নেপালে রেস্তোরাঁয় রোবট পরিচারক

  যুগান্তর ডেস্ক ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১৩:২৬ | অনলাইন সংস্করণ

নেপালে রেস্তোরাঁয় রোবট পরিচারক
খাবার পরিবেশন করছে রোবট পরিচারক। ছবি: এএফপি

নেপালে প্রথমবারের মতো রেস্তোরাঁয় রোবট পরিচারক খাবার পরিবেশন করেছে।

টেবিলে গরম পুডিং পরিবেশন করে দেশটির প্রথম রোবট ওয়েটার জিনজার গ্রাহকদের বলেছে-খাবার উপভোগ করুন।-খবর এএফপির।

নেপাল উঁচু পর্বতমালার জন্যই বিশেষ পরিচিত। প্রযুক্তির ক্ষেত্রে দেশটি অনেকটাই পিছিয়ে। কিন্তু একদল উদ্ভাবনী যুবক দেশটিতে প্রযুক্তি নিয়ে এসেছে।

স্থানীয় কোম্পানি পাইলা টেকনোলজি পাঁচ ফুট লম্বা রোবট জিনজার প্রস্তুত করেছে। রোবটটি ইংরেজি ও নেপালি উভয় ভাষা বোঝে।

জিনজার নামে এই মানবাকৃতির রোবটটি অ্যাপেলস সিরি অথবা অ্যামাজোনের অ্যালেক্সার মতো কৌতুক করতে পারে।

নেপালের রান্নায় ব্যবহৃত অতিপ্রয়োজনীয় উপকরণ আদার নামে রোবটটির নামকরণ করা হয়েছে। কাঠমান্ডুর নাউলো রেস্তোরাঁয় তিনটি ‘জিনজার’ কাজ করছে।

শহরটিতে তিন বছর আগে প্রচণ্ড শক্তিশালী ভূমিকম্পের ক্ষতি এখনও পুরোপুরি কাটিয়ে উঠতে পারেনি।

ওই ভূমিকম্পে রাস্তাঘাটে বড় বড় ফাটল দেখা দেয়, বহু স্থানের রাস্তা ভেঙে যায় এবং বহু অট্টালিকা ধসে পড়ে।

রোবট প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠানের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বিনয় রাউত বলেন, আমরা এখন পরীক্ষামূলকভাবে রোবটগুলোকে কাজে লাগিয়েছি। আমরা রোবটের সেবা সম্পর্কে কাস্টমারদের মতামতের অপেক্ষায় আছি।

২৫ তরুণ প্রকৌশলী কয়েক মাস পরিশ্রম করে রোবটটি প্রস্তুত করেছে। বিনয় (২৭) তাদের মধ্যে সবচেয়ে সিনিয়র।

রেস্তোরাঁর গ্রাহক ৭৩ বছর বয়সী শালিকরাম শর্মা বলেন, এটি সম্পূর্ণ একটি নতুন অভিজ্ঞতা। তার জন্মের সময় নেপালে টেলিভিশন ছিল না।

নীলম কুমার বিমালি বলেন, রোবট দেখতে খুবই সুন্দর। আমার বিশ্বাসই হচ্ছে না রোবটগুলো নেপালে তৈরি। তিনি তার পরিবারের সঙ্গে রাতের খাবার খেতে রেস্তোরাঁয় এসেছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×