Nagad-Fifa-WorldCup
বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা কোন দলের, জানাল ফিফা
jugantor
বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা কোন দলের, জানাল ফিফা

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৫৯:৩৩  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রতি বিশ্বকাপেই বদলে যায় ফুটবল। বিশ্বের সেরা কোচেরা নিয়ে আসেন নতুন নতুন কৌশল, পরিকল্পনা। সেই বদল কতটা ইতিবাচক বিচার করে দেখেন ফিফার বিশেষজ্ঞরা। কাতার বিশ্বকাপও ব্যতিক্রম নয়। কোন দল বিশ্বকাপ জিততে পারে, তাও জানিয়ে দিল ফিফা।

রাশিয়া বিশ্বকাপের পর থেকে অনেকটাই বদলে গেছে ফুটবল। ফিফার পর্যবেক্ষণে ধরা পড়েছে দলগুলোর রক্ষণ সংগঠনের পরিবর্তন। আগামী চার বছরে আরও উন্নতির আশা করছেন ফিফা কর্তারা।

ফুটবল খেলার পাশাপাশি বদলে গিয়েছে গোলের ধরনও। গত চার বছরের পরিবর্তনে উচ্ছ্বসিত ফিফার টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য আর্সেন ওয়েঙ্গার, যুরগেন ক্লিন্সম্যানরা। বিশেষজ্ঞদের পর্যবেক্ষণে উঠে এসেছে, প্রায় প্রতিটি দলই বেশ খানিকটা এগিয়ে এনেছে তাদের ডিফেন্সকে।

গ্রুপ পর্বের নিরিখে রাশিয়া বিশ্বকাপের থেকে এই গোলের সংখ্যা ৮৩ শতাংশ বেশি। এবারের বিশ্বকাপে অনেক বেশি আক্রমণ তৈরি হচ্ছে উইং বরাবর।

আর্সেনালের প্রাক্তন ম্যানেজার ওয়েঙ্গারের মতে, উইং ব্যবহার করে আক্রমণ তৈরি হচ্ছে অনেক বেশি। মাঠের মাঝখানে এ বার ফুটবলারদের জটলা অনেক বেশি। তুলনায় ফাঁকা থাকছে মাঠের দুই ধার। যে দলের উইং বেশি শক্তিশালী, তাদের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনাও বেশি।’’

তার সঙ্গে সহমত ক্লিন্সম্যানও। জার্মানির প্রাক্তন ফুটবলার তথা কোচ বলেছেন, মাঝমাঠ দিয়ে আক্রমণ তৈরি করা এবার বেশ কঠিন।

ফিফার বিশেষজ্ঞদের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, আক্রমণ তৈরির জন্য প্রতিপক্ষকে উইংয়ে যেতে বাধ্য করছে অনেক দল।

ক্লিন্সম্যানের পর্যবেক্ষণ, এক্ষেত্রে দক্ষিণ আমেরিকার ব্রাজিল, আর্জেন্টিনার মতো দলগুলো এগিয়ে রয়েছে ইউরোপের দলগুলোর তুলনায়।

Nagad-Fifa-WorldCup

বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনা কোন দলের, জানাল ফিফা

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০৩:৫৯ এএম  |  অনলাইন সংস্করণ

প্রতি বিশ্বকাপেই বদলে যায় ফুটবল। বিশ্বের সেরা কোচেরা নিয়ে আসেন নতুন নতুন কৌশল, পরিকল্পনা। সেই বদল কতটা ইতিবাচক বিচার করে দেখেন ফিফার বিশেষজ্ঞরা। কাতার বিশ্বকাপও ব্যতিক্রম নয়। কোন দল বিশ্বকাপ জিততে পারে, তাও জানিয়ে দিল ফিফা।

রাশিয়া বিশ্বকাপের পর থেকে অনেকটাই বদলে গেছে ফুটবল। ফিফার পর্যবেক্ষণে ধরা পড়েছে দলগুলোর রক্ষণ সংগঠনের পরিবর্তন। আগামী চার বছরে আরও উন্নতির আশা করছেন ফিফা কর্তারা।

ফুটবল খেলার পাশাপাশি বদলে গিয়েছে গোলের ধরনও। গত চার বছরের পরিবর্তনে উচ্ছ্বসিত ফিফার টেকনিক্যাল কমিটির সদস্য আর্সেন ওয়েঙ্গার, যুরগেন ক্লিন্সম্যানরা। বিশেষজ্ঞদের পর্যবেক্ষণে উঠে এসেছে, প্রায় প্রতিটি দলই বেশ খানিকটা এগিয়ে এনেছে তাদের ডিফেন্সকে। 

গ্রুপ পর্বের নিরিখে রাশিয়া বিশ্বকাপের থেকে এই গোলের সংখ্যা ৮৩ শতাংশ বেশি। এবারের বিশ্বকাপে অনেক বেশি আক্রমণ তৈরি হচ্ছে উইং বরাবর। 

আর্সেনালের প্রাক্তন ম্যানেজার ওয়েঙ্গারের মতে, উইং ব্যবহার করে আক্রমণ তৈরি হচ্ছে অনেক বেশি। মাঠের মাঝখানে এ বার ফুটবলারদের জটলা অনেক বেশি। তুলনায় ফাঁকা থাকছে মাঠের দুই ধার। যে দলের উইং বেশি শক্তিশালী, তাদের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনাও বেশি।’’

তার সঙ্গে সহমত ক্লিন্সম্যানও। জার্মানির প্রাক্তন ফুটবলার তথা কোচ বলেছেন,  মাঝমাঠ দিয়ে আক্রমণ তৈরি করা এবার বেশ কঠিন। 

ফিফার বিশেষজ্ঞদের পর্যবেক্ষণ অনুযায়ী, আক্রমণ তৈরির জন্য প্রতিপক্ষকে উইংয়ে যেতে বাধ্য করছে অনেক দল। 

ক্লিন্সম্যানের পর্যবেক্ষণ, এক্ষেত্রে দক্ষিণ আমেরিকার ব্রাজিল, আর্জেন্টিনার মতো দলগুলো এগিয়ে রয়েছে ইউরোপের দলগুলোর তুলনায়। 
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফুটবল বিশ্বকাপ ২০২২

২৮ ডিসেম্বর, ২০২২