নিংশিয়াতে ‘চায়না ইন মাই আইস’ সেমিনার
jugantor
নিংশিয়াতে ‘চায়না ইন মাই আইস’ সেমিনার

  সাব্বির আহম্মেদ, চীন থেকে  

১১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:৫৬:২১  |  অনলাইন সংস্করণ

উত্তর-পশ্চিম চীনের মুসলিম অধ্যুষিত স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল নিংশিয়াতে ‘চায়না ইন
মাই আইস’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সেমিনারের উদ্দেশ্য হলো পৃথিবীর অন্যান্য দেশগুলোর সঙ্গে চীনের পারস্পরিক
সহযোগিতা প্রচার করা এবং চীনকে আরও সত্যিকারের, ব্যাপকভাবে এবং
বস্তুনিষ্ঠভাবে বোঝা।
৮ সেপ্টেম্বর বিকালে ফরেন অ্যাফেয়ার্স অফিস অব দ্য পিপলস গভর্নমেন্ট অব
নিংশিয়া হুই অটোনমাস রিজিওনের সহযোগিতায় সেমিনারটি আয়োজন করে দ্য চাইনিজ
পিপলস অ্যাসোসিয়েশন ফর ফ্রেন্ডশিপ উইথ ফরেন কান্ট্রিস।
সেমিনারে উদ্বোধনী বক্তব্য দেন দ্য চাইনিজ পিপলস অ্যাসোসিয়েশন ফর ফ্রেন্ডশিপ
উইথ ফরেন কান্ট্রিসের সভাপতি অ্যাম্বাসেডর লিন সংথিয়ান। সেমিনারটি পরিচালনা
করেন ফরেন অ্যাফেয়ার্স অফিস অব দ্য পিপলস গভর্নমেন্ট অব নিংশিয়া হুই
অটোনমাস রিজিওনের মহাপরিচালক বাই ইউঝেন।
চীনে উরুগুয়ের রাষ্ট্রদূত ফার্নান্দো লুগ্রিস, মরিশাসের রাষ্ট্রদূত অ্যালাইন ওং,
শ্রীলংকার রাষ্ট্রদূত পলিথা কোহোনা, নেপালের রাষ্ট্রদূত বিষ্ণু পুকার শ্রেষ্ঠা
সেমিনারে অংশ নেন।
সভাপতি অ্যাম্বাসেডর লিন সংথিয়ান বলেন, উন্নয়ন হচ্ছে সকল সমস্যা সমাধানের
‘সোনার চাবিকাঠি’ এবং বিশ্বের মানুষের সাধারণ সাধনা। উন্নয়নের আমরা
স্থিতিশীলতা ছাড়া করতে পারি না, স্থিতিশীলতা অর্জন আমরা সামাজিক সংহতি ছাড়া
করতে পারি না। সংহতি এবং সমৃদ্ধি অর্জনের জন্য আমাদের অবশ্যই সমাজতন্ত্রের
প্রাতিষ্ঠানিক সুবিধার প্রতি পূর্ণ মনোযোগ দিতে হবে। যতদিন আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকি
এবং উন্নয়নে অঙ্গীকারবদ্ধ থাকি, ততদিন সবই সম্ভব। নতুন যুগে চীনের মহান
অর্জনগুলো ১.৪ বিলিয়নেরও বেশি চীনা জনগণের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার ফল।
তাছাড়া তিনি নিংশিয়া হুই স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের জনগণের সরকারকে দারিদ্র্য
বিমোচন, পরিবেশ সংরক্ষণ এবং সবুজ উন্নয়ন, বিগ ডেটা সেন্টার এবং ব্যবস্থাপনা,

জ্বালানি, কৃষি এবং ভারি শিল্পের ক্ষেত্রে বাংলাদেশেকে সহযোগিতা করার জন্য
অনুরোধ করেন।
বাংলাদেশসহ এশিয়ান, আফ্রিকান এবং লাতিন আমেরিকার কূটনৈতিক দূত, যুব
প্রতিনিধি, চীনে বহুজাতিক কোম্পানির সিনিয়র এক্সিকিউটিভ, মিডিয়া প্রতিনিধিরা এ
সেমিনারে অংশ নেন। তারা নিংশিয়ার দারিদ্র্য বিমোচন ও উন্নয়ন, উদ্ভাবন-চালিত
উন্নয়ন ও সবুজ উন্নয়ন, ডাটাবেস ব্যবস্থাপনা এবং উদ্ভাবনী ধারণা, ডিজিটাল
অর্থনীতি নিয়ে সেমিনারে কথা বলেন।
সেমিনারের আগে ৫ থেকে ৭ সেপ্টেম্বর প্রতিনিধিরা নিংশিয়ার উন্নয়ন কার্যক্রম
এবং অন্যান্য সাইট পরিদর্শন করেন, যাতে নিংশিয়ার উন্নয়নের বাস্তব অভিজ্ঞতা
অর্জন করে নিজ দেশে কৌশলগুলো প্রয়োগ করতে পারে।
এশিয়া, আফ্রিকা ও লাতিন আমেরিকার কূটনীতিক, যুব প্রতিনিধি, চীনে বহুজাতিক
কোম্পানির সিনিয়র এক্সিকিউটিভ, মিডিয়া প্রতিনিধিরা এ সেমিনারে অংশ নেন। তারা
নিংশিয়ার দারিদ্র্য বিমোচন ও উন্নয়ন, উদ্ভাবন-চালিত উন্নয়ন ও সবুজ উন্নয়ন,
ডাটাবেস ব্যবস্থাপনা এবং উদ্ভাবনী ধারণা, ডিজিটাল অর্থনীতি নিয়ে সেমিনারে কথা

