ হাজার ৭৬৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায়  প্রাণ হারিয়েছেন ৬০ জন। দেশটিতে মোট প্রাণ হারিয়েছেন ৪ হাজার ২০২ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন, ৬ লাখ ৮ হাজার ৪৬৫ জন।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন