দূতাবাসের সহযোগিতায় বাড়ি ফিরলেন ইস্তাম্বুলে আটকেপড়া ইতালি প্রবাসী
jugantor
দূতাবাসের সহযোগিতায় বাড়ি ফিরলেন ইস্তাম্বুলে আটকেপড়া ইতালি প্রবাসী

  জমির হোসেন, ইতালি থেকে  

১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:২৪:১০  |  অনলাইন সংস্করণ

ইস্তাম্বুলে ছয় দিন আটকেপড়া ইতালি প্রবাসী মো. দিদারুল আলম রোম বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় ১৩ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামে তার বাড়িতে পৌঁছেন।

জানা গেছে, দিদারুলের একটু মানসিক সমস্যা ছিল। গত ৬ সেপ্টেম্বর তিনি বাংলাদেশের উদ্দেশে রোম বিমানবন্দর ত্যাগ করেন। তুর্কি বিমানবন্দর ইস্তাম্বুলে এসে পৌঁছলে তার পাসপোর্ট হারিয়ে যায়; এরপর সেখানে আটকে পড়েন তিনি।

গত ছয় দিন পর রোম বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় অবশেষে বাড়ি ফিরেছেন তিনি।

এ ব্যাপারে রোমে বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সেলর (শ্রম কল্যাণ) মো. এরফানুল হক যুগান্তরকে জানান, বিষয়টি দূতাবাসকে গত ৯ সেপ্টেম্বর অবগত করেন কমিউনিটির এক নেতা।

এরপর রোম বাংলাদেশ দূতাবাস দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে তুর্কিতে অবস্থিত বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল এবং টার্কিশ এয়ারলাইনসের সার্বিক সহযোগিতায় ১১ সেপ্টেম্বর তাকে বিমানবন্দরে শনাক্ত করা হয়। ১২ সেপ্টেম্বর রোববার ইস্তাম্বুল বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলের বিশেষ ব্যবস্থায় জরুরিভিত্তিতে ট্রাভেল পাস ইস্যু করা হয়। ১৩ সেপ্টেম্বর তিনি বাংলাদেশে যেতে সক্ষম হন।

তিনি আরও বলেন, আমরা সর্বদা চেষ্টা করি প্রবাসীদের সহযোগিতা দিতে। তাদের সমস্যা নিরসনে দূতাবাস সব সময় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবে।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

দূতাবাসের সহযোগিতায় বাড়ি ফিরলেন ইস্তাম্বুলে আটকেপড়া ইতালি প্রবাসী

 জমির হোসেন, ইতালি থেকে 
১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:২৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

ইস্তাম্বুলে ছয় দিন আটকেপড়া ইতালি প্রবাসী মো. দিদারুল আলম রোম বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় ১৩ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামে তার বাড়িতে পৌঁছেন।

জানা গেছে, দিদারুলের একটু মানসিক সমস্যা ছিল। গত ৬ সেপ্টেম্বর তিনি বাংলাদেশের উদ্দেশে রোম বিমানবন্দর ত্যাগ করেন। তুর্কি বিমানবন্দর ইস্তাম্বুলে এসে পৌঁছলে তার পাসপোর্ট হারিয়ে যায়; এরপর সেখানে আটকে পড়েন তিনি। 

গত ছয় দিন পর রোম বাংলাদেশ দূতাবাসের সহযোগিতায় অবশেষে বাড়ি ফিরেছেন তিনি।

এ ব্যাপারে রোমে বাংলাদেশ দূতাবাসের কাউন্সেলর (শ্রম কল্যাণ)  মো. এরফানুল হক যুগান্তরকে জানান, বিষয়টি দূতাবাসকে গত ৯ সেপ্টেম্বর অবগত করেন কমিউনিটির এক নেতা। 

এরপর রোম বাংলাদেশ দূতাবাস দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে তুর্কিতে অবস্থিত বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল এবং টার্কিশ এয়ারলাইনসের সার্বিক সহযোগিতায় ১১ সেপ্টেম্বর তাকে বিমানবন্দরে শনাক্ত করা হয়। ১২ সেপ্টেম্বর রোববার ইস্তাম্বুল বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলের বিশেষ ব্যবস্থায় জরুরিভিত্তিতে ট্রাভেল পাস ইস্যু করা হয়। ১৩ সেপ্টেম্বর তিনি বাংলাদেশে যেতে সক্ষম হন।
 
তিনি আরও বলেন, আমরা সর্বদা চেষ্টা করি প্রবাসীদের সহযোগিতা দিতে। তাদের সমস্যা নিরসনে দূতাবাস সব সময় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেবে।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন