২ তরুণীকে জোর করে ধর্মান্তর, ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ ইমরানের

  যুগান্তর ডেস্ক ২৪ মার্চ ২০১৯, ১৬:০৫ | অনলাইন সংস্করণ

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান
প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। ফাইল ছবি

পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশের দুই হিন্দু তরুণীকে অপহরণের পর জবরদস্তিমূলক ধর্মান্তরিত করার অভিযোগে দায়ীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। খবর ডনের।

দুই তরুণীকে ধর্মান্তরের পর তাদের অনিচ্ছায় জোর করে বিয়ে করার অভিযোগে তোলপড়া সৃষ্টি হলে রোববার সিন্ধু ও পাঞ্জাব সরকারকে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

ওই তরুণীদের বাবা ও ভাই সামাজিকমাধ্যমে এক ভিডিওতে বলেন, আমার দুই বোনকে জোরপূর্বক হিন্দুধর্ম থেকে মুসলিম ধর্মে ধর্মান্তরিত করা হয়েছে। তারা বলেন, তাদের মেয়েকে ঘোটকি নামক স্থান থেকে রহিম ইয়ার খান নামক স্থানে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

কিন্তু অপর একটি ভিডিওতে দেখা গেছে, ওই দুই তরুণী বলছেন তারা স্বেচ্ছায় ইসলাম ধর্মগ্রহণ করেছেন। কেউ তাদের ওপর জোর করেনি।

এরই পরিপ্রেক্ষিতে দুটি টুইটবার্তায় পাকিস্তানের তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সিন্ধু ও পাঞ্জাব সরকারকে এ বিষয়ে তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন।

যদি সত্যিই তাদের অন্যত্র সরানো হয়, তা হলে দ্রুত তাদের উদ্ধার করে নিজ শহরে ফিরিয়ে আনার নির্দেশ দেন।

টুইটে আরও বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সিন্ধু সরকারকে এ বিষয়ে খুব দ্রুত কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত দোল উৎসবের আগে গত বুধবার পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশের ঘোটকি এলাকা থেকে নিরুদ্দেশ হয়ে যায় ১২ বছরের রবিনা ও ১৪ বছরের রিনা।

অভিযোগে বলা হয়, ঘোটকির ধারকি শহরের হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন যখন দোল উৎসবের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত ছিল, তখনই অপহরণ করে নিয়ে যাওয়া হয় রবিনা ও রিনাকে।

এর পর অভিযোগ ওঠে, অপহরণ করে তাদের জোর করে ইসলাম ধর্মে ধর্মান্তরিতও করা হয়েছে।

শনিবার একটি ভিডিও ভাইরাল হতেই উত্তাল হয়ে ওঠে পাকিস্তানের সিন্ধুপ্রদেশ।

ভিডিওতে স্পষ্ট দেখা গেছে, বিয়ে দিয়ে দুই নাবালিকাকে ইসলাম ধর্মে দীক্ষিত করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করা হয়। প্রতিবাদে সকাল থেকে রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ শুরু করেন স্থানীয় হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজন।

ভিডিও: https://twitter.com/i/status/1109190194249560065

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×