মালয়েশিয়ায় কর্মীদের ভিসা নবায়নে বিলম্ব
jugantor
মালয়েশিয়ায় কর্মীদের ভিসা নবায়নে বিলম্ব

  আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে  

৩১ জুলাই ২০২১, ০১:২২:২৪  |  অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় বিদেশি কর্মীদের ভিসা নবায়নে বিলম্ব হচ্ছে। এটি সমাধানের দ্রুত চেষ্টা করছে ইমিগ্রেশন বিভাগ।

এদিকে ভিসা নবায়নে বিলম্ব হচ্ছে স্বীকার করে আগামী তিন মাসের মধ্যে এ সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্তারা। তারা বলছেন, আগামী তিন মাসের মধ্যে প্রায় দুই লাখ ভিসা স্টিকার প্রদান করা হবে।

২৯ জুলাই ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক খায়রুল দাযাইমি দাউদ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ভিসা নবায়ন প্রক্রিয়াটি দ্রুত করার জন্য একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে।

চলমান মহামারি সংক্রমণরোধে লকডাউনের কারণে অফিসে সীমিত সংখ্যক অফিসার কাজ করছেন, এতে স্টিকার পেতে কিছুটা বিলম্বিত হচ্ছে, তবে সমস্যার দ্রুত সমাধানের চেষ্টা চলছে।

গঠিত টাস্কফোর্স, আটকে থাকা নবায়ন স্টিকারগুলো ক্লিয়ার করা শুরু হয়েছে। আগামী অক্টোবরের মধ্যেই বিষয়টি সমাধান হবে বলে আশা করছেন পরিচালক।

বিলম্বিত হওয়া ভিসা নবায়নের স্টিকারগুলো বেশিরভাগই সেলাঙ্গর, কুয়ালালামপুর এবং নেগরি সেম্বিলান প্রদেশের বলে জানা গেছে।

এ প্রদেশগুলো এখনো জাতীয় কঠোর লকডাউন পরিকল্পনার প্রথম ধাপের অধীনে রয়েছে। যেখানে চলাচল মারাত্মকভাবে সীমাবদ্ধ।

এসব প্রদেশের নিয়োগকর্তারা দাবি করছেন, তাদের বিদেশি কর্মীদের ভিসা নবায়নের জন্য লেভী অর্থ প্রদান করার পরেও ভিসা স্টিকারগুলো পাচ্ছেন না।

মালিকপক্ষ এজন্য আরও উদ্বিগ্ন যে, ইমিগ্রেশন তাদের এবং তাদের কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযানের সময় মেয়াদোত্তীর্ণ ওয়ার্ক পারমিট শ্রমিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

খায়রুল দাযাইমি বলেন, ইমিগ্রেশন অফিসগুলোতে কর্মচারীর সংখ্যা এখনো সীমিত হওয়ায় আটকে থাকা স্টিকার প্রদান করতে টাস্কফোর্সের প্রায় তিন মাস সময় প্রয়োজন।

যেসব বিদেশি কর্মীরা কাজের জন্য ভিসা নবায়নের আবেদন করেছেন সেসব নিয়োগকারীদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তবে অভিযানের সময় ভিসা নবায়নের জন্য আবেদন করা লেভী স্লিপ যাচাই বাছাই দলিল হিসেবে গ্রহণ করা হবে- এমনটি জানিয়েছেন ইমিগ্রেশন মহাপরিচালক।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

মালয়েশিয়ায় কর্মীদের ভিসা নবায়নে বিলম্ব

 আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে 
৩১ জুলাই ২০২১, ০১:২২ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় বিদেশি কর্মীদের ভিসা নবায়নে বিলম্ব হচ্ছে। এটি সমাধানের দ্রুত চেষ্টা করছে ইমিগ্রেশন বিভাগ।

এদিকে ভিসা নবায়নে বিলম্ব হচ্ছে স্বীকার করে আগামী তিন মাসের মধ্যে এ সমস্যা সমাধানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্তারা। তারা বলছেন, আগামী তিন মাসের মধ্যে প্রায় দুই লাখ ভিসা স্টিকার প্রদান করা হবে। 

২৯ জুলাই ইমিগ্রেশন বিভাগের মহাপরিচালক দাতুক খায়রুল দাযাইমি দাউদ এক বিবৃতিতে বলেছেন, ভিসা নবায়ন প্রক্রিয়াটি দ্রুত করার জন্য একটি টাস্কফোর্স গঠন করা হয়েছে।

চলমান মহামারি সংক্রমণরোধে লকডাউনের কারণে অফিসে সীমিত সংখ্যক অফিসার কাজ করছেন, এতে স্টিকার পেতে কিছুটা বিলম্বিত হচ্ছে, তবে সমস্যার দ্রুত সমাধানের চেষ্টা চলছে।

গঠিত টাস্কফোর্স, আটকে থাকা নবায়ন স্টিকারগুলো ক্লিয়ার করা শুরু হয়েছে। আগামী অক্টোবরের মধ্যেই বিষয়টি সমাধান হবে বলে আশা করছেন পরিচালক।

বিলম্বিত হওয়া ভিসা নবায়নের স্টিকারগুলো বেশিরভাগই সেলাঙ্গর, কুয়ালালামপুর এবং নেগরি সেম্বিলান প্রদেশের বলে জানা গেছে। 

এ প্রদেশগুলো এখনো জাতীয় কঠোর লকডাউন পরিকল্পনার প্রথম ধাপের অধীনে রয়েছে। যেখানে চলাচল মারাত্মকভাবে সীমাবদ্ধ।

এসব প্রদেশের নিয়োগকর্তারা দাবি করছেন, তাদের বিদেশি কর্মীদের ভিসা নবায়নের জন্য লেভী অর্থ প্রদান করার পরেও ভিসা স্টিকারগুলো পাচ্ছেন না।

মালিকপক্ষ এজন্য আরও উদ্বিগ্ন যে, ইমিগ্রেশন তাদের এবং তাদের কর্মীদের বিরুদ্ধে অভিযানের সময় মেয়াদোত্তীর্ণ ওয়ার্ক পারমিট শ্রমিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।

খায়রুল দাযাইমি বলেন, ইমিগ্রেশন অফিসগুলোতে কর্মচারীর সংখ্যা এখনো সীমিত হওয়ায় আটকে থাকা স্টিকার প্রদান করতে টাস্কফোর্সের প্রায় তিন মাস সময় প্রয়োজন।

যেসব বিদেশি কর্মীরা কাজের জন্য ভিসা নবায়নের আবেদন করেছেন সেসব নিয়োগকারীদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হবে না, তবে অভিযানের সময় ভিসা নবায়নের জন্য আবেদন করা লেভী স্লিপ যাচাই বাছাই দলিল হিসেবে গ্রহণ করা হবে- এমনটি জানিয়েছেন ইমিগ্রেশন মহাপরিচালক।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন