জর্জিয়ায় বাংলাদেশি ফার্মাসিস্ট নিখোঁজ

প্রকাশ : ২১ জুলাই ২০১৮, ০৩:১৯ | অনলাইন সংস্করণ

  মনজিলুর রহমান, আটলান্টা (যুক্তরাষ্ট্র) থেকে

এ্যালভিন আহমেদ

যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়ায় এ্যালভিন আহমেদ (২৫) নামে বাংলাদেশি এক ফার্মাসিস্ট নিখোঁজ হয়েছেন।

নিখোঁজের পরের দিন স্থানীয় লেকে একটি লাশ পাওয়া গেছে। এতে পরিবার থেকে উদ্বিগ্ন হলেও পুলিশ বলছে, ময়নাতদন্ত সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত লাশ সনাক্ত করা যাবে না।

ইউনিভার্সিটি অব জর্জিয়া ( ইউজিএ) থেকে ফার্মাসিস্ট ডিগ্রি লাভ করা এ্যালভিন আহমদে গ্রেটার আটলান্টার লগেনভিল এলাকার পাবলিক্স সুপার মার্কেটের ফার্মাসিষ্ট ডিপার্টমেন্টে একজন ইন্টর্ন হিসেবে কাজে যোগ দেন। মঙ্গলবার তিনি তার কর্মস্থল থেকে বাড়ি না ফিরলে পরিবার উদ্বিগ্ন হয়ে কর্মস্থলে খোঁজখবর নেয়। সেখানেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ্যালভিনের বোন ক্যাথি আহমেদ স্থানীয় সংবাদকর্মীদের জানান, তার কর্মস্থলে নাই জেনে আমরা  তার ‘আইফোন’ ট্র্যাক করার চেষ্টা করি। কোথাও তার সাড়া পাওয়া যায়নি।

এ্যালভিনের ভাই ক্যালভিন আহমেদ বলেন, সময় পেরিয়ে গেলেও যে যখন বাড়ি ফিরছে না এবং তার মোবাইল ট্রাক করেও পাওয়া যাচ্ছে না। তখনই আমরা তার কর্মস্থালে ছুটে যাই এবং পার্কিং লটে তার ব্যক্তিগত গাড়িটি খোলা অবস্থায় পায়। আমরা তখনই স্থানীয় পুলিশ ডিপার্টেমেন্টে একটি মিসিং রিপোর্ট ফাইল করি। ধারণা করা হচ্ছে, তাকে অপহরণ করা হয়েছে।

ঘটনার পরদিন বুধবার  সন্ধ্যা সোয়া ৮টার দিকে তার কর্মস্থল পাবলিক্স সুপার মার্কেট থেকে মাত্র এক মাইল দূরে স্থানীয় লগেনভিলে কার্টন লেক নামক লেকে পুলিশ একটি লাশ উদ্ধার করে। লাশের সঙ্গে পাবলিক্স সুপার মার্কেটের ফার্মাসিস্টদের একটি ইউনিফর্মও পাওয়া যায়।

পরিবার থেকে লাশটি এ্যলভিনের দাবি করা হলেও পুলিশ ডিপার্টেমেন্ট থেকে বলা হয়,  ‘ময়নাতদন্ত সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত লাশ চিহ্নিত করা যাবে না।’

এদিকে এ্যালভিন আহমেদের অনুসন্ধানে স্থানীয় পুলিশ ডিপার্টমেন্ট থেকে দুই হাজার ইউএস ডলার পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে। সন্ধান দাতার ব্যক্তিগত পরিচয় জনসমুক্ষে প্রকাশ না করার শর্ত দিয়েছে পুলিশ।

গুনেইট কাউন্টি ডিপার্টমেন্ট অব পুলিশ ৭৭০.৫১৩.৫৩০০ অথবা জর্জিয়া ক্রিমিন্যাল সাপোর্ট সেন্টার ৪১০৪.৫৭৭.৮৪৭৭ এই নাম্বারে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

এ্যালভিন আহমেদ ঢাকার বাসবোর তিলপা পাড়ার মৃত কামাল আহমদের ছেলে। তিনি মা ভাই ও বোনের সঙ্গে জর্জিয়ার লগেনভিলে বসবাস করেন।