‘নিউজিল্যান্ডে মুসলমানরা নিরাপদ, সুরক্ষিত’

  যুগান্তর ডেস্ক ২২ মার্চ ২০১৯, ১৪:৫৩ | অনলাইন সংস্করণ

‘নিউজিল্যান্ডে মুসলমানরা নিরাপদ, সুরক্ষিত’
ছবি: এএফপি

নিজ ভূখণ্ডের মুসলিম নাগরিকদের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দিয়েছে নিউজিল্যান্ড।

ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে এক অস্ট্রেলীয় শ্বেতাঙ্গ বর্ণবাদীর হামলায় অর্ধশত মুসলমান নিহত হওয়ার পরও দেশটি বলছে- মুসলমানরা এখানে নিরাপদ ও সুরক্ষিত থাকবে।-খবর এএফপির

তুরস্কের ইস্তানবুলে ইসলামিক সহযোগিতা সংস্থার (ওআইসি) এক জরুরি বৈঠকে নিউজিল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইনস্টন পেটারস বলেন, বিশেষভাবে মুসলিম সম্প্রদায়কে নিরাপত্তা ও সুরক্ষার নিশ্চয়তা দিয়েছি।

মুসলমানদের প্রতি সংহতি বার্তার জন্য নিউজিল্যান্ডের প্রশংসা করেছেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুট কাভুসগলু।

তিনি বলেন, বিশ্বজুড়ে ইসলামবিদ্বেষী পদক্ষেপের বিরুদ্ধে আমাদের অবস্থান। আমরা এখানে সেটিই দেখাতে চাই।

এর আগে নিউজিল্যান্ডে শুক্রবার যখন আজানের ধ্বনিতে মুখরিত হচ্ছিল, তখন ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদের বিপরীত পাশের হ্যাগলি পার্কে জড়ো হন কয়েক হাজার মানুষ। গত সপ্তাহে এখানকার দুটি মসজিদে খ্রিস্টান বর্ণবাদীদের হামলায় অর্ধশত মুসল্লি নিহত হওয়ার ঘটনায় সংহতি প্রকাশ করতে তারা ২ মিনিট নীরবতা পালন করেন।

হ্যাগলি পার্কে পাঁচ হাজারের বেশি মানুষ সমবেত হন। যাদের একটি বড় অংশ গত শুক্রবার শ্বেতাঙ্গ বর্ণবাদীর এলোপাতাড়ি গুলিতে আহত হয়েছেন। নীরবতা পালন কর্মসূচির নেতৃত্ব দেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আরডান।

নীরবতা ভাঙার পর তিনি বলেন, পুরো নিউজিল্যান্ড আপনাদের সঙ্গে রয়েছেন, আপনাদের সঙ্গে শোক প্রকাশ করছেন। আমরা সবাই এক।

সন্ত্রাসী হামলায় হতাহতদের অধিকাংশ অভিবাসী। পাকিস্তান, ভারত, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া, তুরস্ক, সোমালিয়া, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশ থেকে যারা শান্তির খোঁজে দেশটিতে পাড়ি জমিয়েছিলেন।

মন্ত্রী ও নিরাপত্তা বাহিনীর বেষ্টনীর ভেতরে অবস্থান করা আরডানের মাথায় কালো পোশাক ও হিজাব পরা ছিল। এমনকি হ্যাগলি পার্কের নারী পুলিশরাও একটি লাল গোলাপসহ কালো হিজাব পরেছিলেন।

আল নুর মসজিদের ইমাম জামাল ফাওদা ২০ মিনিটের মতো খুতবা দেন আজকের জুমার নামাজে। সহানুভূতি প্রকাশের জন্য তিনি আরডানকে ধন্যবাদ দেন।

কিউ প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে তিনি বলেন, এটি বিশ্বনেতাদের জন্য একটি শিক্ষা। হিজাব পরে আমাদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ ও পরিবারগুলোর প্রতি আপনার সহানুভূতির জন্য ধন্যবাদ।

তিনি বলেন, ইসলাম বিদ্বেষের মাধ্যমে মুসলমানদের মানবিক অধিকার কেড়ে নেয়া হচ্ছে। কাজেই ঘৃণা প্রচার ও ভয়ের রাজনীতি বন্ধের আহ্বান জানিয়েছেন জামাল ফাওদা।

ওয়েলিংটন, অকল্যান্ডসহ অন্যান্য শহরের মসজিদে হাজার হাজার লোক জমায়েত হয়েছেন। এ ছাড়া দেশটির অমুসলিম নারীরা সংহতি প্রকাশ করতে আজ হিজাব পরেছেন।

ঘটনাপ্রবাহ : নিউজিল্যান্ডে মসজিদে এলোপাতাড়ি গুলি

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×