• বৃহস্পতিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৭
বান্দরবান প্রতিনিধি    |    
প্রকাশ : ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ | অাপডেট: ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০৮:৪২:২১ প্রিন্ট
রোহিঙ্গাদের ত্রাণের ট্রাক খাদে নিহত ৯
আহত ১২

রোহিঙ্গাদের জন্য ত্রাণ নিয়ে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি যাওয়ার পথে রেড ক্রিসেন্টের একটি ট্রাক খাদে পড়ে অন্তত ৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন আরও ১২ জন। বৃহস্পতিবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে বিজিবির চাকঢালা সীমান্ত চৌকির কাছে বড় ছনখোলায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহতরা হলেন- জলিল আহমদ (৪৫), সুলতান আহমেদ (৫২), আবদুল্লাহ (৩৮), সুরুত আলম (৩৫), সুদর্শন বড়ুয়া (৪৮), সৈয়দুল আমীন (৩০), আবদুল মাবুদ (৩০), মোহাম্মদ আবদুল্লাহ (১৭) এবং হামিনুল হাকিম (১৪)।

জেলা রেডক্রিসেন্ট ইউনিট বান্দরবানের সেক্রেটারি একেএম জাহাঙ্গীর বলেন, নিহতদের মধ্যে ৭ জন শ্রমিক এবং দু’জন স্থানীয় শিশু। তারা কৌতূহলবশত রোহিঙ্গাদের দেখতে ওই ট্রাকে উঠেছিল বলে জানান তিনি।

নাইক্ষ্যংছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান তসলিম ইকবাল হোসেন চৌধুরী বলেন, ট্রাকটি কক্সবাজারের উখিয়া থেকে মিয়ানমার সীমান্তের কাছে বড় ছনখোলায় রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের জন্য ত্রাণ নিয়ে যাচ্ছিল। বিজিবির চাকঢালা সীমান্ত চৌকির কাছে পৌঁছলে এটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলেই ছয়জন ও হাসপাতালে নেয়ার পথে আরও তিনজনের মৃত্যু হয়। ঘটনার পর বিজিবি সদস্যরা আহতদের দ্রুত হাসপাতালে পাঠান বলে জানান তিনি।

চেয়ারম্যন বলেন, হতাহত সবার বাড়ি নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার বিভিন্ন এলাকায়। তারা রেড ক্রিসেন্টের ত্রাণ বিতরণ কাজে নিয়োজিত ছিলেন। এ ছাড়া নিহতদের মধ্যে দুই শিশু থাকার কথাও তিনি নিশ্চিত করেছেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, ট্রাকে মালামালের ওপর শ্রমিকরা বসেছিলেন। সড়কটি জমি থেকে খুব বেশি উঁচু না হলেও ট্রাকটি উল্টে গেলে মালামালের নিচে শ্রমিকরা চাপা পড়েন। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে। তারা জানান, নাইক্ষ্যংছড়ি-চাকঢালা সীমান্ত সড়কটি ভাঙাচোরা ও খুবই সংকীর্ণ। এ সংকীর্ণ সড়কে ত্রাণের বিশাল ট্রাক যাওয়া খুবই বিপজ্জনক।

দুর্ঘটনায় আহত ১২ জনকে প্রথমে নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা হাসপাতালে, পরে কয়েকজনকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। আহতরা হলেন- সেলিম (৩০), সৈয়দুর রহমান (৩৫), ফয়েজ (৩০), আলী হোসেন (৫০), ইউসুফ (৩৫), আবু তাহের (৩০), বাবুল (২২), জিয়াউর রহমান (১৮), জসিম (২৫), আজিজুর রহমান (৩৫), আলী আকবর (১৮) ও সুলতান (৩৫)।

নাইক্ষ্যংছড়ি থানার ওসি তৌহিদ কবির বলেন, ৯ জনের লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ট্রাকচালক পালিয়ে গেছেন। বিকালে পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসলাম বেবীসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে দুর্ঘটনার খবরে বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি শোক প্রকাশ করেছে। সোসাইটির চেয়ারম্যান হাফিজ আহমদ মজুমদার এক বিজ্ঞপ্তিতে বলেন, অনাকাক্সিক্ষত এ ঘটনার জন্য সোসাইটির ব্যবস্থাপনা পর্ষদের সব সদস্য শোকাহত ও মর্মাহত। নিহত ও আহত শ্রমিকদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জানানো হয় বিজ্ঞপ্তিতে।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে ২৪ অগাস্ট রাতে কয়েকটি পুলিশ পোস্ট ও একটি সেনাক্যাম্পে হামলার পর দেশটির সেনাবাহিনী রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিরুদ্ধে নতুন করে দমন অভিযানে নামে। এ ঘটনায় এক মাসে সোয়া চার লাখের বেশি রোহিঙ্গা নতুন করে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। এর মধ্যে বান্দরবানে প্রায় ৫০ হাজার রোহিঙ্গা রয়েছে।

তদন্ত কমিটি গঠন : দুর্ঘটনার তদন্তে বান্দরবানের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মহিদুল আলমকে আহ্বায়ক করে ৪ সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- নাইক্ষ্যংছড়ির ইউএনও সরওয়ার কামাল, এএসপি (সার্কেল) আলী হোসেন, সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী নাজমুল ইসলাম।


 


আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত