মালদ্বীপে আইএলওর সঙ্গে প্রবাসীদের সমস্যা নিয়ে আলোচনা
jugantor
মালদ্বীপে আইএলওর সঙ্গে প্রবাসীদের সমস্যা নিয়ে আলোচনা

  মোহাম্মদ মাহামুদুল, মালদ্বীপ থেকে  

১৮ মে ২০২২, ০১:১৪:৪৮  |  অনলাইন সংস্করণ

মঙ্গলবার (১৬ মে) রাজধানী মালেতে বাংলাদেশ হাইকমিশনে কান্ট্রি ডিরেক্টর সিমরিন সি সিংয়ের নেতৃত্বে আইএলওর প্রতিনিধি দলের সঙ্গে হাইকমিশনার রিয়ার অ্যাডমিরাল এসএম আবুল কালাম আজাদ সৌজন্য বৈঠকে মিলিত হন।

মালদ্বীপ সরকারের প্রবাসী কর্মী সংক্রান্ত ভবিষ্যত পলিসি নির্ধারণের অংশ হিসেবে আইএলও প্রতিনিধি দল হাইকমিশনারের সঙ্গে এই বৈঠক করেন।

বৈঠকে মালদ্বীপে কর্মরত বাংলাদেশিসহ প্রবাসীদের বিভিন্ন বিষয় যেমন বেতন-ভাতা, ভিসা, আবাসন, চিকিৎসাসহ বিভিন্ন বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়।

এছাড়া বৈঠকে কাগজপত্রহীন (আন-ডকুমেন্টেড) প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের দ্রুত বৈধকরণ সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা হয়।

মালদ্বীপে বাংলাদেশি কর্মিদের কল্যাণ ও সমস্যা নিরসনের ক্ষেত্রে মালদ্বীপ সরকারকে সহযোগিতা প্রদান ও একযোগে কাজ করবে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা আইএলও এবং বাংলাদেশ হাইকমিশন।

দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) মো. সোহেল পারভেজ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

২০০৯ সালে আইএলওতে মালদ্বীপ যোগদান করে। দেশটির অভিবাসী শ্রমের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উৎস হলো বাংলাদেশ, এরপর ভারত ও শ্রীলঙ্কা। বৈধ এবং কাগজপত্রহীন মিলিয়ে প্রায় এক লাখ বাংলাদেশি কর্মি আছেন দেশটিতে।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

মালদ্বীপে আইএলওর সঙ্গে প্রবাসীদের সমস্যা নিয়ে আলোচনা

 মোহাম্মদ মাহামুদুল, মালদ্বীপ থেকে 
১৮ মে ২০২২, ০১:১৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

মঙ্গলবার (১৬ মে) রাজধানী মালেতে বাংলাদেশ হাইকমিশনে কান্ট্রি ডিরেক্টর সিমরিন সি সিংয়ের নেতৃত্বে আইএলওর প্রতিনিধি দলের সঙ্গে হাইকমিশনার রিয়ার অ্যাডমিরাল এসএম আবুল কালাম আজাদ সৌজন্য বৈঠকে মিলিত হন।

মালদ্বীপ সরকারের প্রবাসী কর্মী সংক্রান্ত ভবিষ্যত পলিসি নির্ধারণের অংশ হিসেবে আইএলও প্রতিনিধি দল হাইকমিশনারের সঙ্গে এই বৈঠক করেন।

বৈঠকে মালদ্বীপে কর্মরত বাংলাদেশিসহ প্রবাসীদের বিভিন্ন বিষয় যেমন বেতন-ভাতা, ভিসা, আবাসন, চিকিৎসাসহ বিভিন্ন বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়।

এছাড়া বৈঠকে কাগজপত্রহীন (আন-ডকুমেন্টেড) প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের দ্রুত বৈধকরণ সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা হয়।

মালদ্বীপে বাংলাদেশি কর্মিদের কল্যাণ ও সমস্যা নিরসনের ক্ষেত্রে মালদ্বীপ সরকারকে সহযোগিতা প্রদান ও একযোগে কাজ করবে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থা আইএলও এবং বাংলাদেশ হাইকমিশন।

দূতাবাসের প্রথম সচিব (শ্রম) মো. সোহেল পারভেজ বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

২০০৯ সালে আইএলওতে মালদ্বীপ যোগদান করে। দেশটির অভিবাসী শ্রমের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উৎস হলো বাংলাদেশ, এরপর ভারত ও শ্রীলঙ্কা। বৈধ এবং কাগজপত্রহীন মিলিয়ে প্রায় এক লাখ বাংলাদেশি কর্মি আছেন দেশটিতে।
 

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন