নিউজিল্যান্ডে জিন্স প্যান্ট বাঁচালো জার্মান নাবিকের প্রাণ (ভিডিও)

  যুগান্তর ডেস্ক ২০ মার্চ ২০১৯, ২০:৫৭ | অনলাইন সংস্করণ

নিউজিল্যান্ডে একটি জিন্স প্যান্ট বাঁচালো জার্মান নাবিককে (ভিডিও)
জিন্স প্যান্টকে লাইফ জ্যাকেট বানিয়ে ভেসে আছেন জার্মান নাবিক। ছবি: ইন্সটাগ্রাম

একটি জিন্সের প্যান্ট বাঁচিয়ে দিল এক ব্যক্তির প্রাণ। তাও আবার কূল কিনারাহীন উত্তাল সমুদ্র থেকে।

ঘটনাটি ঘটেছে চলতি মাসের ৬ তারিখে নিউজিল্যান্ডের তীরবর্তী উত্তাল ওশানিয়া সাগরে। উপস্থিত বুদ্ধি দিয়ে নিজের প্রাণ বাঁচালেন আর্নে মুর্কে নামের ৩০ বছর বয়সী এক জার্মান নাবিক।

ওই জার্মান নাবিক উদ্ধার হওয়ার পর জানা গেছে, সমুদ্রের ঢেউয়ে ভেসে ভেসে দেহে শক্তি সঞ্চয় করে রাখতে তিনি নিজের জিন্সের প্যান্ট দিয়ে এক ধরনের লাইফ জ্যাকেট তৈরি করে পিঠে জড়িয়ে নেন। আর এটা দিয়ে তিনি চার ঘন্টা ওই সমুদ্রে ভেসেছিলেন ঢেউয়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়েই।

উদ্ধারকারী দল নীল সমুদ্রে হেলিকপ্টারে চড়ে প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টা খোঁজ করে তাকে চিহ্নিত করে। তারা দেখতে পান নিখোঁজ নাবিক পানিতে দিব্যি ভাসছেন। এরপর তারা তাকে উদ্ধার করে ডাঙার নিয়ে আসেন। সুত্রঃ নিউজিল্যান্ড হেরাল্ড

তবে তার আগে মুর্কের সেই ভেসে থাকার ছবি তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে দেন উদ্ধারকারী দলের কেউ, যা রীতিমত ভাইরাল। উদ্ধারকার্য ভিডিও করা হয়।

দেখুন সেই ভিডিওটি -

সাক্ষাৎ মৃত্যুর দুয়ার থেকে বেঁচে ফিরে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম নিউজিল্যান্ড হেরাল্ডকে আর্নে মুর্কে জানান, মার্চ মাসের শুরুতে ভাইসহ নিউজিল্যান্ডে বেড়াতে এসেছিলেন। ৬ মার্চ সহোদরকে সঙ্গে নিয়ে নিউজিল্যান্ডের উত্তর উপকূলের সমুদ্র তোলাগা বেতে নৌকা নিয়ে ভেসে পড়েন। নৌকা গভীর সমুদ্রে গেলে হঠাতই উত্তাল ঢেউয়ে তা উল্টে যায়। দুজনেই অথই সমুদ্রে পড়ে যান। এসময় মুর্কের ভাই তার দিকে লাইফ জ্যাকেট ছুঁড়ে দিলেও স্রোতের মুখে মুর্কে সেই লাইফ জ্যাকেটটি ধরতে পারেননি। উল্টো নিজেই হারিয়ে যান নীল সমুদ্রে। সহোদর তীরে উঠতে পারলেও হারিয়ে যান মুর্কে।

মুর্কে বলেন, ভাগ্যিস জিন্স দিয়ে কীভাবে লাইফ জ্যাকেট বানাতে হয় জানতাম! জিন্স প্যান্ট না পড়ে এলে আজ হয়তো সমুদ্রেই সলিল সমাধি হতো।

উদ্ধারকারী দলের সিনিয়র সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ কো-অর্ডিনেটর ক্রিস হেনসো বলেন, মুর্কের নৌকোয় ভিএইচএফ রেডিও এবং ইমার্জেন্সি বেকন এই দুটো যন্ত্র থাকায় আমরা সংকেত পেয়েছিলাম। তবুও তাকে খুঁজে পেতে প্রায় দাড়ে তিন ঘন্টা সমুদ্র চষে বেড়াতে হয়েছিল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×