যুগান্তর রিপোর্ট    |    
প্রকাশ : ১৫ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
সিনহার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন রাষ্ট্রপতি
প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার (এসকে সিনহা) পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। মঙ্গলবার সকালে তিনি পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেছেন বলে যুগান্তরকে নিশ্চিত করেছেন রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব জয়নাল আবেদীন। তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করা হয়েছে। এ সংক্রান্ত কাগজপত্র আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে বলেও জানান তিনি।
এসকে সিনহার পদত্যাগপত্র গৃহীত হওয়ার পর প্রধান বিচারপতি পদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে কিনা এ বিষয়ে জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক মঙ্গলবার দুপুরে যুগান্তরকে বলেন, প্রধান বিচারপতির নিয়োগ প্রক্রিয়া এখনও শুরু হয়নি।
এদিকে আইন মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্র জানিয়েছে, রাষ্ট্রপতির দফতর থেকে প্রধান বিচারপতির পদত্যাগপত্র একটি ‘ফরোয়ার্ডিং’সহ এদিন সকালেই আইন মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে। যদিও আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক মঙ্গলবার বিকালে যুগান্তরকে বলেন, ‘আমি অফিসের বাইরে আছি। এখনও পদত্যাগপত্রটি পাইনি। পাওয়ার পর পরবর্তী সিদ্ধান্ত দেয়া হবে।’
জানা গেছে, এসকে সিনহার পদত্যাগপত্র আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রহণের পর আইন মন্ত্রণালয় পদটি শূন্য ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি সংক্রান্ত ফাইল প্রস্তুত করে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মাধ্যমে রাষ্ট্রপতির দফতরে পাঠাবে। তবে এই প্রক্রিয়াটি শুরু হয়েছে কিনা- সে বিষয়ে আইন মন্ত্রণালয়ের কোনো কর্মকর্তাই কিছু বলতে চাননি। নিয়ম অনুযায়ী প্রধান বিচারপতির পদটি শূন্য ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারির পর রাষ্ট্রপতি প্রধান বিচারপতি পদে নিয়োগের বিষয়ে উদ্যোগ নেবেন।
সরকারের সঙ্গে প্রায় ৩ মাস টানাপোড়েনের পর ১১ নভেম্বর পদত্যাগ করেন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা (এসকে সিনহা)। ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় নিয়ে তোপের মুখে থাকা প্রধান বিচারপতি এসকে সিনহা ছুটি নিয়ে দেশত্যাগের ২৮ দিনের মাথায় সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশের হাইকমিশনে রাষ্ট্রপতি বরাবর পদত্যাগপত্রটি জমা দেন।
২০১৫ সালের ১৭ জানুয়ারি দেশের ২১তম প্রধান বিচারপতি হিসেবে শপথ নেন এসকে সিনহা। ২০১৮ সালের ৩১ জানুয়ারি তার অবসরে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু পদত্যাগের মধ্য দিয়ে ৮১ দিন আগেই তার কার্যকাল শেষ হয়। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ২১ জন বিচারক প্রধান বিচারপতির পদে অধিষ্ঠিত হয়েছিলেন, তাদের মধ্যে বিচারপতি এসকে সিনহাই প্রথম, যিনি এভাবে পদত্যাগ করলেন। ছুটি নিয়ে বিদেশ সফরে থাকা সুরেন্দ্র কুমার সিনহা তার ছুটির মেয়াদ শেষদিনই পদত্যাগপত্র জমা দেন। ১০ নভেম্বরই তার ছুটি শেষ হয়।
গত অক্টোবরে বিচারপতি সিনহা ছুটিতে যাওয়ার পর আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারক বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহহাব মিঞাকে প্রধান বিচারপতির দায়িত্বভার দেন রাষ্ট্রপ্রধান মো. আবদুল হামিদ। আর বিচারপতি সিনহা পদত্যাগ করায় রাষ্ট্রপতি এখন সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদ অনুসারে পরবর্তী পদক্ষেপ নেবেন বলে ১২ নভেম্বর জানিয়েছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, ‘প্রধান বিচারপতির পদ শূন্য হইলে কিংবা অনুপস্থিতি, অসুস্থতা বা অন্য কোনো কারণে প্রধান বিচারপতি তাহার দায়িত্ব পালনে অসমর্থ বলিয়া রাষ্ট্রপতির নিকট সন্তোষজনকভাবে প্রতীয়মান হইলে ক্ষেত্রমতো অন্য কোনো ব্যক্তি অনুরূপ পদে যোগদান না করা পর্যন্ত কিংবা প্রধান বিচারপতি স্বীয় কার্যভার পুনরায় গ্রহণ না করা পর্যন্ত আপিল বিভাগের অন্যান্য বিচারকের মধ্যে যিনি কর্মে প্রবীণতম, তিনি অনুরূপ কার্যভার পালন করিবেন।’
অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলমের মতো আইনমন্ত্রী আনিসুল হকও ইতিমধ্যে জানিয়েছেন, যতদিন নতুন প্রধান বিচারপতি শপথ না নেবেন, ততদিন পর্যন্ত সর্বোচ্চ আদালতের কর্তৃত্ব আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞার হাতেই থাকছে।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত