আবুধাবিতে শেখ কামালের ৭৩তম জন্মদিন পালিত 
jugantor
আবুধাবিতে শেখ কামালের ৭৩তম জন্মদিন পালিত 

  ওবায়দুল হক মানিক, আমিরাত থেকে  

০৭ আগস্ট ২০২২, ০১:০৫:০৭  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ দূতাবাস আবুধাবিতে রাষ্ট্রদূত আবু জাফরের সভাপতিত্বে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠপুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করা হয়েছে।

এ অনুষ্ঠানে দূতাবাসের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বাংলাদেশ বিমান এবং জনতা ব্যাংকের প্রতিনিধি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশনের নেতা, বাংলাদেশ স্কুলের প্রতিনিধি, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার স্থানীয় প্রতিনিধি এবং প্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। পবিত্র কুরআন হতে তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়।

পরে মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক প্রেরিত বাণী পাঠ করে শোনানো হয়। পরবর্তীতে শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের কর্মময় জীবনের ওপর প্রামাণ্য চিত্র “এক আলোর পথযাত্রী-শেখ কামাল” প্রদর্শন করা হয়।

বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনায় সুধীজন বাংলাদেশের উন্নয়নে তার অবদানের বিষয়ে বক্তব্য তুলে ধরেন। বিশেষ করে বাংলাদেশের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে শেখ কামালের সুদূরপ্রসারী ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন। বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনকে আন্তর্জাতিকমানে উন্নীত করার অভিযাত্রায় তার প্রদর্শিত পথ, আদর্শ এবং দিক-নির্দেশনা আজও এক অনুকরণীয় মডেল মর্মে বক্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন।

রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে বলেন, বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল বাংলাদেশের সব স্বাধিকার আন্দোলনে অংশগ্রহণসহ মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক হিসেবে ছাত্রসমাজকে সংগঠিত করে মহান মুক্তিযুদ্ধে সম্মুখসমরে অংশগ্রহণ করেন। তিনি আরও জানান, স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে শেখ কামালের অবদান অনস্বীকার্য।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

আবুধাবিতে শেখ কামালের ৭৩তম জন্মদিন পালিত 

 ওবায়দুল হক মানিক, আমিরাত থেকে 
০৭ আগস্ট ২০২২, ০১:০৫ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ দূতাবাস আবুধাবিতে রাষ্ট্রদূত আবু জাফরের সভাপতিত্বে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠপুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের ৭৩তম জন্মবার্ষিকী যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করা হয়েছে। 

এ অনুষ্ঠানে দূতাবাসের সব কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ বাংলাদেশ বিমান এবং জনতা ব্যাংকের প্রতিনিধি, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশনের নেতা, বাংলাদেশ স্কুলের প্রতিনিধি, প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার স্থানীয় প্রতিনিধি এবং প্রবাসী বাংলাদেশি কমিউনিটির গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন। পবিত্র কুরআন হতে তেলাওয়াতের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সূচনা হয়।

পরে মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক প্রেরিত বাণী পাঠ করে শোনানো হয়। পরবর্তীতে শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের কর্মময় জীবনের ওপর প্রামাণ্য চিত্র “এক আলোর পথযাত্রী-শেখ কামাল” প্রদর্শন করা হয়। 

বীর মুক্তিযোদ্ধা শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনায় সুধীজন বাংলাদেশের উন্নয়নে তার অবদানের বিষয়ে বক্তব্য তুলে ধরেন। বিশেষ করে বাংলাদেশের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে শেখ কামালের সুদূরপ্রসারী ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন। বাংলাদেশের ক্রীড়াঙ্গনকে আন্তর্জাতিকমানে উন্নীত করার অভিযাত্রায় তার প্রদর্শিত পথ, আদর্শ এবং দিক-নির্দেশনা আজও এক অনুকরণীয় মডেল মর্মে বক্তারা অভিমত ব্যক্ত করেন।

রাষ্ট্রদূত তার বক্তব্যে বলেন, বহুমাত্রিক প্রতিভার অধিকারী শহিদ ক্যাপ্টেন শেখ কামাল বাংলাদেশের সব স্বাধিকার আন্দোলনে অংশগ্রহণসহ মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক হিসেবে ছাত্রসমাজকে সংগঠিত করে মহান মুক্তিযুদ্ধে সম্মুখসমরে অংশগ্রহণ করেন। তিনি আরও জানান, স্বাধীনতা পরবর্তী বাংলাদেশের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক আন্দোলনে শেখ কামালের অবদান অনস্বীকার্য।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন