মালয়েশিয়ায় বড় শাস্তির মুখে ৪ বাংলাদেশি
jugantor
মালয়েশিয়ায় বড় শাস্তির মুখে ৪ বাংলাদেশি

  আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে  

১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৫৮:৫১  |  অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশি প্রবাসীকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবির দায়ে ৪ বাংলাদেশি ও একজন মালয়েশিয়ান নারী এখন আদালতের বিচারে মৃত্যুদণ্ড বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশের মুখোমুখি হয়েছেন। অপহরণ করা ওই বাংলাদেশিকে বাঁচাতে হলে ৫০ হাজার রিংগিত যা বাংলাদেশি ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছিল স্বজনের কাছে অপহরণকারীরা।

জানা যায়, ৩০ আগস্ট রাতে জালান দামাই মেওয়াহ ১ এর পাসার মিনি মার্কেটের (মুদির দোকান) সামনে থেকে বাংলাদেশি সোহেল রানা (৩৯) নামে এক যুবককে অপহরণ করে ওই ৫ অপহরণকারী। অভিযোগ পেয়ে স্থানীয় পুলিশ কাজাং টেকনোলজি শহরের একটি বাড়ি থেকে অপহৃত সোহেল রানাকে উদ্ধার করে। অপহরণকারী ৫ জন হলেন- বাংলাদেশি নাগরিক রায়হান হোসেন (২৮), সোরাফ মিয়া (৩৩), নুসরাত জাহান বিপাশা (২৬), মো. জসিম (৩২) ও তার মালয়েশিয়ান স্ত্রী ফরিদাহ জিয়া রমেশ(২৭)। তাদের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ার অপহরণ বিরোধী আইন ১৯৬১ এর ৩য় ধারার (ক) উপধারায় স্থানীয় পুলিশ অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ধারায় তাদের অপরাধ প্রমাণিত হলে আদালত মৃত্যুদণ্ড কিংবা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিতে পারেন এবং সঙ্গে দোররা মারার আদেশও হতে পারে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে। বিচারক নুরুল হুসনাহ আমরান এর বেঞ্চে মামলাটি পরিচালনা করা হচ্ছে। আসামি রায়হান ও জসিমের পক্ষের আইনজীবী ছিলেন মিস্টার তান চেং ইয়েং এবং অন্য তিন আসামির পক্ষে আদালতে কোনো আইনজীবীই ছিলেন না।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

মালয়েশিয়ায় বড় শাস্তির মুখে ৪ বাংলাদেশি

 আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে 
১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০১:৫৮ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় এক বাংলাদেশি প্রবাসীকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবির দায়ে ৪ বাংলাদেশি ও একজন মালয়েশিয়ান নারী এখন আদালতের বিচারে মৃত্যুদণ্ড বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশের মুখোমুখি হয়েছেন। অপহরণ করা ওই বাংলাদেশিকে বাঁচাতে হলে ৫০ হাজার রিংগিত যা বাংলাদেশি ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছিল স্বজনের কাছে অপহরণকারীরা।
 
জানা যায়, ৩০ আগস্ট রাতে জালান দামাই মেওয়াহ ১ এর পাসার মিনি মার্কেটের (মুদির দোকান) সামনে থেকে বাংলাদেশি সোহেল রানা (৩৯) নামে এক যুবককে অপহরণ করে ওই ৫ অপহরণকারী। অভিযোগ পেয়ে স্থানীয় পুলিশ কাজাং টেকনোলজি শহরের একটি বাড়ি থেকে অপহৃত সোহেল রানাকে উদ্ধার করে। অপহরণকারী ৫ জন হলেন- বাংলাদেশি নাগরিক রায়হান হোসেন (২৮), সোরাফ মিয়া (৩৩), নুসরাত জাহান বিপাশা (২৬), মো. জসিম (৩২) ও তার মালয়েশিয়ান স্ত্রী ফরিদাহ জিয়া রমেশ(২৭)। তাদের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ার অপহরণ বিরোধী আইন ১৯৬১ এর ৩য় ধারার (ক) উপধারায় স্থানীয় পুলিশ অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ধারায় তাদের অপরাধ প্রমাণিত হলে আদালত মৃত্যুদণ্ড কিংবা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিতে পারেন এবং সঙ্গে দোররা মারার আদেশও হতে পারে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে। বিচারক নুরুল হুসনাহ আমরান এর বেঞ্চে মামলাটি পরিচালনা করা হচ্ছে।  আসামি রায়হান ও জসিমের পক্ষের আইনজীবী ছিলেন মিস্টার তান চেং ইয়েং এবং অন্য তিন আসামির পক্ষে আদালতে কোনো আইনজীবীই ছিলেন না।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন