Nagad-Fifa-WorldCup
তবুও শঙ্কা ব্রাজিল শিবিরে 
jugantor
তবুও শঙ্কা ব্রাজিল শিবিরে 

  স্পোর্টস ডেস্ক  

০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১৪:৪৩:৩৯  |  অনলাইন সংস্করণ

বিশ্বকাপে এর আগে দুবার দেখা হয়েছে ব্রাজিল ও ক্রোয়েশিয়ার। দুবারই জিতেছে ব্রাজিল। এর বাইরে প্রীতি ম্যাচেও সেলেকাওদের কখনও হারাতে পারেনি ক্রোটরা।

ফর্ম, র‌্যাংকিং, শক্তি কিংবা ঐতিহ্যেও ক্রোয়েশিয়ার চেয়ে অনেক এগিয়ে থাকায় আজ কাতার বিশ্বকাপের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে পরিষ্কার ফেভারিট ব্রাজিল। কিন্তু শেষ আটের লড়াইয়ে মদরিচদের চেয়েও কঠিন এক প্রতিপক্ষকে হারাতে হবে নেইমারদের। অদৃশ্য সেই প্রতিপক্ষের নাম ইতিহাস!

ষষ্ঠ বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে ব্রাজিলকে আজ খুলতে হবে ইউরোপের গেরো। ২০০২ সালে সবশেষ বিশ্বকাপ জেতার পর প্রতি আসরেই ইউরোপের কোনো দলের কাছে হেরে বিদায় নিতে হয়েছে ব্রাজিলকে। এরমধ্যে তিনবার কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে। ২০০৬ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ফ্রান্সের কাছে, ২০১০ আসরের কোয়ার্টার ফাইনালে নেদারল্যান্ডসের কাছে এবং ২০১৮ বিশ্বকাপের শেষ আটে বেলজিয়ামের কাছে হেরেছিল ব্রাজিল।

ঘরের মাঠে ২০১৪ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে তারা পেয়েছিল লাতিন প্রতিপক্ষ। সেবার কলম্বিয়ার বিপক্ষে জিতলেও সেমিফাইনালে ইউরোপের দল জার্মানির কাছে ৭-১ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে লজ্জায় গুটিয়ে যেতে হয় ব্রাজিলকে।

ইতিহাসের এই অভিশপ্ত ধারা এবার বদলে দিতে বদ্ধপরিকর তিতের দল। ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি হওয়ার আগে সেটাই বললেন ব্রাজিলের তরুণ ফরোয়ার্ড ভিনিসিয়ুস জুনিয়র, ‘আমরা পাঁচবার বিশ্বকাপ জিতেছি। আমাদের ভয় পাওয়ার কিছু নেই। গত কয়েক আসরে যা হয়েছে, সেসব বদলে দিতে এবার আমরা সংকল্পবদ্ধ। কোয়ার্টার ফাইনাল জিতে সেমিফাইনালে যেতে চাই। ধাপে ধাপে এগিয়ে জিততে চাই বিশ্বকাপ।’

দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে শেষ ষোলোর লড়াইয়ে ব্রাজিলের পুরো আক্রমণভাগ যেভাবে একসঙ্গে ঝলসে উঠেছিল, তাতে ইতিহাস চর্চায় উৎসাহ পাচ্ছেন না ক্রোয়েশিয়ার কোচ জ্লাতকো দালিচ। জয়ের আশা না ছাড়লেও ব্রাজিলকে ফেভারিট মানছেন তিনি, ‘ব্রাজিল ফেভারিট। বিশ্বকাপের সবচেয়ে শক্তিশালী ও ভয়ংকর দল তারা। ওদের যে মান ও সামর্থ্য, সত্যিই তা ভয়ংকর। আমাদের সামনে কঠিন পরীক্ষা অপেক্ষা করছে। তবে আমাদের ভয় পাওয়ার কিছু নেই। আমি বিশ্বাস করি, আমরা তাদের চ্যালেঞ্জ জানাতে পারব। ম্যাচটি হয়তো সমানে সমান নয়, কিন্তু এই পর্যায়ে আমরাও নবাগত নই।’

Nagad-Fifa-WorldCup

তবুও শঙ্কা ব্রাজিল শিবিরে 

 স্পোর্টস ডেস্ক 
০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:৪৩ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ

বিশ্বকাপে এর আগে দুবার দেখা হয়েছে ব্রাজিল ও ক্রোয়েশিয়ার। দুবারই জিতেছে ব্রাজিল। এর বাইরে প্রীতি ম্যাচেও সেলেকাওদের কখনও হারাতে পারেনি ক্রোটরা। 

ফর্ম, র‌্যাংকিং, শক্তি কিংবা ঐতিহ্যেও ক্রোয়েশিয়ার চেয়ে অনেক এগিয়ে থাকায় আজ কাতার বিশ্বকাপের প্রথম কোয়ার্টার ফাইনালে পরিষ্কার ফেভারিট ব্রাজিল। কিন্তু শেষ আটের লড়াইয়ে মদরিচদের চেয়েও কঠিন এক প্রতিপক্ষকে হারাতে হবে নেইমারদের। অদৃশ্য সেই প্রতিপক্ষের নাম ইতিহাস!

ষষ্ঠ বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন বাঁচিয়ে রাখতে ব্রাজিলকে আজ খুলতে হবে ইউরোপের গেরো। ২০০২ সালে সবশেষ বিশ্বকাপ জেতার পর প্রতি আসরেই ইউরোপের কোনো দলের কাছে হেরে বিদায় নিতে হয়েছে ব্রাজিলকে। এরমধ্যে তিনবার কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে। ২০০৬ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে ফ্রান্সের কাছে, ২০১০ আসরের কোয়ার্টার ফাইনালে নেদারল্যান্ডসের কাছে এবং ২০১৮ বিশ্বকাপের শেষ আটে বেলজিয়ামের কাছে হেরেছিল ব্রাজিল। 

ঘরের মাঠে ২০১৪ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে তারা পেয়েছিল লাতিন প্রতিপক্ষ। সেবার কলম্বিয়ার বিপক্ষে জিতলেও সেমিফাইনালে ইউরোপের দল জার্মানির কাছে ৭-১ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে লজ্জায় গুটিয়ে যেতে হয় ব্রাজিলকে।

ইতিহাসের এই অভিশপ্ত ধারা এবার বদলে দিতে বদ্ধপরিকর তিতের দল। ক্রোয়েশিয়ার মুখোমুখি হওয়ার আগে সেটাই বললেন ব্রাজিলের তরুণ ফরোয়ার্ড ভিনিসিয়ুস জুনিয়র, ‘আমরা পাঁচবার বিশ্বকাপ জিতেছি। আমাদের ভয় পাওয়ার কিছু নেই। গত কয়েক আসরে যা হয়েছে, সেসব বদলে দিতে এবার আমরা সংকল্পবদ্ধ। কোয়ার্টার ফাইনাল জিতে সেমিফাইনালে যেতে চাই। ধাপে ধাপে এগিয়ে জিততে চাই বিশ্বকাপ।’

দক্ষিণ কোরিয়ার বিপক্ষে শেষ ষোলোর লড়াইয়ে ব্রাজিলের পুরো আক্রমণভাগ যেভাবে একসঙ্গে ঝলসে উঠেছিল, তাতে ইতিহাস চর্চায় উৎসাহ পাচ্ছেন না ক্রোয়েশিয়ার কোচ জ্লাতকো দালিচ। জয়ের আশা না ছাড়লেও ব্রাজিলকে ফেভারিট মানছেন তিনি, ‘ব্রাজিল ফেভারিট। বিশ্বকাপের সবচেয়ে শক্তিশালী ও ভয়ংকর দল তারা। ওদের যে মান ও সামর্থ্য, সত্যিই তা ভয়ংকর। আমাদের সামনে কঠিন পরীক্ষা অপেক্ষা করছে। তবে আমাদের ভয় পাওয়ার কিছু নেই। আমি বিশ্বাস করি, আমরা তাদের চ্যালেঞ্জ জানাতে পারব। ম্যাচটি হয়তো সমানে সমান নয়, কিন্তু এই পর্যায়ে আমরাও নবাগত নই।’
 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফুটবল বিশ্বকাপ ২০২২

২৮ ডিসেম্বর, ২০২২