গ্রিসে তিন দিনব্যাপী চিত্রশিল্প প্রদর্শনী ‘বাংলাদেশের সুর’
jugantor
গ্রিসে তিন দিনব্যাপী চিত্রশিল্প প্রদর্শনী ‘বাংলাদেশের সুর’

  জাকির হোসাইন চৌধুরী, গ্রিস থেকে  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:২৪:৩০  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ দূতাবাসের আয়োজনে ২১-২৩ সেপ্টেম্বর এথেন্সের পালিও ইপ্সিখিকু পৌরসভার লেপা আর্ট গ্যালারিতে বাংলাদেশ থেকে আগত ১৩ জন বাংলাদেশি চিত্রশিল্পীর আঁকা তিন দিনব্যাপী চিত্রশিল্প প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। বিশিষ্ট বাংলাদেশি চিত্রশিল্পীদের আঁকা বেশ কয়েকটি বিশেষ শিল্পকর্ম স্থান পেয়েছে ‘বাংলাদেশের সুর’ শীর্ষক এ প্রদর্শনীতে।

বাংলাদেশ ও গ্রিস বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন করছে। স্থানীয় মেয়রের সহায়তায় প্রদর্শনীতে গ্রিক চিত্রশিল্পী এবং স্থানীয় গ্রিক বাসিন্দারা উৎসাহ-উদ্দীপনা আর আগ্রহের সাথে প্রদর্শনীর সব শৈল্পিক চিত্র উপভোগ করেন। গ্রিস-বাংলাদেশের পঞ্চাশ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিভিন্ন প্রোগ্রাম এবং কার্যক্রমের অংশ বিশেষ তুলে ধরা হয়েছে প্রদর্শনীতে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন আর্টস বিভাগের অধ্যাপিকা রোকেয়া সুলতানা বলেন, বাংলাদেশের শিল্পকলার একটি সমৃদ্ধ ঐতিহ্য রয়েছে এবং দেশের নামকরা শিল্পীদের সৃজনশীল ও স্বাতন্ত্র্যের মাধ্যমে দেশের স্পন্দন অনুভব করা যায়। আমরা আন্তরিকভাবে বিশ্বাস করি যে শিল্প প্রদর্শনী বাংলাদেশ ও গ্রিসের মধ্যে সাংস্কৃতিক বন্ধনকে আরও দৃঢ় করতে অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

‘বাংলাদেশের সুর’ শুধুমাত্র গ্রিস, পাশ্চাত্য সংস্কৃতি ও সভ্যতার জন্মস্থানের শিল্প-অনুসন্ধানীদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়, বরং এর ছোঁয়া পাওয়ার এক বিরল সুযোগও দেবে দূতাবাসের এ আয়োজন। গ্রিসে আমাদের সমৃদ্ধ প্রবাসীদের কাছে বাংলাদেশ বলে মনে করছেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিশিষ্টজনরা।

বাংলাদেশ থেকে আরও অংশগ্রহণ করেছেন চিত্রশিল্পী সুলতানুল ইসলাম, দিলরুবা লতিফ, সঞ্জীব দাস অপু, মারজিয়া বেগম, রিফাত জাহান কাঁটা, মুক্তি ভৌমিক, শাহীন সোহানা সুরভী, মহম্মদ মেহেদী হাসান, নাজমুন আক্তার কাকলি, জিনাত জুলফিকার সবি, জান্নাত কেয়া, হাসুরা আখতার রুমকি।

এছাড়া স্থানীয় বাংলাদেশ কমিউনিটির সভাপতি হাজী আব্দুল কুদ্দুস, বাংলা-গ্রিক শিক্ষা কেন্দ্রের সভাপতি দাদন মৃধা, সাবেক সভাপতি আব্দুস সালাম শেখ, দোয়েল সংগঠনের প্রধান আহব্বায়ক টিটু মহসিনসহ দোয়েল সাংস্কৃতিক সংগঠনের সব কলাকুশলী উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ তার বাসভবনে অতিথিদের জন্য একটি সম্মানসূচক নৈশভোজের আয়োজন করেন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]

গ্রিসে তিন দিনব্যাপী চিত্রশিল্প প্রদর্শনী ‘বাংলাদেশের সুর’

