যুগান্তর রিপোর্ট    |    
প্রকাশ : ২১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০:০০ প্রিন্ট
থাই পণ্যের মেলা শুরু কাল
রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে আগামীকাল বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে চার দিনব্যাপী থাই পণ্যের মেলা। বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ মেলার উদ্বোধন করবেন। মেলার প্রথম দুই দিন ব্যবসায়ীদের এবং বাকি ২ দিন দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা উন্মুক্ত থাকবে।
জাতীয় প্রেস ক্লাবে সোমবার মেলা উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন ঢাকায় নিযুক্ত থাইল্যান্ড দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর সুবছাক ড্যাংবুংরুং। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ-থাই চেম্বারের সভাপতি সাজ্জাতুজ জুম্মা।
সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়েছে, মেলায় থাই পণ্যের ৫০টিরও বেশি স্টল থাকবে। প্রদর্শিত পণ্যের থাকবে চিকিৎসা সেবা, কসমেটিক্স, সৌন্দর্যবর্ধক পণ্য, গার্মেন্টস ও ফ্যাশন সামগ্রী, ইলেকট্রুনিক্স পণ্য, জুয়েলারি, কনফেকশনারি ও গৃহস্থালি পণ্য। মেলার আয়োজন করছে থাইল্যান্ডের আন্তর্জাতিক বাণিজ্য সম্প্রসারণ বিভাগ (ডিআইটিপি) ও রয়েল থাই এম্বাসি।
কমার্শিয়াল কাউন্সিলর সুবছাক ড্যাংবুংরুং বলেন, অনেক থাই কোম্পানি বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী। বিশেষ করে নবায়নযোগ্য জ্বালানি, গ্যাসসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগ করতে চায়। ইতিমধ্যেই তারা মার্কেট সার্ভে করেছে। এ ছাড়া বাংলাদেশের সঙ্গে বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনতে যৌথ বাণিজ্য কমিশন গঠন করা হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের বিনিয়োগের সুবিধাগুলো থাই ব্যবসায়ীদের জানানো হচ্ছে। বিশেষ করে থাইল্যান্ড থেকে ইউরোপীয় ইউনিয়নে পণ্য রফতানির ক্ষেত্রে ডিউটি ফ্রি সুবিধা পায় না। যেটা বাংলাদেশ পায়। এ সুযোগ কাজে লাগানোর জন্য থাই বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগে উৎসাহ দেয়া হচ্ছে।
বাংলাদেশ-থাই চেম্বারের সভাপতি সাজ্জাতুজ জুম্মা বলেন, থাইল্যান্ড ও বাংলাদেশের মধ্যে প্রতিবছর ৮শ’ মিলিয়ন ডলার আমদানি-রফতানি হয়। এর মধ্যে থাইল্যান্ড রফতানি করে ৭শ’ মিলিয়ন ডলারের পণ্য। আর বাংলাদেশ ৭০ থেকে ৮০ মিলিয়ন ডলারের পণ্য রফতানি হয়। এ বিশাল বাণিজ্য ঘাটতি কমিয়ে আনতে থাইল্যান্ডে বাংলাদেশী পণ্য রফতানিতে ডিউটি ফ্রি সুবিধার ব্যাপারে উভয় দেশের সরকার কাজ করছে।
তিনি আরও বলেন, থাইল্যান্ডের কিছু কোম্পানি তাদের শিল্প স্থানান্তর করতে চাচ্ছে। তাই বাংলাদেশ-থাই চেম্বার ওইসব বিনিয়োগ বাংলাদেশে আনতে কাজ করে যাচ্ছে।



আরো পড়ুন
  • শীর্ষ খবর
  • সর্বশেষ খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৮৪১৯২১১-৫, রিপোর্টিং : ৮৪১৯২২৮, বিজ্ঞাপন : ৮৪১৯২১৬, ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৭, সার্কুলেশন : ৮৪১৯২২৯। ফ্যাক্স : ৮৪১৯২১৮, ৮৪১৯২১৯, ৮৪১৯২২০

Design and Developed by

© ২০০০-২০১৭ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত