লাখ লাখ ভক্তকে কাঁদিয়ে চলে গেল ‘গ্রাম্পি ক্যাট’

  যুগান্তর ডেস্ক    ১৯ মে ২০১৯, ০৭:৫৪ | অনলাইন সংস্করণ

গ্রাম্পি ক্যাট
গ্রাম্পি ক্যাট। ছবি: সংগৃহীত

ছোট্ট একটি বিড়াল। মুখে প্রবল গাম্ভীর্য আর চোখের ভঙ্গিমায় সহজেই সবার নজর কেড়ে নিয়েছিল। হাবভাবের কারণে ছোট্ট এই বিড়ালটি ইন্টারনেটে বেশ পরিচিত। তার গুরুগম্ভীর হাবভাব আর রাগী চেহারার জন্য নাম দেয়া হয়েছিল ‘গ্রাম্পি ক্যাট’। যদিও বিড়ালটির আসল নাম আসল নাম টারদার সস।

গুরুগম্ভীর হাবভাবের জন্য ইন্টারনেটে শতসহস্র মানুষের মন জয় করে নিয়েছিল গ্রাম্পি। ছবি থেকে ভিডিও শেয়ার করলেই পড়ত হাজার হাজার লাইক। মানুষের ভালবাসা পেয়ে রীতিমতো স্টার সেলিব্রিটি হয়ে উঠেছিল বিড়ালটি। এমনকি তার সঙ্গে ছবি তুলেছেন স্ট্যান লি, জেনিফার লোপেজদের মতো তারকারা।

লাখ লাখ ভক্তকে কাঁদিয়ে মারা গেছে সেই সেলিব্রিটি বিড়ালটি। আমেরিকার লস অ্যাঞ্জেলসের একটি পরিবারের বিড়ালটি মাত্র ৭ বছর বয়সে মৃত্যু হয়েছে। ‘গ্রাম্পি ক্যাট’র তার আকস্মিক মৃত্যুতে শোকস্তব্ধ পরিবার ও অসংখ্য অনুরাগী।

শুক্রবার বিড়ালটির মৃত্যুর খবরটি প্রকাশ্যে এসেছে। তার মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসতেই সোশ্যাল সাইটে শোকপ্রকাশ করেছেন অনেকেই।

ওই বিড়ালটির মালিক তাবাথা বান্ডিসেনের বরাত দিয়ে সিএনএন জানিয়েছেন, অত্যন্ত আদরেই তাদের কাছে থাকত ও। বিড়ালটির মৃত্যুতে তারা সবাই শোকাহত। তাদের পরিবারেরই এক সদস্য ছিল। তাদের সন্তানের মতো।

তিনি জানান, সম্প্রতি অসুস্থ হয়ে পড়েছিল ওই বিড়ালটি। পরীক্ষানিরীক্ষার পর মূত্রে সংক্রমণ ধরা পড়েছিল তার। চিকিৎসাও চলছিল গ্রাম্পির। কিন্তু, অনেক চেষ্টা করেও বাঁচানো গেল না গ্রাম্পিকে।

২০১২ সালে প্রথম একটি ছবি পোস্ট হয় গ্রাম্পি ক্যাট খ্যাত বিড়ালটির। হাবভাবের জন্য প্রথম ছবি প্রকাশ্যে আসার পরেই সকলের নজরে পড়ে এই বিড়াল। এরপর সময়ের সঙ্গে সঙ্গে প্রকাশ্যে আসে তার একাধিক ছবি। তারপর থেকেই জনপ্রিয়তা বাড়তে থাকে ইন্টারনেট দুনিয়ায়। গ্রাম্পির গম্ভীর চালচলনে মজা পেত সবাই।

২০১৪ সালে তাকে নিয়ে তৈরি করা হয়েছিল একটা সিনেমাও। ছবির নাম ‘Grumpy Cat’s Worst Christmas Ever’। ওই ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয়ও করেছিল বিড়ালটি। এছাড়া তার ছবি নিয়ে তৈরি হয়েছে অ্যালবাম, খেলনা, আরও কত কী!

নেটদুনিয়ায় বিড়ালটির ভক্তের অভাব নেই। ফেসবুকে গ্রাম্পির ফলোয়ার ৮৫ লাখ, ইনস্টাগ্রামে ২৫ লাখ আর টুইটারে ফলোয়ারের সংখ্যা ১৫ লাখের বেশি। বিড়ালটির মৃত্যুতে তারা সবাই শোকাহত৷

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×