ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ
jugantor
ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

  অসীম বিকাশ বড়ুয়া, দক্ষিণ কোরিয়া থেকে  

২৪ জুলাই ২০২১, ০১:৫৩:২২  |  অনলাইন সংস্করণ

দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থানরত ইপিএস কর্মীদের জনপ্রিয় সংগঠন ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার উদ্যোগে দক্ষিণ কোরিয়ার সব প্রবাসীদের পক্ষ থেকে পবিত্র ঈদুল আজহার উপহারস্বরূপ গরিব অসহায় দুস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার দেশের আটটি বিভাগের বেশকিছু জেলায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। দক্ষিণ কোরিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাংলাদেশি ইপিএস কর্মীদের সংগঠনটি এটি।

দূর পরবাসে কল্যাণকর কিছু করার প্রত্যয় নিয়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এই সংগঠন। "আমরা প্রবাসী, আমরা একা নই, আমরা শক্তি, আমরা সমষ্টি" এই স্লোগানে উজ্জীবিত হয়ে ২০১২ সালের ১২ জুলাই সর্বপ্রথম ফেসবুকের মাধ্যমে এ সংগঠন আত্মপ্রকাশ করে।

ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার সদস্যরা জানানয, মানব সেবাই আমাদের মূল লক্ষ্য এবং প্রবাসীদের হৃদয়ে গেঁথে থাকা দুটি জিনিস মা এবং জন্মভূমি। মা এবং জন্মভূমি বাংলাদেশ ভালো থাকলে আমরাও শত কষ্টের মাঝে ভালো থাকি। যাদের অর্থায়ন, শ্রম এবং সহযোগিতায় এ মহৎ উদ্যোগ সফলতার সাথে সম্পন্ন হয়েছে তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে গরিব ও অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ইপিএস বাংলা সদস্যরা।

উল্লেখ্য, এর আগেও ইপিএস বাংলা দেশজুড়ে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে, বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের সহযোগিতায় ঢাকায় ২০০টি অসহায় পরিবারের মাঝে উপহার প্রেরণ করে এবং ফ্রন্টলাইন ফাইটার চিকিৎসকদের করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে সুরক্ষায় পার্সোনাল প্রটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) উপহার দিয়েছে বিভিন্ন জেলায়।

এরমধ্যে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদারের হাতে উপহারের ৫০টি পিপিই এবং নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সেলিম রেজার হাতে ৬০টি পিপিইসহ রংপুরের সিভিল সার্জন ডা. হিরম্ব কুমার রায়, খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন, নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইনের হাতে দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসীদের দেওয়া উপহারের পিপিই (সুরক্ষা সামগ্রী) তুলে দেওয়া হয়।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

 অসীম বিকাশ বড়ুয়া, দক্ষিণ কোরিয়া থেকে 
২৪ জুলাই ২০২১, ০১:৫৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থানরত ইপিএস কর্মীদের জনপ্রিয় সংগঠন ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার উদ্যোগে দক্ষিণ কোরিয়ার সব প্রবাসীদের পক্ষ থেকে পবিত্র ঈদুল আজহার উপহারস্বরূপ গরিব অসহায় দুস্থদের মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে।

গত মঙ্গলবার দেশের আটটি বিভাগের বেশকিছু জেলায় খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়। দক্ষিণ কোরিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বাংলাদেশি ইপিএস কর্মীদের সংগঠনটি এটি।

দূর পরবাসে কল্যাণকর কিছু করার প্রত্যয় নিয়ে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এই সংগঠন। "আমরা প্রবাসী, আমরা একা নই, আমরা শক্তি, আমরা সমষ্টি" এই স্লোগানে উজ্জীবিত হয়ে ২০১২ সালের ১২ জুলাই সর্বপ্রথম ফেসবুকের মাধ্যমে এ সংগঠন আত্মপ্রকাশ করে।

ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার সদস্যরা জানানয, মানব সেবাই আমাদের মূল লক্ষ্য এবং প্রবাসীদের হৃদয়ে গেঁথে থাকা দুটি জিনিস মা এবং জন্মভূমি। মা এবং জন্মভূমি বাংলাদেশ ভালো থাকলে আমরাও শত কষ্টের মাঝে ভালো থাকি। যাদের অর্থায়ন, শ্রম এবং সহযোগিতায় এ মহৎ উদ্যোগ সফলতার সাথে সম্পন্ন হয়েছে তাদের ধন্যবাদ জানিয়ে গরিব ও অসহায়দের পাশে দাঁড়ানোর ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন ইপিএস বাংলা সদস্যরা।

উল্লেখ্য, এর আগেও ইপিএস বাংলা দেশজুড়ে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছে, বাংলাদেশ কোস্টগার্ডের সহযোগিতায় ঢাকায় ২০০টি অসহায় পরিবারের মাঝে উপহার প্রেরণ করে এবং ফ্রন্টলাইন ফাইটার চিকিৎসকদের করোনাভাইরাস সংক্রমণ থেকে সুরক্ষায় পার্সোনাল প্রটেক্টিভ ইকুইপমেন্ট (পিপিই) উপহার দিয়েছে বিভিন্ন জেলায়।

এরমধ্যে মুন্সীগঞ্জ জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদারের হাতে উপহারের ৫০টি পিপিই এবং নারায়ণগঞ্জের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সেলিম রেজার হাতে ৬০টি পিপিইসহ রংপুরের সিভিল সার্জন ডা. হিরম্ব কুমার রায়, খুলনার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন, নরসিংদীর জেলা প্রশাসক সৈয়দা ফারহানা কাউনাইনের হাতে দক্ষিণ কোরিয়া প্রবাসীদের দেওয়া উপহারের পিপিই (সুরক্ষা সামগ্রী) তুলে দেওয়া হয়।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন