বিশ্বের সবচেয়ে বিষণ্ন দিন!

  যুগান্তর ডেস্ক ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ১০:১৫ | অনলাইন সংস্করণ

বিশ্বের সবচেয়ে বিষণ্ন দিন!
ছবি: ইন্ডিপেন্ডেন্ট

প্রতি বছরের জানুয়ারির তৃতীয় সোমবারকে বলা হয় ব্লু মানডে বা নীল সোমবার।

এ ব্যাপারে একটি তত্ত্ব প্রচার রয়েছে যে, বছরের এই দিনটিতে আমরা সবাই অপরাধবোধের কারণে অনেকটা নিরুত্তাপ, বিদীর্ণ ও প্রহেলিকায় ঘুরপাক খেতে থাকি। এছাড়া আমাদের নতুন বছরের সংকল্প যথাযথ বাস্তবায়ন হচ্ছে কিনা- তা নিয়েও দুশ্চিন্তা কাজ করে। যে কাজগুলো করা সম্ভব হয়নি সেগুলো নিয়েও পরিতাপ করি।

কিন্তু ব্লু মানডে কী সত্যিই বছরের সবচেয়ে বিষণ্ন দিন? ২০০৪ সালে মনোবিদ ক্লিফ আর্নাল সর্বপ্রথম এ ধারণাটির উদ্ভব ঘটান। তিনি রীতিমতো জরিপ করে ও গাণিতিক পদ্ধতি ব্যবহার করে এদিনটি নির্ণয় করেছিলেন।-খবর ইন্ডিপেন্ডেন্ট অনলাইনের।

বিজ্ঞানীরা এটিকে ভুয়া বলে উড়িয়ে দিলেও তার এ ধারণাটিই ধীরে ধীরে প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে। গতকাল ছিল চলতি বছরের নীল সোমবার। তবে বৈজ্ঞানিক ভিত্তি না থাকার দাবি করলেও দিনটিতে বিশ্বজুড়ে এমন কিছু ঘটনা ঘটছে, যাতে বিভ্রান্ত না হওয়ার উপায় নেই।

জাপানের এক গবেষণার কথা উল্লেখ করে ফোর্বস জানিয়েছে, দেশটিতে এদিনটিতে সপ্তাহের অন্যান্য দিনের চেয়ে পুরুষদের মধ্যে আত্মহত্যার সংখ্যা বেশি দেখা গেছে।

তবে গবেষকরা বলছেন, কাজের সপ্তাহ কাঠামো এ ঘটনার প্রভাবক হতে পারে। তবে ডেইলি মেইল জানিয়েছে, নীল সোমবারে দুই-তৃতীয়াংশ লোক কর্মস্থলে যাওয়ার সময় বিষণ্ন অনুভব করে।

চার্টার্ড মনোবিদ ডা. জোয়ান হারভে এ ধারণাকে সম্পূর্ণ অর্থহীন বলে উল্লেখ করেছেন। বিশেষভাবে নীল সোমবার নীল হওয়ার জন্য খারাপ আবহাওয়াই দায়ী।

তিনি বলেন, যদি দিনটি উজ্জ্বল ও রোদেল হতো, তবে নিজেকে আপনি খুবই হাস্যোজ্জ্বল ও হাসিখুশি দেখতে পেতেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×