বাংলাদেশিদের ড্রাইভিং টেস্ট ছাড়াই লাইসেন্স দেবে মালদ্বীপ
jugantor
বাংলাদেশিদের ড্রাইভিং টেস্ট ছাড়াই লাইসেন্স দেবে মালদ্বীপ

  মোহাম্মদ মাহামুদুল, মালদ্বীপ থেকে  

২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:৩৩:২৩  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে যাদের বাংলাদেশের বৈধ লাইসেন্স আছে, ড্রাইভিং টেস্ট পরীক্ষা ছাড়াই মালদ্বীপের একটি স্থায়ী ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু করার অনুমতি দিয়েছে মালদ্বীপের পরিবহন মন্ত্রণালয়। এমন সুযোগ আগে বাংলাদেশের নাগরিকদের ছিল না।

এ দেশের পরিবহন মন্ত্রণালয়ের জুলাই মাসে প্রকাশিত তালিকায় ও বাংলাদেশের নাগরিকদের নাম ছিল না, জুলাই মাসে ২৫টি দেশের নাম ছিল। সেপ্টেম্বর মাসে ২৬তম নামের তালিকায় বাংলাদেশের নাম যুক্ত হয়েছে।

বাংলাদেশের নাম যুক্ত হওয়ার পেছনে বর্তমান দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ নাজমুল হাসানের অগ্রণী ভূমিকা আছে বলে মনে করেন সাধারণ প্রবাসীরা।

মালদ্বীপের পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের আগের আইন অনুযায়ী বাংলাদেশের নাগরিকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স সংগ্রহ করতে একটি ড্রাইভিং স্কুলে ভর্তি হয়ে টেস্টের মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স সংগ্রহ করতে হতো, যা অনেক ব্যয়বহুল ছিল প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য।

বিদেশিদের ক্ষেত্রে বৈধ ভিসার কপি, পাসপোর্টের কপি এবং আবেদনকারীর নিজ দেশের বৈধ লাইসেন্সের কপি জমা দিতে হবে- জমা দেওয়া লাইসেন্স কপিসহ অন্যান্য কাগজপত্রের অবশ্যই মেয়াদ থাকতে হবে। এ লাইসেন্সের বৈধতা অনলাইনের যাচাই-বাছাই করা হবে।
বিদেশিদের ক্ষেত্রে যদি লাইসেন্স অনলাইনে যাচাই করা না যায়- তাহলে নিজ দেশের দূতাবাস থেকে একটি যাচাইকরণ নথি সংগ্রহ করতে হবে।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

বাংলাদেশিদের ড্রাইভিং টেস্ট ছাড়াই লাইসেন্স দেবে মালদ্বীপ

 মোহাম্মদ মাহামুদুল, মালদ্বীপ থেকে 
২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩৩ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রবাসী বাংলাদেশিদের মধ্যে যাদের বাংলাদেশের বৈধ লাইসেন্স আছে,  ড্রাইভিং টেস্ট পরীক্ষা ছাড়াই মালদ্বীপের একটি স্থায়ী ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু করার অনুমতি দিয়েছে  মালদ্বীপের পরিবহন মন্ত্রণালয়। এমন সুযোগ আগে বাংলাদেশের নাগরিকদের ছিল না।

এ দেশের পরিবহন মন্ত্রণালয়ের জুলাই মাসে প্রকাশিত তালিকায় ও বাংলাদেশের নাগরিকদের  নাম ছিল না, জুলাই মাসে  ২৫টি  দেশের নাম  ছিল। সেপ্টেম্বর মাসে ২৬তম নামের তালিকায় বাংলাদেশের নাম যুক্ত হয়েছে। 

বাংলাদেশের নাম যুক্ত হওয়ার পেছনে বর্তমান দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত রিয়ার অ্যাডমিরাল মোহাম্মদ নাজমুল হাসানের অগ্রণী ভূমিকা আছে বলে মনে করেন সাধারণ প্রবাসীরা।
 
মালদ্বীপের পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের আগের আইন অনুযায়ী বাংলাদেশের নাগরিকদের ড্রাইভিং লাইসেন্স সংগ্রহ করতে একটি ড্রাইভিং স্কুলে ভর্তি হয়ে টেস্টের মাধ্যমে ড্রাইভিং লাইসেন্স সংগ্রহ করতে হতো, যা অনেক ব্যয়বহুল ছিল প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য।

বিদেশিদের ক্ষেত্রে বৈধ ভিসার কপি, পাসপোর্টের কপি এবং আবেদনকারীর নিজ দেশের বৈধ লাইসেন্সের কপি জমা দিতে হবে- জমা দেওয়া লাইসেন্স কপিসহ অন্যান্য কাগজপত্রের অবশ্যই মেয়াদ থাকতে হবে। এ লাইসেন্সের বৈধতা অনলাইনের যাচাই-বাছাই করা হবে। 
বিদেশিদের ক্ষেত্রে যদি লাইসেন্স অনলাইনে যাচাই করা না যায়- তাহলে নিজ দেশের দূতাবাস থেকে একটি যাচাইকরণ নথি সংগ্রহ করতে হবে।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর