সৌদি যুবরাজের পাকিস্তান সফর: কী দিচ্ছেন, কী নিচ্ছেন

  যুগান্তর ডেস্ক ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৩:১৯ | অনলাইন সংস্করণ

সৌদি যুবরাজের পাকিস্তান সফর: কী দিচ্ছেন, কী নিচ্ছেন
ছবি: এএফপি

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান আজ রোববার দুদিনের সফরে পাকিস্তানে যাচ্ছেন। মূলত এ সফর দিয়ে তার দক্ষিণ এশিয়া ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া সফর শুরু হচ্ছে।

কিন্তু কাশ্মীরে হামলার ঘটনায় তার সফরে অনেকটা অনিশ্চয়তার ছায়া পড়েছিল। বৃহস্পতিবার ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে আত্মঘাতী হামলায় আধাসামরিক বাহিনীর ৪৪ জওয়ান নিহত হয়েছেন।-খবর রয়টার্সের।

এ হামলায় পাকিস্তানের হাত রয়েছে দাবি করে প্রতিবেশী দেশটিকে শাস্তির প্রতিজ্ঞা ব্যক্ত করেছে ভারত। পাকিস্তান হামলার দায় অস্বীকার করেছে।

ইসলামাবাদ বর্তমানে অর্থনৈতিক সংকটকাল পার করছে। ঠিক এ সময়ে সৌদি যুবরাজকে লাল গালিচায় স্বাগত জানাচ্ছেন তারা।

যুবরাজের এ সফরে দুদেশের মধ্যে হাজার কোটি ডলারের বিনিয়োগ চুক্তিতে সই হওয়ার কথা রয়েছে।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে পাকিস্তানের বিদেশি মুদ্রার রিজার্ভ কমে যেতে শুরু করলে দেশটির অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখতে প্রায় ৬০০ কোটি ডলার ঋণ দেয় সৌদি আরব।

যখন আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের কাছ থেকে অর্থনৈতিক সহায়তার জন্য পাকিস্তান দেনদরবার করছে, তখন সৌদির এ সহায়তা দেশটিকে নিঃশ্বাস নেয়ার সুযোগ করে দিচ্ছে।

বিশ্লেষকরা বলছেন, ২০১৫ সালে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সফরের পর যুবরাজের এ আগমনকে সবচেয়ে বড় রাষ্ট্রীয় সফর হিসেবে আখ্যায়িত করছে ইসলামাবাদ।

শি জিনপিংয়ের সফরের পর চীনের বৈশ্বিক বেল্ড অ্যান্ড রোড ইনিশিয়েটিভের অংশ হিসেবে অবকাঠামো খাতে কোটি কোটি ডলারের বিনিয়োগের ঘোষণা দেয় বেইজিং।

তবে সৌদি যুবরাজের এ সফর দুই দেশের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্কেরই প্রতিচ্ছবি হয়ে উঠছে। পাকিস্তানের কঠিন সময়ে তেলসমৃদ্ধ অর্থনীতির দেশ সৌদি আরব সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছে এবং দিচ্ছে।

বিনিময়ে পাকিস্তানের শক্তিশালী সেনাবাহিনী সৌদি আরব ও তাদের রাজপরিবারকে উদারহস্তে সাহায্য করেছে।

ইসলামধর্মের বিকাশের প্রাণকেন্দ্র সৌদি আরবের অধিকাংশ পবিত্র স্থানের অভিভাবক হিসেবে পাকিস্তানে সৌদি রাজপরিবারের ব্যাপক প্রভাব রয়েছে। খুবই গোড়া রক্ষণশীল ও মুসলিমপ্রধান পাকিস্তানে ২০ কোটি ৮০ লাখ লোকের বসবাস।

মুসলিম দেশগুলোর মধ্যে একমাত্র পাকিস্তানেরই পারমাণবিক অস্ত্র রয়েছে।

বৈশ্বিক ও স্থানীয় নীতিবিষয়ক পাকিস্তানি থিংকট্যাংক তাবাদলাবের জ্যেষ্ঠ ফেলো মোশাররফ জায়দি বলেন, দুই দেশের সম্পর্কের মধ্যে যা ঘটছে, তা হচ্ছে- সৌদি রাজপরিবার ও দেশটির বিদ্যমান ব্যবস্থার সুরক্ষায় নতুন প্রতিশ্রুতি দেবে পাকিস্তান।

তিনি বলেন, অন্যদিকে সৌদি আরব কেবল কৌশলগত বন্ধু হিসেবেই থাকছে না, যখন দরকার পড়ে তখন পাকিস্তানকে অর্থনৈতিক সহায়তাও দিচ্ছে। এখন নতুন করে যা ঘটছে, তা হচ্ছে- দেশটিতে ব্যাপকভিত্তিক বিনিয়োগে অংশ নিতে যাচ্ছে তেলকেন্দ্রিক অর্থনীতির সৌদি।

যুবরাজের সফর উপলক্ষে আকাশপথ পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছে পাকিস্তান। রাজধানীতে কঠোর নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। কারণ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ইমরান খান গদিতে বসার পর তিনিই হচ্ছেন পাকিস্তানে বড়মাপের কোনো বৈদেশিক অতিথি।

করদাতাদের অর্থ বাঁচাতে প্রধানমন্ত্রী বাসভবন ব্যবহার করতে অস্বীকার করছেন সাবেক ক্রিকেট কিংবদন্তি ইমরান খান।

সৌদি আরব থেকে বড় ধরনের বিনিয়োগের পাকিস্তানি প্রত্যাশায় শনিবার একটি ধাক্কা লেগেছে। কারণ এদিন পাক-সৌদি ব্যবসায় সম্মেলন স্থগিত করেছে দেশটির সরকার।

তবে পাকিস্তানি কর্মকর্তারা ইতিমধ্যে বলেছেন, সৌদি আরবের সঙ্গে তারা আটটি বিনিয়োগ চুক্তি করতে যাচ্ছেন। যার মধ্যে এক হাজার কোটি ডলারের উপকূলীয় শহর গওধারে তেল পরিশোধনাগার ও পেট্রোকেমিক্যাল কমপ্লেক্স রয়েছে। যদিও সেখানে চীন একটি বন্দর নির্মাণ করেছে।

কিন্তু সৌদি যুবরাজ এমন একসময় সফরটি করছেন, যখন প্রতিবেশী ভারত আন্তর্জাতিকভাবে পাকিস্তানকে একঘরে করার প্রতিজ্ঞা করে বসে আছে।

বৃহস্পতিবার গত কয়েক দশকের মধ্যে সবচেয়ে প্রাণঘাতী হামলা হয়েছে ভারতনিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে।

বিদ্রোহী গোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদের (জেইএম) বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নিতে পাকিস্তানের প্রতি আহ্বান জানিয়ে আসছে নয়াদিল্লি। ভারতের অভিযোগ, কাশ্মীরে বোমা হামলায় জেইএমকে সহায়তা করেছে ইসলামাবাদ।

পাকিস্তান সফরে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান, সেনাপ্রধান কামার জাভেদ বাজওয়ার সঙ্গে বৈঠকে বসবেন সৌদি যুবরাজ।

এ ছাড়া ১৭ বছরের দীর্ঘ আফগান যুদ্ধ বন্ধ করতে শান্তি আলোচনার অংশ হিসেবে তালেবান প্রতিনিধিদের সঙ্গে তার বৈঠকের কথা রয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : সৌদি যুবরাজের পাকিস্তান সফর

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×