ফ্রাঙ্কফুর্টে বিশ্বের বৃহত্তম বইমেলা শুরু
jugantor
ফ্রাঙ্কফুর্টে বিশ্বের বৃহত্তম বইমেলা শুরু

  হাবিবুল্লাহ আল বাহার, জার্মানি থেকে  

২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:১৯:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্টে শুরু হয়েছে ৭৩তম ফ্রাঙ্কফুর্ট আন্তর্জাতিক বইমেলা। করোনা মহামারির কারণে এবারের বইমেলা পূর্বের তুলনায় অনেকটাই সীমিত পরিসরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবার ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলার ৭৩তম আয়োজনে ৮০টি দেশ থেকে দুই হাজার প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেছে।

বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারির কারনে গত বছর (২০২০) সালে ৭২তম বইমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছিল শুধু মাত্র ভার্চুয়ালি। সে বছর কবি, সাহিত্যিক আর প্রকাশকদের সর্ববৃহৎ এই মিলনমেলা বসার সুযোগ হয়নি। তাই এবার বইমেলার স্লোগান “রি কানেক্ট-ওয়েলকাম ব্যাক টু ফ্রাঙ্কফুর্ট”। ২০ অক্টোবর শুরু হয়ে ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে এবারের বইমেলা।

২০১৫ সাল থেকে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলায় অংশগ্রহণ করছে বাংলাদেশ। জার্মানিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর সাইফুল ইসলামের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে ৭৩তম ফ্রাঙ্কফুর্ট আন্তর্জাতিক বইমেলায় অংশগ্রহণ করেছে বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার মেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন উদ্বোধন করেছেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ এমপি। বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট কৃষি বিজ্ঞানী বাংলাদেশ কৃষি ইনস্টিটিউটের পরিচালক ড. সোহেলা আক্তার, একুশে পদকপ্রাপ্ত জার্মান প্রবাসী কবি নাজমুন নেসা পিয়ারি, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব অসীম কুমার দে, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক মিনার মনসুর, জার্মানির বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম, জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান মিডিয়া কর্মকর্তা নাসরীন জাহান লিপি, প্রতিমন্ত্রীর এপিএস ডা. মীর আনোয়ার হোসেনসহ প্রবাসী বাংলাদেশি সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ও মিডিয়া ব্যক্তিরা।

ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলায় বাংলাদেশের অংশগ্রহণ নিয়ে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দীর্ঘ সংগ্রাম ও ত্যাগের কথা স্মরণ করেন।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রকাশিত বিশেষ প্রকাশনা-পোস্টার-স্যুভেনির বাংলাদেশ স্টলে প্রদর্শিত হচ্ছে। এ বইমেলা উপলক্ষে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি প্রকাশ করেছে কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী সম্পাদিত Bangabandhu Sheikh Mujib, Bangladesh and Frankfurt Book Fair শীর্ষক একটি বিশেষ প্রকাশনা।

এদিকে ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলা উদ্বোধন উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে জার্মান পাবলিশার্স অ্যান্ড বুকসেলারস অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান কারিন শ্মিট-ফ্রিডরিখস বলেছেন, সামাজিক দূরত্ব মানে বই থেকে দূরে থাকা নয়। মহামারির সময়টি লোকেরা বাড়িতে পড়ার জন্য ব্যবহার করত।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

ফ্রাঙ্কফুর্টে বিশ্বের বৃহত্তম বইমেলা শুরু

 হাবিবুল্লাহ আল বাহার, জার্মানি থেকে 
২২ অক্টোবর ২০২১, ০১:১৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্টে শুরু হয়েছে ৭৩তম ফ্রাঙ্কফুর্ট আন্তর্জাতিক বইমেলা। করোনা মহামারির কারণে এবারের বইমেলা পূর্বের তুলনায় অনেকটাই সীমিত পরিসরে অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এবার ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলার ৭৩তম আয়োজনে ৮০টি দেশ থেকে দুই হাজার প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করেছে।

বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারির কারনে গত বছর (২০২০) সালে ৭২তম বইমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছিল শুধু মাত্র ভার্চুয়ালি। সে বছর কবি, সাহিত্যিক আর প্রকাশকদের সর্ববৃহৎ এই মিলনমেলা বসার সুযোগ হয়নি। তাই এবার বইমেলার স্লোগান “রি কানেক্ট-ওয়েলকাম ব্যাক টু ফ্রাঙ্কফুর্ট”। ২০ অক্টোবর শুরু হয়ে ২৪ অক্টোবর পর্যন্ত চলবে এবারের বইমেলা। 

২০১৫ সাল থেকে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলায় অংশগ্রহণ করছে বাংলাদেশ। জার্মানিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর সাইফুল ইসলামের সার্বিক তত্ত্বাবধায়নে ৭৩তম ফ্রাঙ্কফুর্ট আন্তর্জাতিক বইমেলায় অংশগ্রহণ করেছে বাংলাদেশ। বৃহস্পতিবার মেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন উদ্বোধন করেছেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কেএম খালিদ এমপি। বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট কৃষি বিজ্ঞানী বাংলাদেশ কৃষি ইনস্টিটিউটের পরিচালক ড. সোহেলা আক্তার, একুশে পদকপ্রাপ্ত জার্মান প্রবাসী কবি নাজমুন নেসা পিয়ারি, সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব অসীম কুমার দে, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের পরিচালক মিনার মনসুর, জার্মানির বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর সাইফুল ইসলাম, জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান মিডিয়া কর্মকর্তা নাসরীন জাহান লিপি, প্রতিমন্ত্রীর এপিএস ডা. মীর আনোয়ার হোসেনসহ প্রবাসী বাংলাদেশি সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ও মিডিয়া ব্যক্তিরা।

ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলায় বাংলাদেশের অংশগ্রহণ নিয়ে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। এতে সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দীর্ঘ সংগ্রাম ও ত্যাগের কথা স্মরণ করেন। 

জাতির পিতা  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রকাশিত বিশেষ প্রকাশনা-পোস্টার-স্যুভেনির বাংলাদেশ স্টলে প্রদর্শিত হচ্ছে। এ বইমেলা উপলক্ষে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি প্রকাশ করেছে কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী সম্পাদিত Bangabandhu Sheikh Mujib, Bangladesh and Frankfurt Book Fair  শীর্ষক একটি বিশেষ প্রকাশনা। 

এদিকে ফ্রাঙ্কফুর্ট বইমেলা উদ্বোধন উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে জার্মান পাবলিশার্স অ্যান্ড বুকসেলারস অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান কারিন শ্মিট-ফ্রিডরিখস বলেছেন, সামাজিক দূরত্ব মানে বই থেকে দূরে থাকা নয়। মহামারির সময়টি লোকেরা বাড়িতে  পড়ার জন্য ব্যবহার করত। 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন