জার্মানির পর গ্রিসে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী 
jugantor
জার্মানির পর গ্রিসে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী 

  তাইজুল ফয়েজ, গ্রিস থেকে  

১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:৫১:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

সোমবার প্রাচীন সভ্যতার দেশ গ্রিসে বাংলাদেশ দূতাবাস মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ই-পাসপোর্টের কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অংশ হিসেবে ইতোমধ্যেই বাংলাদেশে অত্যাধুনিক ই-পাসপোর্ট চালু হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী (মুজিববর্ষ) ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর বছরেই বিদেশে প্রথম বাংলাদেশ মিশন হিসেবে জার্মানির বার্লিনের সঙ্গে গ্রিসের এথেন্সেও চালু হলো ই-পাসপোর্ট প্রকল্প।

পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. আইয়ূব চৌধুরী, গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহ্মেদ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. আব্দুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন।

কাউন্সিলর খালেদ আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় রাষ্ট্রদূত বলেন, এখন থেকে গ্রিস দূতাবাসের মাধ্যমে মাল্টা ও আলবেনিয়ায় বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা ই-পাসপোর্ট সেবা নিতে পারবেন।

এছাড়াও তিন দিনের সফরে গ্রিসে অবস্থানকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ কমিউনিটি, গ্রিস আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, ইউরো বাংলা প্রেস ক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

প্রবাসী নেতারা ই-পাসপোর্ট সেবা গ্রহণের সুযোগ দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী এবং তার সরকারকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

জার্মানির পর গ্রিসে ই-পাসপোর্ট কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী 

 তাইজুল ফয়েজ, গ্রিস থেকে 
১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৫১ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

সোমবার প্রাচীন সভ্যতার দেশ গ্রিসে বাংলাদেশ দূতাবাস মিলনায়তনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে  ই-পাসপোর্টের কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। 

তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের অংশ হিসেবে ইতোমধ্যেই বাংলাদেশে অত্যাধুনিক ই-পাসপোর্ট চালু হয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকী (মুজিববর্ষ) ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীর বছরেই বিদেশে প্রথম বাংলাদেশ মিশন হিসেবে জার্মানির বার্লিনের সঙ্গে গ্রিসের এথেন্সেও চালু হলো ই-পাসপোর্ট প্রকল্প। 

পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. আইয়ূব চৌধুরী, গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহ্মেদ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. আব্দুল্লাহ আল মাসুদ চৌধুরী বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন।
  
কাউন্সিলর খালেদ আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় রাষ্ট্রদূত বলেন, এখন থেকে গ্রিস দূতাবাসের মাধ্যমে মাল্টা ও আলবেনিয়ায় বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশিরা  ই-পাসপোর্ট সেবা নিতে পারবেন। 

এছাড়াও তিন দিনের সফরে গ্রিসে অবস্থানকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশ কমিউনিটি, গ্রিস আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, ইউরো বাংলা প্রেস ক্লাবসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। 

প্রবাসী নেতারা ই-পাসপোর্ট সেবা গ্রহণের সুযোগ দেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী এবং তার সরকারকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেন।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন