যে কোনো হুমকি মোকাবিলায় দ্বিধা করা হবে না: ইরানকে সৌদি যুবরাজ
jugantor
যে কোনো হুমকি মোকাবিলায় দ্বিধা করা হবে না: ইরানকে সৌদি যুবরাজ

  যুগান্তর ডেস্ক  

১৬ জুন ২০১৯, ১৭:০৮:৫০  |  অনলাইন সংস্করণ

যে কোনো হুমকি মোকাবিলায় দ্বিধা করা হবে না: ইরানকে সৌদি যুবরাজ

ওমান উপসাগরে দুটি তেল ট্যাংকারে হামলার ঘটনার পর প্রথমবারের মতো প্রকাশ্যে কথা বলেছেন সৌদি সিংহাসনের উত্তরসূরি মোহাম্মদ বিন সালমান। ওই হামলার দায় ইরানের ঘাড়ে চাপিয়ে হুশিয়ারি উচ্চারণ করে যুবরাজ বলেন, সৌদি আরবের স্বার্থের বিরুদ্ধে যেকোনো হুমকি মোকাবিলায় কোনো দ্বিধা করা হবে না।-খবর গার্ডিয়ান ও রয়টার্সের

তবে এ ক্ষেত্রে সৌদি আরব কোনো যুদ্ধে জড়াতে চায় না বলে জানিয়েছেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।

সৌদি মালিকানাধীন আস-শারক আল-আওসাত পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, তেহরানে জাপানি প্রধানমন্ত্রীর সফরকে সম্মান দেখায়নি ইরান সরকার। উত্তেজনা কমাতে অ্যাবে যে ভূমিকা রাখতে চেষ্টা করছেন, তার জবাবে দুটি তেল ট্যাংকারে হামলা চালিয়ে জবাব দিয়েছে ইরান।

রোববার প্রকাশিত ওই সাক্ষাতকারে ইরানের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক চূড়ান্ত অবস্থান দাবি করেছেন সৌদি যুবরাজ।

এদিকে বৃহস্পতিবার ইরান উপকূলে তেল ট্যাংকারে হামলার ঘটনায় ইরানকে দুষছে যুক্তরাষ্ট্র। এতে মধ্যপ্রাচ্যে বড় ধরনের সংঘাতের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

তবে বৈশ্বিক জাহাজ চলাচল ও তেল পরিবহনের এক অপরিহার্য জলপথ হরমুজ প্রণালীর দক্ষিণে ওই হামলার ঘটনায় নিজেদের কোনো ভূমিকা থাকার কথা অস্বীকার করেছে তেহরান।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনা প্রশমনে ভূমিকা রাখতে জাপানের প্রধানমন্ত্রী সিনজো অ্যাবে যখন ইরান সফরে যান, তখন নরওয়েজিয়ান মালিকানাধীন ফ্রন্ট অ্যালটায়ার ও জাপানি মালিকানাধীন কোকুকা কারেইজাস নামের ট্যাংকার দুটিতে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

যুদ্ধের প্রতি নিজের অনাগ্রহ পুনর্ব্যক্ত করে মোহাম্মদ বিন সালমান বলেন, সৌদি আরব যুদ্ধ না চাইলেও জনগণ এবং গুরুত্বপূর্ণ যেকোনো স্বার্থের বিরুদ্ধে হুমকির মোকাবিলায় কোনো দ্বিধা করবে না।

যে কোনো হুমকি মোকাবিলায় দ্বিধা করা হবে না: ইরানকে সৌদি যুবরাজ

 যুগান্তর ডেস্ক 
১৬ জুন ২০১৯, ০৫:০৮ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
যে কোনো হুমকি মোকাবিলায় দ্বিধা করা হবে না: ইরানকে সৌদি যুবরাজ
ছবি: গার্ডিয়ান

ওমান উপসাগরে দুটি তেল ট্যাংকারে হামলার ঘটনার পর প্রথমবারের মতো প্রকাশ্যে কথা বলেছেন সৌদি সিংহাসনের উত্তরসূরি মোহাম্মদ বিন সালমান। ওই হামলার দায় ইরানের ঘাড়ে চাপিয়ে হুশিয়ারি উচ্চারণ করে যুবরাজ বলেন, সৌদি আরবের স্বার্থের বিরুদ্ধে যেকোনো হুমকি মোকাবিলায় কোনো দ্বিধা করা হবে না।-খবর গার্ডিয়ান ও রয়টার্সের

তবে এ ক্ষেত্রে সৌদি আরব কোনো যুদ্ধে জড়াতে চায় না বলে জানিয়েছেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান।

সৌদি মালিকানাধীন আস-শারক আল-আওসাত পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাতকারে তিনি বলেন, তেহরানে জাপানি প্রধানমন্ত্রীর সফরকে সম্মান দেখায়নি ইরান সরকার। উত্তেজনা কমাতে অ্যাবে যে ভূমিকা রাখতে চেষ্টা করছেন, তার জবাবে দুটি তেল ট্যাংকারে হামলা চালিয়ে জবাব দিয়েছে ইরান।

রোববার প্রকাশিত ওই সাক্ষাতকারে ইরানের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক চূড়ান্ত অবস্থান দাবি করেছেন সৌদি যুবরাজ।

এদিকে বৃহস্পতিবার ইরান উপকূলে তেল ট্যাংকারে হামলার ঘটনায় ইরানকে দুষছে যুক্তরাষ্ট্র। এতে মধ্যপ্রাচ্যে বড় ধরনের সংঘাতের আশঙ্কা তৈরি হয়েছে।

তবে বৈশ্বিক জাহাজ চলাচল ও তেল পরিবহনের এক অপরিহার্য জলপথ হরমুজ প্রণালীর দক্ষিণে ওই হামলার ঘটনায় নিজেদের কোনো ভূমিকা থাকার কথা অস্বীকার করেছে তেহরান।

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনা প্রশমনে ভূমিকা রাখতে জাপানের প্রধানমন্ত্রী সিনজো অ্যাবে যখন ইরান সফরে যান, তখন নরওয়েজিয়ান মালিকানাধীন ফ্রন্ট অ্যালটায়ার ও জাপানি মালিকানাধীন কোকুকা কারেইজাস নামের ট্যাংকার দুটিতে এই বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে।

যুদ্ধের প্রতি নিজের অনাগ্রহ পুনর্ব্যক্ত করে মোহাম্মদ বিন সালমান বলেন, সৌদি আরব যুদ্ধ না চাইলেও জনগণ এবং গুরুত্বপূর্ণ যেকোনো স্বার্থের বিরুদ্ধে হুমকির মোকাবিলায় কোনো দ্বিধা করবে না।

 

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন-ইরান সংকট