পাল্টা জবাবে ২৮ মার্কিন পণ্যে শুল্ক চাপাল ভারত
jugantor
পাল্টা জবাবে ২৮ মার্কিন পণ্যে শুল্ক চাপাল ভারত

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৬ জুন ২০১৯, ১৭:১৭:১১  |  অনলাইন সংস্করণ

মোদি-ট্রাম্প

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদির শপথগ্রহণের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পণ্য রফতানির ক্ষেত্রে ভারতকে দেয়া বিশেষ বাণিজ্যিক সুবিধা (জিএসপি) বাতিল করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এরই পাল্টা জবাবে ২৮টি মার্কিন পণ্যের ওপর চড়া আমদানি শুল্ক চাপাল মোদি সরকার।

রোববার থেকেই এই শুল্ক কার্যকর হবে বলে শনিবার ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতির মাধ্যমে জানানো হয়। খবর সিএনএন ও আনন্দবাজারের।

এই শুল্কের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আমদানি করা আপেল, আখরোট, আমন্ডের মতো ২৮টি পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি পাবে।

বাণিজ্য ঘাটতি মেটাতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ৫ জুন ভারতের ওপর থেকে জিএসপি সুবিধা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন।

এতে ওয়াশিংটনের প্রতি অসন্তুষ্ট হয় নয়াদিল্লি। কারণ, জিএসপি সুবিধার মাধ্যমে ৫৬০ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য কোনো শুল্ক ছাড়াই রফতানি করতে পারত ভারত।

জিএসপি সুবিধা বাতিলের ফলে সেই সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয় ভারত। এরই পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিন ২৮টি পণ্যে শুল্ক বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেয় ভারত।

পাল্টা জবাবে ২৮ মার্কিন পণ্যে শুল্ক চাপাল ভারত

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৬ জুন ২০১৯, ০৫:১৭ পিএম  |  অনলাইন সংস্করণ
মোদি-ট্রাম্প
মোদি-ট্রাম্প। ফাইল ছবি

প্রধানমন্ত্রী হিসেবে নরেন্দ্র মোদির শপথগ্রহণের ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই পণ্য রফতানির ক্ষেত্রে ভারতকে দেয়া বিশেষ বাণিজ্যিক সুবিধা (জিএসপি) বাতিল করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এরই পাল্টা জবাবে ২৮টি মার্কিন পণ্যের ওপর চড়া আমদানি শুল্ক চাপাল মোদি সরকার।

রোববার থেকেই এই শুল্ক কার্যকর হবে বলে শনিবার ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে এক বিবৃতির মাধ্যমে জানানো হয়। খবর সিএনএন ও আনন্দবাজারের।

এই শুল্কের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র থেকে আমদানি করা আপেল, আখরোট, আমন্ডের মতো ২৮টি পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি পাবে।

বাণিজ্য ঘাটতি মেটাতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গত ৫ জুন ভারতের ওপর থেকে জিএসপি সুবিধা প্রত্যাহারের ঘোষণা দেন।

এতে ওয়াশিংটনের প্রতি অসন্তুষ্ট হয় নয়াদিল্লি। কারণ, জিএসপি সুবিধার মাধ্যমে ৫৬০ কোটি মার্কিন ডলার মূল্যের পণ্য কোনো শুল্ক ছাড়াই রফতানি করতে পারত ভারত।

জিএসপি সুবিধা বাতিলের ফলে সেই সুবিধা থেকে বঞ্চিত হয় ভারত। এরই পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিন ২৮টি পণ্যে শুল্ক বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত নেয় ভারত।