 জাকির হোসাইন চৌধুরী, গ্রিস থেকে 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০২:২৪ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বাংলাদেশ দূতাবাসের আয়োজনে ২১-২৩ সেপ্টেম্বর এথেন্সের পালিও ইপ্সিখিকু পৌরসভার লেপা আর্ট গ্যালারিতে বাংলাদেশ থেকে আগত ১৩ জন বাংলাদেশি চিত্রশিল্পীর আঁকা তিন দিনব্যাপী চিত্রশিল্প প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। বিশিষ্ট বাংলাদেশি চিত্রশিল্পীদের আঁকা বেশ কয়েকটি বিশেষ শিল্পকর্ম স্থান পেয়েছে ‘বাংলাদেশের সুর’ শীর্ষক এ প্রদর্শনীতে।

বাংলাদেশ ও গ্রিস বিভিন্ন ধরনের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তাদের সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার ৫০ বছর পূর্তি উদযাপন করছে। স্থানীয় মেয়রের সহায়তায় প্রদর্শনীতে গ্রিক চিত্রশিল্পী এবং স্থানীয় গ্রিক বাসিন্দারা উৎসাহ-উদ্দীপনা আর আগ্রহের সাথে প্রদর্শনীর সব শৈল্পিক চিত্র উপভোগ করেন। গ্রিস-বাংলাদেশের পঞ্চাশ বছর পূর্তি উপলক্ষে বিভিন্ন প্রোগ্রাম এবং কার্যক্রমের অংশ বিশেষ তুলে ধরা হয়েছে প্রদর্শনীতে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফাইন আর্টস বিভাগের অধ্যাপিকা রোকেয়া সুলতানা বলেন, বাংলাদেশের শিল্পকলার একটি সমৃদ্ধ ঐতিহ্য রয়েছে এবং দেশের নামকরা শিল্পীদের সৃজনশীল ও স্বাতন্ত্র্যের মাধ্যমে দেশের স্পন্দন অনুভব করা যায়। আমরা আন্তরিকভাবে বিশ্বাস করি যে শিল্প প্রদর্শনী বাংলাদেশ ও গ্রিসের মধ্যে সাংস্কৃতিক বন্ধনকে আরও দৃঢ় করতে অনেক দূর এগিয়ে যাবে।

‘বাংলাদেশের সুর’ শুধুমাত্র গ্রিস, পাশ্চাত্য সংস্কৃতি ও সভ্যতার জন্মস্থানের শিল্প-অনুসন্ধানীদের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নয়, বরং এর ছোঁয়া পাওয়ার এক বিরল সুযোগও দেবে দূতাবাসের এ আয়োজন। গ্রিসে আমাদের সমৃদ্ধ প্রবাসীদের কাছে বাংলাদেশ বলে মনে করছেন অনুষ্ঠানে উপস্থিত বিশিষ্টজনরা।

বাংলাদেশ থেকে আরও অংশগ্রহণ করেছেন চিত্রশিল্পী সুলতানুল ইসলাম, দিলরুবা লতিফ, সঞ্জীব দাস অপু, মারজিয়া বেগম, রিফাত জাহান কাঁটা, মুক্তি ভৌমিক, শাহীন সোহানা সুরভী, মহম্মদ মেহেদী হাসান, নাজমুন আক্তার কাকলি, জিনাত জুলফিকার সবি, জান্নাত কেয়া, হাসুরা আখতার রুমকি।

এছাড়া স্থানীয় বাংলাদেশ কমিউনিটির সভাপতি হাজী আব্দুল কুদ্দুস, বাংলা-গ্রিক শিক্ষা কেন্দ্রের সভাপতি দাদন মৃধা, সাবেক সভাপতি আব্দুস সালাম শেখ, দোয়েল সংগঠনের প্রধান আহব্বায়ক টিটু মহসিনসহ দোয়েল সাংস্কৃতিক সংগঠনের সব কলাকুশলী উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে গ্রিসে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আসুদ আহমেদ তার বাসভবনে অতিথিদের জন্য একটি সম্মানসূচক নৈশভোজের আয়োজন করেন।

[প্রিয় পাঠক, যুগান্তর অনলাইনে পরবাস বিভাগে আপনিও লিখতে পারেন। প্রবাসে আপনার কমিউনিটির নানান খবর, ভ্রমণ, আড্ডা, গল্প, স্মৃতিচারণসহ যে কোনো বিষয়ে লিখে পাঠাতে পারেন। সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ মেইল করুন jugantorporobash@gmail.com এই ঠিকানায়। লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।]
যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন