এবার প্রতিবাদী কবিতা লিখলেন মমতা

  যুগান্তর ডেস্ক ২৫ মে ২০১৯, ২৩:১০ | অনলাইন সংস্করণ

এবার প্রতিবাদী কবিতা লিখলেন মমতা
ছবি: সংগৃহীত

এবার সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে কলম ধরলেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। যদিও এ কবিতায় কারও নাম উল্লেখ করেননি তিনি।

তবে ধরে নেয়া হচ্ছে, এতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও তার হিন্দুত্ববাদী ভারতীয় জনতা পার্টির সভাপতি অমিত শাহকেই তিনি নিশানা করেছেন।-খবর এনডিটিভি অনলাইনের

বৃহস্পতিবার ভারতীয় লোকসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশ করা হয়েছে। এতে গোটা দেশের মতো পশ্চিমবঙ্গেও ভালো ফল করেছে বিজেপি।

মমতা লেখেন, সাম্প্রদায়িকতার রঙে আমি বিশ্বাস করি না। আমি ধর্মীয় উগ্রতাতেও আস্থা রাখি না। যে ধর্ম মানুষের থেকে উঠে আসে আমার আস্থা শুধু তাতেই।

কবিতায় পশ্চিমবঙ্গের সন্ত্রাসের কথাও উঠে এসেছে। সাত দফার নির্বাচনে প্রতিদিন রাজ্যের একাধিক জায়গায় গোলমাল হয়েছে। নির্বাচনী শোভাযাত্রায় কলকাতাতে বিদ্যাসাগরের মূর্তি ভাঙা হয়েছে। মমতা ব্যানার্জির কবিতায় সেই কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

এদিকে ভারতে লোকসভা নির্বাচনে আশানুরূপ ফল না পাওয়ায় শনিবার বিকালে দলের বৈঠক ডেকেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

বৈঠকে তিনি মুখ্যমন্ত্রীর পদ ছেড়ে দলীয় প্রধান হিসেবে কাজ করতে চেয়েছিলেন। তবে দলের আপত্তিতে তা করতে পারেননি বলে জানিয়েছেন তিনি।

ভারতীয় গণমাধ্যম জানায়, ভোটের ফলাফল ঘোষণার পর শনিবার শহরের কালীঘাট এলাকায় তার নিজ বাসভবনে দলীয় বৈঠক ডাকেন মমতা। পরে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা জানান। এ সময় দলের বিজয়ী ২২ সংসদ সদস্যের পাশাপাশি পরাজিত প্রার্থীরাও উপস্থিত ছিলেন।

তিনি বলেন, আজকের বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী পদ ছাড়তে চেয়েছিলাম। শুধু দলের প্রধান হিসেবে কাজ চালাব বলেছিলাম, কিন্তু দল মানল না।

তিনি মুসলিমদের রমজানে ইফতার নিয়ে বলেন, আমি ইফতারে যাচ্ছি।১০০ বার যাব। যে গরু দুধ দেয়, তার লাথি খাওয়া ভালো।

দলের মধ্যে বিশ্বাসঘাতকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থার কথা জানিয়ে মমতা বলেন, তৃণমূলের যারা বিজেপির থেকে টাকা নিয়ে বিজেপির হয়ে কাজ করেছেন, তাদের চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিয়েছি।

দেশটির গণমাধ্যমের সমালোচনা করে তিনি বলেন, সংবাদ মাধ্যমও বিজেপির হয়ে কাজ করেছে। আমি এখনও বিশ্বাস করি, ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াইতে নেতৃত্ব দেবে বাংলা। মানুষ ওদের বিশ্বাস করবে না। আমি ভবিষ্যদ্বাণী করছি না। কিন্তু ওদের আসলটা বুঝতে একটু সময় লাগবে।

রাজ্যের ৪২টি আসনের মধ্যে ২২টিতে জিতেছেন তৃণমূল প্রার্থীরা। ১৮টিতে জিতেছেন বিজেপি প্রার্থীরা। কংগ্রেস জিতেছে দুটি আসনে। গত নির্বাচনে মমতার তৃণমূল পেয়েছিল ৩৪টি আসন।

বামপন্থীরা লজ্জাজনকভাবে হেরেছে এবার। কোনো আসনেই জিততে পারেনি তারা। অথচ টানা ত্রিশ বছরেরও বেশি সময় পশ্চিমবঙ্গের ক্ষমতা ছিল বামদের হাতে। পশ্চিমবঙ্গের একটি আসন ছাড়া বাকি সব আসনে বাম প্রার্থীদের জামানত পর্যন্ত বাজেয়াপ্ত হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : ভারতের জাতীয় নির্বাচন-২০১৯

আরও
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×