প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টার সঙ্গে সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রীর বৈঠক
jugantor
প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টার সঙ্গে সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রীর বৈঠক

  সাগর চৌধুরী, সৌদি আরব থেকে  

১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:৪৯:১৮  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্ব ও দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে সৌদি সরকার অত্যন্ত গুরুত্ব দেয় বলে জানিয়েছেন সৌদি আরবের বাণিজ্যমন্ত্রী ড. মাজিদ বিন আবদুল্লাহ আল কাসাবি।

তিনি ১৮ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবে সফররত প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান ও উচ্চপর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক ভার্চুয়াল আলোচনায় এ কথা বলেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান সৌদি বাদশাহ ও যুবরাজের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুভেচ্ছা বার্তা পৌঁছে দেন। তিনি বাংলাদেশের রূপকল্প ২০৪১ ও সৌদি রূপকল্প ২০৩০ বাস্তবায়নে আগামী দিনে সৌদি আরব ও বাংলাদেশের ব্যবসা বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন লাভজনক খাতে সৌদি বিনিয়োগের ওপর জোর দেন।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে তৈরি পোশাক পণ্য, চামড়াজাত পণ্য, প্লাস্টিক পণ্য, হিমায়িত মাছ ও ঔষধ আমদানি করা হয় উল্লেখ করে বলেন, সৌদি আরব চাইলে বাংলাদেশ থেকে হালাল মাংস আমাদানির জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করতে পারে। বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন পণ্য আমদানির মাধ্যমে দুই দেশের বাণিজ্য অসমতা দূর করা যেতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন। বর্তমানে সৌদি আরব ও বাংলাদেশের মধ্যে ১.৩ বিলিয়ন ডলারের বাণিজ্য হয়ে থাকে।

সালমান এফ রহমান ২০১৯ সালে সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি উচ্চপর্যায়ের সরকারি ও বেসরকারি প্রতিনিধি দলের বাংলাদেশ সফরের সময় দুই দেশের ব্যবসা বাণিজ্য বৃদ্ধির বিষয়ে স্বাক্ষরিত বিভিন্ন সমঝোতা স্মারকসমূহের পর্যালোচনা করে কার্যক্রম ত্বরান্বিত করার অনুরোধ জানান।

এ সকল সমঝোতা স্মারকসহ বাণিজ্য সহযোগিতার অন্যান্য ক্ষেত্রে পর্যালোচনা, সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও তার বাস্তবায়নে কার্যকর পদেক্ষেপ গ্রহণের জন্য একটি যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠনের প্রস্তাব দেন তিনি। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সৌদি মন্ত্রীকে জানান, সৌদি আরব চাইলে বাংলাদেশ সৌদি বিনিয়োগকারীদের জন্য বিশেষ ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠা করে বিশেষ সুবিধা দিতে প্রস্তুত রয়েছে।

দুই দেশের পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) বিষয়ে ২০১৮ সালে প্রস্তাবিত সমঝোতা স্মারকটি দ্রুত স্বাক্ষরের বিষয়ে সালমান এফ রহমান সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রীর সহযোগিতা চাইলে তিনি দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন।

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান সৌদি পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের (পিআইএফ) আওতায় বাংলাদেশের বিভিন্ন মেগা প্রকল্পে বিনিয়োগের বিষয়ে অনুরোধ জানালে সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রী ইতিবাচক মতামত প্রদান করেন। এ তহবিলের আওতায় তিনি বাংলাদেশে ঢাকা থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত রেলযোগাযোগ স্থাপন নির্মাণ ও কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।

সালমান এফ রহমান সৌদি আরবের বিদেশি অভিবাসীদের ব্যবসা বাণিজ্য বৈধভাবে করার লক্ষ্যে সৌদি সরকারের গৃহীত Anti Concealment Law এর বিষয়ে উল্লেখ করে বাংলাদেশি যে সকল অভিবাসী সৌদি আরবে ব্যবসা করছে তাদের সহায়তার জন্য সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রীকে অনুরোধ করেন।

এ বিষয়ে সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রী বলেন, বিদেশিদের সৌদি আরবে বৈধভাবে ব্যবসা বাণিজ্য করার বিষয়ে সৌদি সরকার সুযোগ দিয়েছে। এ প্রেক্ষিতে তারা তাদের ব্যবসা নিবন্ধনের মাধ্যমে বৈধভাবে সৌদি আরবে ব্যবসা করার সুযোগ পেয়েছে। সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের এ বিষয়ে সব সহায়তা করা হবে বলে তিনি জানান।

রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসে অনুষ্ঠিত এ ভার্চুয়াল সভায় সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) উপস্থিত ছিলেন।

সভায় বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন ও বাংলাদেশ সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুলতানা আফরোজসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান উচ্চপর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা ও একটি ব্যবসায়ী দল নিয়ে সরকারি সফরে সৌদি আরবে আছেন। তার সফরকালে তিনি দুই দেশের ব্যবসা বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির বিষয়ে কয়েকজন মন্ত্রীসহ বিভিন্ন উচ্চপর্যায়ের সরকারি-বেসরকারি সভায় অংশ নেবেন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টার সঙ্গে সৌদি বাণিজ্যমন্ত্রীর বৈঠক

 সাগর চৌধুরী, সৌদি আরব থেকে 
১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৪৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্ব ও দুই দেশের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে সৌদি সরকার অত্যন্ত গুরুত্ব দেয় বলে জানিয়েছেন সৌদি আরবের বাণিজ্যমন্ত্রী ড. মাজিদ বিন আবদুল্লাহ আল কাসাবি। 

তিনি ১৮ সেপ্টেম্বর সৌদি আরবে সফররত প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান ও উচ্চপর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক ভার্চুয়াল আলোচনায় এ কথা বলেন। 

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান সৌদি বাদশাহ ও যুবরাজের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শুভেচ্ছা বার্তা পৌঁছে দেন। তিনি বাংলাদেশের রূপকল্প ২০৪১ ও সৌদি রূপকল্প ২০৩০ বাস্তবায়নে আগামী দিনে সৌদি আরব ও বাংলাদেশের ব্যবসা বাণিজ্য বৃদ্ধি এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন লাভজনক খাতে সৌদি বিনিয়োগের ওপর জোর দেন। 

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা বাংলাদেশ থেকে বর্তমানে তৈরি পোশাক পণ্য, চামড়াজাত পণ্য, প্লাস্টিক পণ্য, হিমায়িত মাছ ও ঔষধ আমদানি করা হয় উল্লেখ করে বলেন, সৌদি আরব চাইলে বাংলাদেশ থেকে হালাল মাংস আমাদানির জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ গ্রহণ করতে পারে। বাংলাদেশ থেকে বিভিন্ন পণ্য আমদানির মাধ্যমে দুই দেশের বাণিজ্য অসমতা দূর করা যেতে পারে বলে তিনি উল্লেখ করেন। বর্তমানে সৌদি আরব ও বাংলাদেশের মধ্যে ১.৩ বিলিয়ন ডলারের বাণিজ্য হয়ে থাকে। 

সালমান এফ রহমান ২০১৯ সালে সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রীর নেতৃত্বে একটি উচ্চপর্যায়ের সরকারি ও বেসরকারি প্রতিনিধি দলের বাংলাদেশ সফরের সময় দুই দেশের ব্যবসা বাণিজ্য বৃদ্ধির বিষয়ে স্বাক্ষরিত বিভিন্ন সমঝোতা স্মারকসমূহের পর্যালোচনা করে কার্যক্রম ত্বরান্বিত করার অনুরোধ জানান। 

এ সকল সমঝোতা স্মারকসহ বাণিজ্য সহযোগিতার অন্যান্য ক্ষেত্রে পর্যালোচনা, সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও তার বাস্তবায়নে কার্যকর পদেক্ষেপ গ্রহণের জন্য একটি যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ গঠনের প্রস্তাব দেন তিনি। এ সময় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সৌদি মন্ত্রীকে জানান, সৌদি আরব চাইলে বাংলাদেশ সৌদি বিনিয়োগকারীদের জন্য বিশেষ ইকোনমিক জোন প্রতিষ্ঠা করে বিশেষ সুবিধা দিতে প্রস্তুত রয়েছে। 

দুই দেশের পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপের (পিপিপি) বিষয়ে ২০১৮ সালে প্রস্তাবিত সমঝোতা স্মারকটি দ্রুত স্বাক্ষরের বিষয়ে সালমান এফ রহমান সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রীর সহযোগিতা চাইলে তিনি দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন। 

প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান সৌদি পাবলিক ইনভেস্টমেন্ট ফান্ডের (পিআইএফ) আওতায় বাংলাদেশের বিভিন্ন মেগা প্রকল্পে বিনিয়োগের বিষয়ে অনুরোধ জানালে সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রী ইতিবাচক মতামত প্রদান করেন। এ তহবিলের আওতায় তিনি বাংলাদেশে ঢাকা থেকে পায়রা বন্দর পর্যন্ত রেলযোগাযোগ স্থাপন নির্মাণ ও কক্সবাজারকে আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে বিনিয়োগের আহ্বান জানান।
 
সালমান এফ রহমান সৌদি আরবের বিদেশি অভিবাসীদের ব্যবসা বাণিজ্য বৈধভাবে করার লক্ষ্যে সৌদি সরকারের গৃহীত Anti Concealment Law এর বিষয়ে উল্লেখ করে বাংলাদেশি যে সকল অভিবাসী সৌদি আরবে ব্যবসা করছে তাদের সহায়তার জন্য সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রীকে অনুরোধ করেন।

এ বিষয়ে সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রী বলেন, বিদেশিদের সৌদি আরবে বৈধভাবে ব্যবসা বাণিজ্য করার বিষয়ে সৌদি সরকার সুযোগ দিয়েছে। এ প্রেক্ষিতে তারা তাদের ব্যবসা নিবন্ধনের মাধ্যমে বৈধভাবে সৌদি আরবে ব্যবসা করার সুযোগ পেয়েছে। সৌদি বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে বাংলাদেশি ব্যবসায়ীদের এ বিষয়ে সব সহায়তা করা হবে বলে তিনি জানান। 

রিয়াদে বাংলাদেশ দূতাবাসে অনুষ্ঠিত এ ভার্চুয়াল সভায় সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) উপস্থিত ছিলেন। 

সভায় বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান মো. সিরাজুল ইসলাম, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চল কর্তৃপক্ষের নির্বাহী চেয়ারম্যান শেখ ইউসুফ হারুন ও বাংলাদেশ সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্ব কর্তৃপক্ষের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা সুলতানা আফরোজসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।   

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান উচ্চপর্যায়ের সরকারি কর্মকর্তা ও একটি ব্যবসায়ী দল নিয়ে সরকারি সফরে সৌদি আরবে আছেন। তার সফরকালে তিনি দুই দেশের ব্যবসা বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির বিষয়ে কয়েকজন মন্ত্রীসহ বিভিন্ন উচ্চপর্যায়ের সরকারি-বেসরকারি সভায় অংশ নেবেন।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন