মালয়েশিয়ায় জোরপূর্বক শ্রম সমস্যা সমাধানে কমিটি
jugantor
মালয়েশিয়ায় জোরপূর্বক শ্রম সমস্যা সমাধানে কমিটি

  আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে  

১৪ মে ২০২২, ০১:৫৯:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় জোরপূর্বক শ্রম সমস্যা সমাধানে কমিটি গঠন করা হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তার শুল্ক ও সীমান্ত সুরক্ষা বিভাগের মাধ্যমে (ইউএস সিবিপি) একটি ওয়ার্কিং কমিটি গঠনের মাধ্যমে জোরপূর্বক শ্রমের সমস্যা মোকাবিলায় মালয়েশিয়া সরকারের সঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়েছে। ১৩ মে শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান বলেছেনকমিটি তথ্য আদান-প্রদানের ওপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করবে, যার মধ্যে নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে; যা জোরপূর্বক শ্রম রোধে দেশের উদ্যোগকে সমর্থন করতে পারে সে বিষয়ে প্রতি তিন মাস অন্তর বৈঠক করবে।

ওয়াশিংটনে সফররত মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী এম সারাভানান বলেছেন, ইউএস সিবিপি চলতি মাসের শেষের দিকে মালয়েশিয়ায় একটি কর্ম সফর করবে এবং দেশের শিল্প মালিকদের সাথে একটি কর্মশালা করবে।
সারাভানান বলেছেন, কর্মক্ষম সফর জোরপূর্বক শ্রম রোধে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার সুযোগ উন্মুক্ত করেছে এবং সেই সাথে জোরপূর্বক শ্রম ও শিশুশ্রম সমস্যা মোকাবেলায় মালয়েশিয়ার মুখোমুখি চ্যালেঞ্জগুলো আরও ভালোভাবে বোঝার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য একটি প্ল্যাটফর্ম হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র মালয়েশিয়া সরকারের প্রচেষ্টার গভীরভাবে প্রশংসা করে এবং জোরপূর্বক শ্রমের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কৌশলগত সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে প্রস্তত।

ওভারটাইম এবং মজুরি আটকে রাখা বিষয়ে মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগগুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ইউএস ডিওএলের সঙ্গে সহযোগিতার বিষয়ে সারাভানান বলছেন- প্রযুক্তি স্থানান্তর সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং শিক্ষানবিশ প্রোগ্রামগুলোতে তার দক্ষতা ভাগ করে নিতে সম্মত হয়েছে। বিভাগটি পরামর্শ দিয়েছে মালয়েশিয়া শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়নের গুরুত্ব সম্পর্কে এক্সপোজার প্রদান করে এটি ট্রেড ইউনিয়ন আইন ১৯৫৯ এর সংশোধনীর সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ; যা জুলাই মাসে সংসদে পেশ করা হবে।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

মালয়েশিয়ায় জোরপূর্বক শ্রম সমস্যা সমাধানে কমিটি

 আহমাদুল কবির, মালয়েশিয়া থেকে 
১৪ মে ২০২২, ০১:৫৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় জোরপূর্বক শ্রম সমস্যা সমাধানে কমিটি গঠন করা হয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তার শুল্ক ও সীমান্ত সুরক্ষা বিভাগের মাধ্যমে (ইউএস সিবিপি) একটি ওয়ার্কিং কমিটি গঠনের মাধ্যমে জোরপূর্বক শ্রমের সমস্যা মোকাবিলায় মালয়েশিয়া সরকারের সঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়েছে। ১৩ মে শুক্রবার এক বিবৃতিতে বলেছেন, মানবসম্পদ মন্ত্রী দাতুক সেরি এম সারাভানান বলেছেনকমিটি তথ্য আদান-প্রদানের ওপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করবে, যার মধ্যে নীতিমালা প্রণয়ন করা হবে; যা জোরপূর্বক শ্রম রোধে দেশের উদ্যোগকে সমর্থন করতে পারে সে বিষয়ে প্রতি তিন মাস অন্তর বৈঠক করবে।

ওয়াশিংটনে সফররত মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী এম সারাভানান বলেছেন, ইউএস সিবিপি চলতি মাসের শেষের দিকে মালয়েশিয়ায় একটি কর্ম সফর করবে এবং দেশের শিল্প মালিকদের সাথে একটি কর্মশালা করবে।
সারাভানান বলেছেন, কর্মক্ষম সফর জোরপূর্বক শ্রম রোধে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার সুযোগ উন্মুক্ত করেছে এবং সেই সাথে জোরপূর্বক শ্রম ও শিশুশ্রম সমস্যা মোকাবেলায় মালয়েশিয়ার মুখোমুখি চ্যালেঞ্জগুলো আরও ভালোভাবে বোঝার জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের জন্য একটি প্ল্যাটফর্ম হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্র মালয়েশিয়া সরকারের প্রচেষ্টার গভীরভাবে প্রশংসা করে এবং জোরপূর্বক শ্রমের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে কৌশলগত সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে প্রস্তত।

ওভারটাইম এবং মজুরি আটকে রাখা বিষয়ে মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগগুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে। ইউএস ডিওএলের সঙ্গে সহযোগিতার বিষয়ে সারাভানান বলছেন- প্রযুক্তি স্থানান্তর সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং শিক্ষানবিশ প্রোগ্রামগুলোতে তার দক্ষতা ভাগ করে নিতে সম্মত হয়েছে। বিভাগটি পরামর্শ দিয়েছে মালয়েশিয়া শ্রমিকদের ট্রেড ইউনিয়নের গুরুত্ব সম্পর্কে এক্সপোজার প্রদান করে এটি ট্রেড ইউনিয়ন আইন ১৯৫৯ এর সংশোধনীর সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ; যা জুলাই মাসে সংসদে পেশ করা হবে।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন
আরও খবর