যুবককে ৭৭ হাজার বার ফোন করে গ্রেফতার তরুণী!

প্রকাশ : ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ২০:১২ | অনলাইন সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

অভিযুক্ত তরুণী লিন্ডা মারফি। ছবি: সংগৃহীত

জনৈক যুবককে এক সপ্তাহে ৭৭ হাজার বার ফোন করার রেকর্ড গড়েছেন মেক্সিকোর এক তরুণী। ফোনের পাশাপাশি এসএমএস, ই-মেইল, চিঠি পাঠিয়েও রেকর্ড গড়েছেন তিনি।

তবে এ রেকর্ড তার বিপদই ডেকে এনেছে।  গ্রেফতার হয়েছেন লিন্ডা মারফি নামের ২৮ বছর বয়সী ওই তরুণী।

ওয়ার্ল্ড নিউজ ডেইলি ডট কম জানিয়েছে, উইলিয়াম রায়ানস নামের এক যুবকের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়েন লিন্ডা মারফি নামের ওই তরুণী। কিন্তু তাদের সেই প্রেম বেশিদিন টেকেনি। কয়েকদিনের মধ্যেই সম্পর্ক ভেঙে দেন উইলিয়াম।

এতে ক্ষুব্দ হন লিন্ডা। সম্পর্ক জোড়া লাগাতে বারবার উইলিয়ামকে ফোন করতে থাকেন তিনি।

লিন্ডার কোনো ফোন রিসিভ না করে আলবুকারিন পুলিশ ডিপার্টমেন্টে অভিযোগ করেন উইলিয়াম।  পুলিশ লিন্ডার ফোনের কল হিস্ট্রি পরীক্ষা করে দেখেন, এক সপ্তাহে ৭৭ হাজার ৬৩৯ বার ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করেছেন লিন্ডা।

এছাড়াও এই সময়ের মধ্যে সাবেক প্রেমিক উইলিয়ামকে ১ হাজার ৯৩৭ টি ইমেইল, ৪১ হাজার ২২৯টি এসএমএস এবং ২১৭টি ভয়েস ম্যাসেজ পাঠিয়েছেন লিন্ডা ।

এতেই তিনি ক্ষান্ত হননি।উইলিয়ামকে হাতে লিখে ৬৪৭টি চিঠি দিয়েছেন লিন্ডা।

তদন্ত শেষে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় লিন্ডাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতারের পর লিন্ডার মানসিক বিষয়টি পরীক্ষা করেছেন স্থানীয় চিকিৎসকরা।

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে আলবুকারিন পুলিশ ডিপার্টমেন্ট থেকে জানানো হয়েছে, অবসেসিভ কমপালসিভ ডিজঅর্ডার নামের এক বিশেষ মানসিক রোগে আক্রান্ত লিন্ডা। এই রোগে আক্রান্তরা একই কাজ বারবার করতে আনন্দ বোধ করেন।

উইলিয়ামের সঙ্গে সম্পর্কে চিড় ধরার পর সেই অসুখটি লিন্ডাকে আরও জেঁকে ধরে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

তিনটি ফোন থেকে একসঙ্গে উইলিয়ামের বাড়ির ল্যান্ডফোন, মোবাইল ও অফিসের ফোনে ক্রমাগত কল দিয়েছেন বলে পুলিশের কাছে স্বীকার করেছেন লিন্ডা। রাতে ফোন করার বিষয়টি চালু রাখতে বিশেষ ধরনের এনার্জি ড্রিংক ও অ্যামফেটামাইন জাতীয় ওষুধও খেতেন লিন্ডা।