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

নিংশিয়াতে ‘চায়না ইন মাই আইস’ সেমিনার

 সাব্বির আহম্মেদ, চীন থেকে 
১১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:৫৬ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

উত্তর-পশ্চিম চীনের মুসলিম অধ্যুষিত স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চল নিংশিয়াতে ‘চায়না ইন
মাই আইস’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে।
সেমিনারের উদ্দেশ্য হলো পৃথিবীর অন্যান্য দেশগুলোর সঙ্গে চীনের পারস্পরিক
সহযোগিতা প্রচার করা এবং চীনকে আরও সত্যিকারের, ব্যাপকভাবে এবং
বস্তুনিষ্ঠভাবে বোঝা।
৮ সেপ্টেম্বর বিকালে ফরেন অ্যাফেয়ার্স অফিস অব দ্য পিপলস গভর্নমেন্ট অব
নিংশিয়া হুই অটোনমাস রিজিওনের সহযোগিতায় সেমিনারটি আয়োজন করে দ্য চাইনিজ
পিপলস অ্যাসোসিয়েশন ফর ফ্রেন্ডশিপ উইথ ফরেন কান্ট্রিস।
সেমিনারে উদ্বোধনী বক্তব্য দেন দ্য চাইনিজ পিপলস অ্যাসোসিয়েশন ফর ফ্রেন্ডশিপ
উইথ ফরেন কান্ট্রিসের সভাপতি অ্যাম্বাসেডর লিন সংথিয়ান। সেমিনারটি পরিচালনা
করেন ফরেন অ্যাফেয়ার্স অফিস অব দ্য পিপলস গভর্নমেন্ট অব নিংশিয়া হুই
অটোনমাস রিজিওনের মহাপরিচালক বাই ইউঝেন।
চীনে উরুগুয়ের রাষ্ট্রদূত ফার্নান্দো লুগ্রিস, মরিশাসের রাষ্ট্রদূত অ্যালাইন ওং,
শ্রীলংকার রাষ্ট্রদূত পলিথা কোহোনা, নেপালের রাষ্ট্রদূত বিষ্ণু পুকার শ্রেষ্ঠা
সেমিনারে অংশ নেন।
সভাপতি অ্যাম্বাসেডর লিন সংথিয়ান বলেন, উন্নয়ন হচ্ছে সকল সমস্যা সমাধানের
‘সোনার চাবিকাঠি’ এবং বিশ্বের মানুষের সাধারণ সাধনা। উন্নয়নের আমরা
স্থিতিশীলতা ছাড়া করতে পারি না, স্থিতিশীলতা অর্জন আমরা সামাজিক সংহতি ছাড়া
করতে পারি না। সংহতি এবং সমৃদ্ধি অর্জনের জন্য আমাদের অবশ্যই সমাজতন্ত্রের
প্রাতিষ্ঠানিক সুবিধার প্রতি পূর্ণ মনোযোগ দিতে হবে। যতদিন আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকি
এবং উন্নয়নে অঙ্গীকারবদ্ধ থাকি, ততদিন সবই সম্ভব। নতুন যুগে চীনের মহান
অর্জনগুলো ১.৪ বিলিয়নেরও বেশি চীনা জনগণের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার ফল।
তাছাড়া তিনি নিংশিয়া হুই স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলের জনগণের সরকারকে দারিদ্র্য
বিমোচন, পরিবেশ সংরক্ষণ এবং সবুজ উন্নয়ন, বিগ ডেটা সেন্টার এবং ব্যবস্থাপনা,

জ্বালানি, কৃষি এবং ভারি শিল্পের ক্ষেত্রে বাংলাদেশেকে সহযোগিতা করার জন্য
অনুরোধ করেন।
বাংলাদেশসহ এশিয়ান, আফ্রিকান এবং লাতিন আমেরিকার কূটনৈতিক দূত, যুব
প্রতিনিধি, চীনে বহুজাতিক কোম্পানির সিনিয়র এক্সিকিউটিভ, মিডিয়া প্রতিনিধিরা এ
সেমিনারে অংশ নেন। তারা নিংশিয়ার দারিদ্র্য বিমোচন ও উন্নয়ন, উদ্ভাবন-চালিত
উন্নয়ন ও সবুজ উন্নয়ন, ডাটাবেস ব্যবস্থাপনা এবং উদ্ভাবনী ধারণা, ডিজিটাল
অর্থনীতি নিয়ে সেমিনারে কথা বলেন।
সেমিনারের আগে ৫ থেকে ৭ সেপ্টেম্বর প্রতিনিধিরা নিংশিয়ার উন্নয়ন কার্যক্রম
এবং অন্যান্য সাইট পরিদর্শন করেন, যাতে নিংশিয়ার উন্নয়নের বাস্তব অভিজ্ঞতা
অর্জন করে নিজ দেশে কৌশলগুলো প্রয়োগ করতে পারে।
এশিয়া, আফ্রিকা ও লাতিন আমেরিকার কূটনীতিক, যুব প্রতিনিধি, চীনে বহুজাতিক
কোম্পানির সিনিয়র এক্সিকিউটিভ, মিডিয়া প্রতিনিধিরা এ সেমিনারে অংশ নেন। তারা
নিংশিয়ার দারিদ্র্য বিমোচন ও উন্নয়ন, উদ্ভাবন-চালিত উন্নয়ন ও সবুজ উন্নয়ন,
ডাটাবেস ব্যবস্থাপনা এবং উদ্ভাবনী ধারণা, ডিজিটাল অর্থনীতি নিয়ে সেমিনারে কথা

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন