কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতীয় শোক দিবস পালন
jugantor
কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতীয় শোক দিবস পালন

  সাদেক রিপন, কুয়েত থেকে  

১৬ আগস্ট ২০২২, ২১:৪২:১৩  |  অনলাইন সংস্করণ

যথাযথ মর্যাদা ও বিনম্র শ্রদ্ধায় কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে সোমবার সকালে দূতাবাস প্রাঙ্গণে দূতাবাসের কর্মকর্তা, কর্মচারী ও বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতাদের সঙ্গে নিয়ে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করেন রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আসিকুজ্জামান। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শাহাদাত বরণকারী সবার স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের সদস্যদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

পরে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রশাসনিক কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় হলরুমে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করা হয়। এরপর রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাণী পাঠ করে শোনান দূতাবাসের কর্মকর্তারা। শোক দিবসের তাৎপর্য্যের ওপর প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

এ সময় প্রথম সচিব দূতালয় নিয়াজ মোরশেদ, শ্রম কাউন্সিলর আবুল হোসেন, প্রথম সচিব পাসপোর্ট ও ভিসা ইকবাল আখতারসহ কুয়েতের কমিউনিটি নেতা, বিভিন্ন সাহিত্য সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা এবং বাংলাদেশি বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতীয় শোক দিবস পালন

 সাদেক রিপন, কুয়েত থেকে 
১৬ আগস্ট ২০২২, ০৯:৪২ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

যথাযথ মর্যাদা ও বিনম্র শ্রদ্ধায় কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭তম শাহাদতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালিত হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে সোমবার সকালে দূতাবাস প্রাঙ্গণে দূতাবাসের কর্মকর্তা, কর্মচারী ও বাংলাদেশ কমিউনিটির নেতাদের সঙ্গে নিয়ে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করেন রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আসিকুজ্জামান। বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে শাহাদাত বরণকারী সবার স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। বঙ্গবন্ধুসহ তার পরিবারের সদস্যদের আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও মোনাজাত করা হয়।

পরে বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রশাসনিক কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলমের সঞ্চালনায় হলরুমে জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করা হয়। এরপর রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাণী পাঠ করে শোনান দূতাবাসের কর্মকর্তারা। শোক দিবসের তাৎপর্য্যের ওপর প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়।

এ সময় প্রথম সচিব দূতালয় নিয়াজ মোরশেদ, শ্রম কাউন্সিলর আবুল হোসেন, প্রথম সচিব পাসপোর্ট ও ভিসা ইকবাল আখতারসহ কুয়েতের কমিউনিটি নেতা, বিভিন্ন সাহিত্য সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতা এবং বাংলাদেশি বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন